তাইল্যান্ড থেকে ডি-কোম্পানির শ্যুটারের প্রত্যর্পণে ভারতের উদ্যোগে বাগড়া চিনের

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

​নয়াদিল্লি: তাইল্যান্ডে ছোটা রাজনের ওপর গুলি চালানোর ঘটনায় অভিযুক্ত দাউদ ইব্রাহিম গ্যাংয়ের এক ব্যক্তির প্রত্যর্পণে ভারতের উদ্যোগেও এবার বাগড়া দেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে চিন। পাকিস্তানের অনুরোধেই চিন এই কাজ করছে বলে জানা গেছে। জানা গেছে, ওই অভিযুক্তর প্রত্যর্পণ আটকে দিতে চিনের মাধ্যমে পাকিস্তান তাইল্যান্ড সরকারের ওপর চাপ চৈরির চেষ্টা করছে। ওই অভিযুক্ত মুন্না ঝিনগাড়া এখন তাইল্যান্ড জেলে বন্দী। ব্যাঙ্ককে আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন দাউদের শত্রু ছোটা রাজনকে লক্ষ্য করে ১৭ বছর আগে সে গুলি চালিয়েছিল বলে অভিযোগ। উল্লেখ্য, মুম্বই ধারাবাহিক বিস্ফোরণের মূল চক্রী দাউদ দীর্ঘদিন ধরেই পাকিস্তানে গা-ঢাকা দিয়ে রয়েছে বলে খবর। উল্লেখ্য, মুন্নাকে হাতে পেতে মুম্বই পুলিশের বহু দলই ব্যাঙ্ককে গিয়েছে। কিন্তু তাইল্যান্ড সরকার এ ব্যাপারে ভারতের সঙ্গে সহযোগিতা করছে না। মুন্নার প্রত্যপর্ণের বিষয়টি সেদেশের আদালতে ঝুলে রয়েছে। অভিযোগ, ছোটা রাজনকে খুন করতে মুন্না ২০০০ সালে ব্যাঙ্ককে গিয়েছিল। ডি-কোম্পানির সাহায্যে সে পাকিস্তানি পাসপোর্ট যোগাড় করেছিল। পাসপোর্টে পাকিস্তান মুন্নাকে তাদের নাগরিক হিসেবে দেখিয়েছে। মুন্না আদতে মুম্বইয়ের যোগেশ্বরী একালার বাসিন্দা। তার নাগরিকত্ব সংক্রান্ত নথি তাই-কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বিনিময় করেছে মুম্বই পুলিশ। এ হেন কুখ্যাত দুষ্কৃতীর প্রত্যর্পণ আটকাতে পাকিস্তানের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে চিন। উল্লেথ্য, এর আগে জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মহম্মদ নেতা মাসুদ আজহারকে রাষ্ট্রপুঞ্জ কর্তৃক আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদী ঘোষণা করার বিষয়েও ভারতের উদ্যোগে বাধার প্রাচীর গড়ে তুলেছে চিন।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.