নেপালের পাশে চীন, বাণিজ্যের জন্য বন্দর দিয়ে সাহায্য

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 28
    Shares

নিজস্ব বন্দর না থাকায় বাণিজ্যের জন্য ভারতের উপরেই ভরসা করতে হয় নেপালকে। এজন্য তাঁরা ব্যবহার করে খিদিরপুর এবং বিশাখাপত্তনম বন্দর। কিন্তু চীনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, নেপাল যে কোনও সামগ্রী আমদানি–রপ্তানির জন্য তাঁদের চারটি বন্দরকে ব্যবহার করতে পারবে। এই বন্দরগুলি হল– তিয়ানজিন, সেনঝেন, লিয়ানয়ুগাং ও ঝানজিয়াং বন্দর। এছাড়া বাণিজ্যের জন্য লানঝৌউ, লাসা এবং জিয়াগাতসে নামে তিনটি স্থলবন্দর এবং সড়কও ব্যবহার করতে পারবে নেপাল। কূটনৈতিকমহলের মতে, নেপাল এবং চীনের নৈকট্য আগামিদিনে ভারতের মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়াবে। দক্ষিণ–পূর্ব এশিয়া অঞ্চলে নিজের আধিপত্য বিস্তার করতে এবং ভারতকে চাপে রাখতেই চীন এভাবে নেপালের পাশে দাঁড়িয়েছে। নিজেদের চারটি বন্দর খুলে দিয়েছে। এছাড়া চীনের সঙ্গে স্থলপথেও বাণিজ্যের ব্যাপারে কথাবার্তা অনেকটা এগিয়েছে তাঁদের। শুক্রবার এই নিয়ে দু’‌দেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক হয়। তারপরই নেপাল সরকারের পক্ষ থেকে একথা ঘোষণা করা হয়েছে। এর আগে ২০১৫ এবং ২০১৬ সালে ভারত–নেপাল বাণিজ্য সম্পর্কে চাপানউতোর দেখা দেয়। বহুদিন ভারতে আটকে থাকে ওষুধ এবং তেল। যা কিনা স্থলপথে নেপাল যাওয়ার কথা ছিল। তবে এখনও পুরোটা মৌখিক স্তরে থাকলেও খুব শীঘ্রই দু’‌দেশের মধ্যে মৌ–চুক্তি স্বাক্ষরিত হবে। এদিকে, এতেই সিঁদুরে মেঘ দেখছে দিল্লি।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 28
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~