জম্মু কাশ্মীরের পৃথক সংবিধান অনৈতিক

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 26
    Shares

জম্মু ও কাশ্মীরের আলাদা সংবিধান থাকার প্রয়োজন নেই। এটি ভারতের সার্বভৌমত্বের জন্যও ক্ষতিকারক। পৃথক সংবিধান সম্পর্কে প্রশ্ন তুলে বিতর্কে জড়ালেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা বা এনএসএ অজিত ডোভাল। সংবিধানের ৩৭০ ধারা অনুসারে কাশ্মীরের বাসিন্দারা কিছু বিশেষ সুবিধা পান। সেটা থাকা উচিত কিনা তা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে মামলা চলছে। মঙ্গলবার দোভাল বলেন কাশ্মীরের জন্য আলাদা সংবিধানের কোনও প্রয়োজন নেই। এরপরেই উপত্যকার রাজনীতিতে তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। ন্যাশনাল কনফারেন্সের নেতা মুস্তাফা কামাল জানান, কেন্দ্রীয় সরকারের উচিত অজিত ডোভালের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া। সেটা না হলে ধরে নিতে হবে তিনি যা বলেছেন সেটা কেন্দ্রের বক্তব্য। আবার পিডিপি নেতা রফি আহমেদ মীর জানিয়েছেন আমার মনে হয় জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টার মতো দায়িত্বপূর্ণ পদে থেকে এরকম মন্তব্য করা ঠিক নয়। এসব করলে দেশের সাধারণ মানুষের কাশ্মীর সম্পর্কে বিরূপ মনোভাব তৈরি হয়।
ভারতের প্রথম স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বল্লবভাই প্যাটেলকে নিয়ে লেখা একটি বই প্রকাশ অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘দেশের ভিত্তিকে মজবুত করার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রয়েছে বল্লবভাই প্যাটেলের। তাঁর প্রতি সম্মান জ্ঞাপন করি’।
তিনি আরও বলেন, ‘সার্বভৌমত্বকে কখনই গুলিয়ে ফেলা উচিত নয় এবং ভুলভাবে সংজ্ঞায়িত করা উচিত নয়। ব্রিটিশরা এদেশ ছেড়ে চলে যায়,কিন্তু সম্ভবত তারা চলে যেতে চাইনি তার অন্যতম কারণ ভারতের সার্বভৌমত্ব’। এই প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন,প্যাটেল হয়তো দেখেছিলেন কিভাবে ভারতের সার্বভৌমত্ব নষ্ট করার জন্য ব্রিটিশরা এদেশে বিভেদের বীজ পোঁতার চেষ্টা করেছিল। তাঁর তৈরি সংবিধান শুধুমাত্র দেশকে একত্রিত করেনি এটাই দেশের শেষ কথা।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 26
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~