তৃণমূল কর্মীদের স্রোত এড়িয়ে বাড়ি ফেরার রাস্তা, জেনে নিন রুট ম্যাপ…

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 22
    Shares

ওয়েবডেস্কঃ অফিসে তো পৌঁছেছেন কোনও রকমে। এবার চিন্তা বাড়ি ফেরার। ২১ জুলাই শহিদ দিবস উপলক্ষ্যে জনতার ঢল যখন বাড়ি ফিরবে তখন সবারই সমস্যা হতে বাধ্য। তৃণমূল নেতৃত্বের আশা, অতীতের সব রেকর্ড এবার ভেঙে যাবে। শহরের বিভিন্ন অংশ দিয়ে এসেছে মিছিল। যারা অফিসে পৌঁছেছেন, তারা বাড়ি ফেরার জন্য জেনে নিন কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য।
সমাবেশ শুরু হয় দুপুর ১২টা থেকে। শেষ হয় দুপুর তিনটেয়। ট্রাফিক পুলিশ জানিয়েছে, যান নিয়ন্ত্রন করা হয়েছে, ধর্মতলা থেকে গিরিশপার্ক অবধি। গাড়ি ঘুরিয়ে দেওয়া হচ্ছে চিত্তরঞ্জন এভিন্যুতে। যান চলাচল বন্ধ স্ট্র্যান্ড রোড, ব্রেবোর্ন রোড। যান নিয়ন্ত্রন করা হয়েছে হসপিটাল রোড, ক্যাথিড্রাল রোড, ক্যাসোরিনা এভিন্যু, এবং লাভারস পয়েন্টে। যান চলাচল ব্যহত হতে পারে দক্ষিণ কলকাতার হাজরা অঞ্চলে। মা ফ্লাই ওভার ব্যবহারের উপদেশ দিচ্ছে কলকাতা ট্রাফিক পুলিশ। যেহেতু ধর্মতলায় সভা তাই চিত্তরঞ্জন অ্যাভিনিউ, লেনিন সরণী, এসপ্ল্যানেড ইস্ট, চৌরঙ্গি এড়িয়ে যাওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ। বেন্টিঙ্ক স্ট্রিট যেমন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। সকাল ১১টা পর্যন্ত স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা হয়েছে এসএন ব্যানার্জি রোড, রানি রাসমণি অ্যাভিনিউ, মেয়ো রোড, ডাফরিন রোড, ব্রেবোর্ন রোড। তাই নিত্যযাত্রীদের ভরসা আজ ইএম বাইপাস। এছাড়া মেট্রো এবং দ্বিতীয় হুগলি সেতু ব্যবহার করতে পারেন। ফেরি সার্ভিসও ব্যবহার করা যেতে পারে। বিটি রোড ধরে শ্যামবাজার ছুঁয়ে বাইপাস ধরা যেতে পারে। এছাড়া রাস্তায় বেরিয়ে অসুবিধায় পড়লে, কিংবা শরীর খারাপ হলে ১৮টি জায়গায় থাকছে অ্যাম্বুলেন্স পোস্ট। বিভিন্ন পার্কিং লটে থাকবে নিরাপত্তা। শহরের ৪০ জায়গায় থাকবে পুলিস পিকেট। পুলিসের তরফে জানানো হয়েছে, যান যন্ত্রণা চলবে সকাল ১১টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। সন্ধেয় যান চলাচল স্বাভাবিক হবে।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 22
    Shares

Sponsored~