পাকিস্তানকে ফের অর্থ সাহায্য দেওয়া বন্ধ করল আমেরিকা

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 35
    Shares

পাকিস্তান ক্রমাগত জঙ্গি দমনে ব্যর্থ। এর আগেও বহুবার আমেরিকার পক্ষ থেকে এ বিষয়ে সতর্ক করা হয়েছিল ইসলামাবাদকে। কিন্তু পাকিস্তান সরকার তাতে কর্ণপাত করেনি। আমেরিকা থেকে যে ৩০০ মিলিয়ন ডলার সাহায্য ইসলামাবাদকে দেওয়ার কথা ছিল, সেটা আর তারা দেবে না। এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়ে গিয়েছে মার্কিন সেনার। ৩০ সেপ্টেম্বরের আগেই এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে মার্কিন সরকার। এ কথা জানিয়েছেন পেন্টাগনের মুখপাত্র কন ফউলকনর।
পেন্টাগনের মুখপাত্র জানান, জঙ্গি দমনে ইসলামাবাদ কড়া ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় এই সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে। পাকিস্তানকে জঙ্গি সংগঠনগুলির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্রথমে ৮০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অর্থ সাহায্যের কথা বলা হয়েছিল। দু’‌টি কিস্তিতে এই টাকা দেওয়ার কথা থাকলেও পাকিস্তান তাদের প্রতিশ্রুতিমতো জঙ্গি দমনের ক্ষেত্রে যথাযথ ব্যবস্থা নেয় না। যার ফলস্বরূপ আমেরিকা ৫০০ মিলিয়ন ডলার অর্থ দেওয়া বন্ধ করে দেয় পাকিস্তানকে। এবার বাদবাকি ৩০০ মিলিয়ন ডলারও হারাতে চলেছে পাকিস্তান।
ফলে মসনদে বসেই বড়সড় ধাক্কা খেলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। মুখপাত্র কন ফউলকনর জানিয়েছেন, এই অর্থ অন্য কাজে ব্যবহার করবে পেন্টাগন। চলতি বছর জানুয়ারি মাসে মার্কিন প্রশাসন সিদ্ধান্ত নেয় পাকিস্তানকে যে আর্থিক অনুদান দেওয়া হয়, তা কমিয়ে দেওয়া হবে৷ তবে জঙ্গি মদতের সব অভিযোগ অস্বীকার করেছে পাকিস্তান৷

Image result for trump no to pakistan
পাকিস্তানের হাক্কানি নেটওর্য়াক আমেরিকা ও আফগানিস্তানের বহু নাশকতার সঙ্গে যুক্ত৷ এছাড়াও পাকিস্তানের নিশ্চিত আশ্রয়ে রয়েছে তালিবান ও লস্কর-ই-তৈবার মতো জঙ্গি গোষ্ঠী৷ এই জঙ্গি সংগঠনগুলির নিয়ন্ত্রণে পাকিস্তানের বেশ কিছু অঞ্চল৷ তাদের বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন ধরে কোনও ব্যবস্থা না নেওয়ায় বেশ ক্ষুব্ধ মার্কিন প্রশাসন৷ জানা গিয়েছে, মার্কিন প্রতিরক্ষা সচিব জিম ম্যাটিস পাকিস্তানকে অর্থ সাহায্যের ব্যাপারে আগ্রহী ছিলেন না৷ তাই প্রথম কিস্তির ৫০০ মিলিয়ন ডলার অর্থ সরবরাহ করা হয়নি পাকিস্তানকে৷ এবার দ্বিতীয় কিস্তির টাকা না দেওয়ার ব্যাপারে মার্কিন সেনা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছে৷

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 35
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~