জয়া আহসান অভিনীত “ভালোবাসার শহর”- বাংলার প্রথম ইন্ডিপেনডেন্ট সিনেমা

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

“সিনেমাটি ‌যদি আপাদের ভালোলাগে, আপনাদেরকে স্পর্শ করে তবেই আমাকে আর্থিক ভাবে সাহা‌য্য করুন। ‌যদি পছন্দ না হল তাহলে করবেন না, তাতেও আমরা হতাশ হব না। তবে ‌যদি করেন তাহলে আমরা বুঝব আমরা সঠিক পথে হাঁটছি, পরবর্তী কালে এধরণের উদ্যোগকে আরও এগিয়ে নিয়ে ‌যাওয়ার সাহস আমরা পাব।”—- নিজের দর্শকদের উদ্দেশে এমনটাই বার্তা দিলেন ছোটছবি ‘ভালোবাসার শহর’ এর পরিচালক ইন্দ্রনীল রায়চৌধুরী।Bhalobashar Shohor

ইউটিউবে তাঁর নিভৃত গোপনে লুকিয়ে থাকা শর্ট ফিল্ম ভালোবাসার শহর দেখার আগেই পরিচালকের এই বার্তা আপনার মন স্পর্শ করবে। আসলে প্রযোজনা, মার্কেটিং, হলে চালানো নানা কারণে সিনেমা তেমন চলে না বাংলায়। তাই পরিচালক অভিনব উদ্যোগ নিয়েছেন। ইউটিউবে ভারত ও বাংলাদেশের দর্শকরা বিনা শুল্কেই ‘ভালোবাসার শহর’  বা ‘City Of Love’ দেখতে পাচ্ছেন। তবে ‌যাঁরা চাইছেন তাঁর ফিল্মটির জন্য পরিচালককে এখন আর্থিকভাবে সাহা‌য্যও করছেন। ঠিক ‌যেমন করে পরিচালক অনুরোধ করেছিলেন। যদিও পরিচালক জানাচ্ছেন, যখন প্রথমে তিনি ‌এভাবে উপা‌র্জনের কথা ভাবেন অনেকেই হেসে উড়িয়ে দেন, গুরুত্ব দেননি। আসলে টাকা না দিয়েই মানুষ দেখবেন সিনেমাটি। তবে এখন লক্ষ্য করা ‌যাচ্ছে অনেকেই এই ফিল্মটির জন্য অর্থ পাঠিয়ে দিচ্ছেন।  পরিচালক জানাচ্ছেন ইতিমধ্যেই ইউটিউবে প্রায় এক লাখ মানুষ সিনেমাটি দেখেছেন। ইন্দ্রনীল রায়চৌধুরীর  ‘ভালোবাসার শহর’ মানুষের ভালোবাসাকে স্পর্শ করতে পেরেছে।

 

সিরিয়াতে ভালবাসার যুগল বিয়ের পর চলে যান…তারপর কী হয় সেটাই দেখার। ছবির সংলাপ, ক্যামেরার কাজ, মেকিং, আবহ, শব্দ গ্রহণ সব দিকেই বিশেষ দক্ষতার পরিচয় রেখেছেন। তাই জনতার কাছেও সাফল্যের ভালবাসা এই প্রয়াসকে সফলতা দেবেই। আসলে ভবিষ্যতের বাংলা সিনেমা শিল্পকে আরও সাবলম্বী করবে এই প্রচেষ্টা। এর আগেও তাঁর শর্টফিল্ম ‘ফরিং’ বহু আন্তর্জাতিক ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে পুরস্কার জিতে নিয়েছিল।

অনন্ত এক ভালবাসার কথারা লুকিয়ে, মনকেমনিয়া এই সিনেমাটি দেখুন অবসরে নিচের লিংক থেকে……

 

 

 

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.