চলতি সপ্তাহে লোকসভায় GST, বিলে অনুমোদন কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

ওয়েব ডেস্ক,২০শে মার্চঃ কেন্দ্রের প্রস্তাবিত জি এস টি  বিলে চারটি ধারা নিয়ে আপত্তি তুলেছিল বিরোধীরা। বিরোধীদের সেই দাবি মাথায় রেখে ওই চারটি ধারায় নতুন করে খসড়া প্রস্তাব এনেছিল কেন্দ্রীয় সরকার।সোমবার সেই চারটি ধারার খসড়া প্রস্তাবে নতুন করে ছাড়পত্র দিল কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। চলতি সপ্তাহেই সংশোধিত জিএস টি বিলটি অর্থবিলের আকারে পেশ হল লোকসভায়। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে এদিনের কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে মূল আলোচ‍্য বিষয় ছিল জি এস টি বিল।সূত্রের খবর, সংসদে সংশোধিত বিলটি আলোচনার ভিত্তিতে পাশের পর বিভিন্ন রাজ‍্যের বিধানসভায় আলোচনার জন‍্য পাঠানো হবে। কেন্দ্রীয় সরকার সারা দেশে ১ জুলাই থেকে জিএসটি  বিল কার্যকর করতে বদ্ধপরিকর।

 

অবশেষে  হয়তো বাস্তবরূপ পেতে চলেছে Goods & Service Tax ৷ বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি জানান, জিএসটি বিল  মন্ত্রী পরিষদ ও পার্লামেন্টের অনুমোদনের জন্য একেবারেই প্রস্তুত ৷ অরুণ জেটলির কথায়, চলতি বছরের জুলাই মাস থেকে কার্যকর হতে পারে এই বিল ৷

দেশজুড়ে অভিন্ন করব্যবস্থা চালুর লক্ষ্যে তৈরি হয় Goods & Service Tax ৷ আলাদা আলাদা একগুচ্ছ কর নয়, সব পণ্য কিনতে ও পরিষেবা পেতে দিতে হবে একটাই কর।

১লা এপ্রিল থেকে না হলেও, কেন্দ্র ও রাজ্যের মধ্যের সমস্ত সমস্যা মিটিয়ে ১ জুলাই থেকে জিএসটি  চালুর সম্ভাবনার কথা জানিয়ে রাখলেন অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি ৷ তবে তার আগে কাটাতে হবে জট ৷

ক্রেতাকে একটি পণ্য কিনতে বা পরিষেবা নিতে বর্তমানে একাধিক ট্যাক্স বা কর দিতে হয়। পরিষেবা কর, উৎপাদন শুল্কের মতো কিছু কর নেয় কেন্দ্র। রাজ্যগুলি নেয় সেলস ট্যাক্স, লাক্সারি ট্যাক্স, ভ্যাটের মতো কর। আলাদাভাবে না নিয়ে, এক ছাতার তলায় সব করকে আনতেই গুডস অ্যান্ড সার্ভিসেস ট্যাক্স  বা পণ্য ও পরিষেবা কর – এর  জন্ম। অর্থাৎ, ক্রেতা একটি পণ্য কিনলে বা পরিষেবা নিতে চাইলে যে একটিমাত্র কর দেবেন, সেটাই জিএসটি   ৷ 

 

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.