ভয়াবহ দুর্ঘটনা শিয়ালদহ স্টেশনেঃ বাফার ভেঙে প্ল্যাটফর্মে ধাক্কা ট্রেনের, জখম ২১ জন যাত্রী

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

ওয়েব ডেস্কঃ   শিয়ালদহ স্টেশনে দুর্ঘটনা ৷অফিসের ব্যস্ত সময়ে বড়-সড় দুর্ঘটনার সাক্ষী হওয়া থেকে বেঁচে গেলেন শিয়ালদহ স্টেশনে অপেক্ষারত কয়েক হাজার যাত্রী। বুধবার সকালে গার্ডওয়ালে ধাক্কা মারে সোনারপুর লোকাল। প্রথমে লোকাল ট্রেনটি ধাক্কা মারে বাফারে ও পরে গিয়ে লাগে গার্ডওয়ালে ৷ ট্রেনের গতি বেশি থাকায় দুর্ঘটনা বলে জানা গিয়েছে ৷ সকাল ৯টা ২২ মিনিটে সোনারপুর স্টেশন থেকে ছেড়েছিল লোকাল। বুধবার সকালে ১০.২০টা নাগাদ শিয়ালদা ঢুকছিল ট্রেনটি। নিয়ম মেনে বাফারের আগে তার থামার কথা। কিন্তু সোনারপুর লোকাল বাফার ভেঙে সোজা প্ল্যাটফর্মে গিয়ে ধাক্কা মারে।

Sealdah-web

শিয়ালদহ স্টেশনের দক্ষিণ শাখায় ১৩ নম্বর প্ল্যাটফর্মের গার্ডওয়ালে এসে সজোরে ধাক্কা মারে সোনারপুর লোকাল। ধাক্কার জোর এতটাই ছিল যে মোটরম্যানের কামরার পরেই থাকা মহিলা কামরা লাইনচ্যুত হয়ে যায়। ঝাঁকুনিতে মহিলা কামরার যাত্রীরা ছিটকে পড়েন। অনেক মহিলা দরজার সামনে দাঁড়িয়েছিলেন। তাঁদের অনেকেই ছিটকে প্ল্যাটফর্মে গিয়ে পড়েন।১৩ নম্বর প্ল্যাটফর্মের পাশেই ১৪ নম্বর প্ল্যাটফর্মে দাঁড়িয়েছিল অন্য একটি ট্রেন। মহিলা কামরাটি লাইনচ্যুত হয়ে গিয়ে ১৪ নম্বর লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রেনের সঙ্গে আটকে যায়।দুর্ঘটনার জেরে সজোরে ছিটকে পড়ে জখম হন বেশ কিছু যাত্রী। প্ল্যাটফর্মে ধাক্কা মারার পর, সোনারপুর লোকালের ২ নম্বর বগির চাকা বেলাইন হয়ে যায়।

জখম যাত্রীদের অনেকের দাবি, ১৪ নম্বর প্ল্যাটফর্মে ট্রেন না থাকলে আরও ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটতে পারত। বহু মহিলা যাত্রী ১৩ নম্বর ও ১৪ নম্বর রেল লাইনের মাঝখানে ঝুলছিলেন। তাঁদের অতি দ্রুত উদ্ধার করা হয়। শেষ পাওয়া খবরে প্রায় ২১ জন যাত্রী জখম হয়েছেন।  দুর্ঘটনার জেরে বিঘ্নিত শিয়ালদা দক্ষিণ শাখায় ট্রেন চলাচল। উপরন্তু, দুর্ঘটনার জেরে বিক্ষোভ দেখান যাত্রীরা। আহত যাত্রীদের চিকিত্‍সার জন্য নিয়ে যাওয়া হয় বি আর সিং হাসপাতালে।হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, সেখানে ভর্তি হওয়া অধিকাংশ যাত্রীর মাথায় এবং শরীরে গুরুতর আঘাত রয়েছে। মহিলাদের সঙ্গে সঙ্গে বেশ কয়েক জন পুরুষ যাত্রীরও চিকিৎসা চলছে বলে জানা গিয়েছে।

Image result for বড় রেল দুর্ঘটনা শিয়ালদহ স্টেশনেএদিকে,মারাত্মক দুর্ঘটনা কীভাবে ঘটল সেটির তদন্ত ইতিমধ্যেই শুরু করেছে রেল কর্তৃপক্ষ।  সোনারপুর লোকালের গতি বেশি থাকার কথা মানছেন পূর্ব রেলের সিপিআরও রবি মহাপাত্র। পাশাপাশি অন্য কোনও কারণ আছে কিনা, তাও খতিয়ে দেখছে রেল। তবে উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই চালকের অ্যালকোহল টেস্ট করা হয়েছে এবং শোকজের পর সাসপেন্ড করা হয়েছে ট্রেনের চালক ও গার্ডকে।

 

 

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.