বর্ষার মরসুমে রয়ে গেল ঘাটতি, জানাল মৌসম ভবন

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 7
    Shares

আবহাওয়া দপ্তরের হিসাব অনুযায়ী রবিবার শেষ হয়েছে বর্ষার মরশুম। কারণ ১ জুন থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বর্ষার মরশুম ধরে আবহাওয়া দপ্তর। বর্ষা শুরু হওয়ার আগে মৌসম ভবন যে পূর্বাভাস দিয়েছিল তার থেকে বেশ কিছুটা কমেই শেষ করল এবারের বর্ষা। মৌসম ভবনের দাবি ছিল এবার ৯৭ শতাংশ বৃষ্টি হবে গোটা দেশে। কিন্তু দেখা গেল বৃষ্টি হল ৯০.৬ শতাংশ। অর্থাৎ পূর্বাভাসের থেকেও ৬ শতাংশ কম।
দেশের যে রাজ্যগুলিতে ঘাটতি বৃষ্টি হয়েছে এবার তার চিত্রটি দেখা যাক। মণিপুরে ৫৯ শতাংশ, মেঘালয়ে ৪১ শতাংশ, অরুণাচল প্রদেশে ৩২ শতাংশ, গুজরাট ও উত্তরাখণ্ডে যথাক্রমে ২৮ শতাংশ, বিহারে ২৫ শতাংশ এবং পশ্চিমবঙ্গে ২০ শতাংশ ঘাটতি বৃষ্টি হয়েছে বলে খবর।
আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে খবর, উত্তরবঙ্গের ছবিটা কিছুটা ভাল হলেও দক্ষিণবঙ্গের ছবিটা খুবই খারাপ। দক্ষিণবঙ্গে আট বছর পর কুড়ি শতাংশের বেশি ঘাটতিতে শেষ হল বর্ষা। অন্যদিকে উত্তরবঙ্গে বর্ষা শেষ করেছে ১৩ শতাংশ ঘাটতিতে। এই বিপুল পরিমাণ ঘাটতির ফলে এখন সব থেকে বড় প্রশ্ন শুখা মরশুমে কী হবে? কারণ রাজ্যের অধিকাংশ নদীতেই এখন সেভাবে জল নেই। ফলে সামনের বছর গরমে রাজ্যে জলকষ্ট শুরু হবে না তো? এখনই সেরকম অবশ্য আশঙ্কার সম্ভাবনা নেই। কারণ অক্টোবর মাসে ভাল বৃষ্টি হতে পারে গোটা রাজ্যেই। কিছু নিম্নচাপও আসতে পারে। তাতে রাজ্যে জলের ভাণ্ডার কিছুটা হলেও পূরণ করতে পারে তারা।
রাজ্য থেকে বর্ষা এখনও বিদায় নেয়নি। অন্তত দশ দিন বাকি রয়েছে। তবে তাতে কি ঘাটতি মিটবে? সেই উত্তর তো দেবে প্রকৃতি৷ সেদিকেই তাকিয়ে সাধারণ মানুষ৷ তবে পুজোয় বৃষ্টি চাইছেন না কেউই৷

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 7
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~