ইসলামপুরের ঘটনা পূর্বপরিকল্পিত : পার্থ চট্টোপাধ্যায়

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 14
    Shares

নদিয়ার কৃষ্ণনগরে একটি দলীয় অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। সেখানে তিনি বলেন, ‌‘‌যে ছাত্ররা শিক্ষক চাইছে তারা কি এভাবে বিদ্যালয় ধ্বংস করতে পারে?‌ ক্লাসরুম, টেবিল, চেয়ার, কম্পিউটার সব কিছু ভেঙে দেওয়া হয়েছে। সব কিছু দেখে মনে হচ্ছে এই ঘটনাটি পূর্বপরিকল্পিত। এর পেছনে গভীর পরিকল্পনা আছে।’‌ এর পেছনে রয়েছে আরএসএস এবং বিজেপি। শনিবার ‌এমনই দাবি করলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জি। তবে তিনি জানিয়েছেন, ‘‌পুলিসের কেউ দোষী প্রমাণিত হলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এই ঘটনায় ডিআইয়ের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন আছে। তাঁকে ইতিমধ্যেই সাসপেন্ড করা হয়েছে। বিভাগীয় তদন্ত চলছে। সেখানে তিনি দোষী প্রমাণিত হলে সর্বোচ্চ শাস্তি পেতে হবে তাঁকে।’‌
এদিন রাতে কলকাতায় ফিরে নাকতলায় নিজের বাড়িতে রাত সাড়ে ৮টা নাগাদ পার্থ সাংবাদিক বৈঠক করেন। সেখানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্য তুলে ধরেন তিনি৷ মমতা বলেছেন ছাত্ররা কখনই নিজেদের স্কুল ভাঙচুর করতে পারে না। বন্‌ধ নিয়ে বিজেপি দিবাস্বপ্ন দেখছে। বাংলাকে ওরা মৃত্যুপুরী করতে চায়। আরএসএস ও বিজেপি সুপরিকল্পিতভাবে ইসলামপুরে এ ঘটনা ঘটিয়েছে।’‌
দুই ছাত্রের মৃত্যুর ঘটনা সম্পর্কে পার্থ বলেন, ‘‌এদের অকালে চলে যাওয়ার দায়িত্ব নিতে হবে আরএসএস ও বিজেপি–কে। পুলিসের গাফিলতি থাকলে ব্যবস্থা নেবে প্রশাসন।’‌ তিনি বলেন, ‘‌আরএসএস বিজেপি–কে বাঁচানোর চেষ্টা করছে। অন্যদিকে, আরএসএসের নামও পাওয়া গেছে। ২০১৩–‌য় ওই স্কুলে উর্দু ও সংস্কৃতের শিক্ষক চাওয়া হয়। এর পেছনে যদি স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির কোনও ষড়যন্ত্র থাকে, তাহলে ওই কমিটি ভেঙে দেওয়া হবে। সমস্ত বিষয়ের ওপর আমরা নজর রাখছি।’‌
এদিকে, ইসলামপুরের দাড়িভিটে বিক্ষোভে সামিল হলেন গ্রামবাসীরা। এলাকায় এখনও থমথমে পরিবেশ। বিভিন্ন জায়গায় হয়েছে অবরোধ। বিভিন্ন মহলের দাবি, দুই ছাত্রের মৃত্যুর জন্য যারা দায়ী, তাদের চিহ্নিত করে কঠোর শাস্তি দিতে হবে। মৃত দুই ছাত্র রাজেশ সরকার ও তাপস বর্মনের দেহ দাহ করা হয়নি। গ্রামের পাশের বলঞ্চা নদীর ধারে সমাহিত করে রাখা হয়েছে। সেই দেহ রাত জেগে পাহারাও দিচ্ছেন গ্রামের মানুষ। গ্রামবাসীদের অভিযোগ, ‘‌আমাদের ছেলে চলে গেছে, এরপর আমাদেরই ঘরে ঢুকে পুলিস ধরপাকড় চালাচ্ছে।’‌

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 14
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~