বদলে যেতে পারে জম্মু কাশ্মীরের রাজ্যপাল…

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

এক দশকেরও বেশি সময় ধরে জম্মু কাশ্মীরের রাজ্যপালের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন এন এন ভোরা। কিন্তু এবার আর তাঁকে ওই পদে রেখে দিতে চাইছে না কেন্দ্র। তাঁর জায়গায় প্রাক্তন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিবকে রাজ্যপালের দায়িত্বে নিয়ে আসা হতে পারে বলে জানা গিয়েছে। উঠে আসছে আরও কয়েকটি নাম। তার মধ্যে আছে প্রাক্তন সেনা প্রধানের নামও। তবে কোনও রাজনৈতিক চরিত্রকে দায়িত্বে আনার ভাবনা সরকারের নেই।
প্রসঙ্গত, বিজেপি সরকার থেকে সমর্থন প্রত্যাহার করায় গত মাসের ২০ তারিখ থেকে কাশ্মীরে রাজ্যপাল শাসন জারি হয়েছে। সে সময় বিজেপি বলেছিল শরিক দল পিডিপি’র কিছু কাজ মেনে নিতে না পেরেই তারা সরকার থেকে সরে গেল। এই রাজ্যপালের সঙ্গে মোদী সরকারের সংবিধানের ৩৫-এ ধারা প্রত্যাহার প্রসঙ্গেও সংঘাত আছে। এই ধারায় বলা আছে কোনও ব্যক্তি কাশ্মীরের স্থায়ী নাগরিক কিনা সেটা ঠিক করার অধিকার আছে রাজ্য সরকারের। কেন্দ্র এই ধারার বিলুপ্তি চায়। কিন্তু রাজ্যপাল মনে করেন উপত্যকার বেশিরভাগ মানুষই এমনটা চায় না। তাই তিনি চিঠি লিখে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংকে এমন পদক্ষেপ নেওয়া থেকে সরে আসতে অনুরোধ করেছেন। তাঁর মতে স্থায়ী সরকার তৈরি হওয়ার আগে এরকম কোনও পদক্ষেপ করা ঠিক হবে না।
পাশাপাশি, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের কর্তাদের কেউ কেউ এই রাজ্যের একটি পুরনো ঘটনার কথা উল্লেখ করে বর্তমান পরিস্থিতি ব্যাখ্যা করতে চাইছেন। তাঁরা বলছেন, ১৯৮৪ সালে প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধি প্রায় একই ভাবে তখনকার রাজ্যপাল বি কে নেহরুকে ফারুক আব্দুল্লার সরকার ফেলে দিতে বলেছিলেন। রাজ্যপাল রাজি হননি বলে তাঁকে পদ ছাড়তে হয়। দায়িত্ব নেন জগমোহন৷ তিনি প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ মেনে কাজ করেন। পড়ে যায় সরকার। নতুন সকারের মুখ্যমন্ত্রী হন জি এম শাহ। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের কর্তাদের অনেকেরই ধারনা জগমোহন হতে আপত্তি আছে ভোরার। তাই সরতে হচ্ছে তাঁকে। প্রশাসনিক মহলের মতে এরকমই কয়েকটি কারণে পদ ছাড়তে হচ্ছে ভোরাকে।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~