বিমল গুরুঙের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা শুরু

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 50
    Shares

গত বছর ৮ জুন পাহাড়ে মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালীন ভানু ভবনে হামলা চালানোর জেরে মামলা করা হয়। ওই সময় সবাই পাহাড় ছেড়ে পালিয়ে যায়। আদালতে হাজির হতে বললেও, কেউ দেখা করেননি। ফলে এঁদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হয়। তালিকায় নাম ছিল বিমল ও আশা গুরুং, রোশন গিরি, প্রকাশ গুরুং, অমৃত ইয়াঞ্জন ও অশোক ছেত্রির।এর পরে পাহাড়ে অশান্তি তৈরি ও বিস্ফোরণের অভিযোগে গুরুংদের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার মামলাও হয়। পরিস্থিতি এমন হয় যে পাহাড়ে পা রাখলেই সবাইকে গ্রেপ্তার করা হবে। ফলে বার বার বিজ্ঞপ্তি সত্ত্বেও হাজিরা না দেওয়ায় বিমল গুরুংয়ের অস্থাবর সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার কাজ শুরু করল পুলিস। এদিন গুরুংয়ের বাড়িতে গিয়েছিল সিআইডির দলও। দার্জিলিং দায়রা আদালতের সহকারী সরকারি কৌঁসুলি পঙ্কজ প্রসাদ জানান, এর পর আদালতে শুনানি হলেও কেউ হাজিরা দেননি। ২৯ মার্চ ফের বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয় হাজিরা দেওয়ার জন্য। সেই চিঠি গুরুং, রোশনদের বাড়ি–‌সহ সর্বত্র টাঙিয়ে দেওয়া হয়। সেখানেই বলা হয়েছিল, হাজিরা না দিলে সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার কাজ শুরু হবে।
তবে মাঝে গুরুংয়ের আইনজীবী সুপ্রিম কোর্টে রিট পিটিশন জমা করেন। যদিও পরে সেটা খারিজ হয়ে যায়।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 50
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~