রাফাল নিয়ে মুখ খুললেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 20
    Shares

বিমানগুলি চড়া দামে কেনা হয়েছিল কিনা তা খতিয়ে দেখার দায়িত্ব কম্পট্রোলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল বা সিএজি–র। সিএজি রিপোর্ট হাতে পেলেই পরিষ্কার হয়ে যাবে ইউপিএ সরকারের আমলে যে দামে চুক্তি হয়েছিল রাফালে কেনার তার থেকে অনেক কম দামেই এনডিএ সরকার কিনেছে রাফালে বিমানগুলি। নিরাপত্তার খাতিরেই ওই যুদ্ধবিমানের ক্রয়মূল্য বিস্তারিতভাবে প্রকাশ্যে আনা সম্ভব নয়। যে যাই বলুক, রাফালে চুক্তি বাতিল হবে না। রবিবার একথা সাফ জানালেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি।
রাফালে চুক্তি নিয়ে প্রাক্তন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ফ্রাসোয়া অলাঁদের বিবৃতি এবং রাহুল গান্ধীর টুইট সম্পর্কে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর কটাক্ষ, ‌এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা যে দু’‌দেশের দুই বিরোধী নেতাই এক সুরে কথা বলছেন। রাহুলের নাম না করে জেটলি বলেন, ‘‌উনি বোধহয় প্রতিশোধ নিতে চাইছেন। আমি অবাক হব না যদি জানা যায়, দুটি মন্তব্যই সম্পূর্ণ বানানো।
প্রসঙ্গত, প্রাক্তন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া অলাঁদে বলেছিলেন, অনিল আম্বানির কোম্পানিকে সুবিধা পাইয়ে দিতেই পুরনো রাফালে চুক্তি বাতিল করে নতুন চুক্তি করা হয়েছিল। তারপরই দেশজুড়ে কংগ্রেস সহ সব বিরোধী দল এই ইস্যুতে সরব হয়ে ওঠে। ফরাসি যুদ্ধবিমান কেনায় দুর্নীতির যাবতীয় অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে এদিন জেটলি বলেছেন, সিএজি–কে রাফালে চুক্তি নিয়ে স্মারকলিপি জমা দিয়েছে কংগ্রেস। সিএজি আগের এবং এখন কেনার দাম পরীক্ষা করে দেখবে। কারণ, ২০০৭ সালে কেনা কোনও যুদ্ধবিমানের থেকে ২০১৬ সালে কেনা যুদ্ধবিমান প্রায় ২০ শতাংশ সস্তা হয়ে থাকে। এখন সিএজি–ই দুটো দাম খতিয়ে দেখে রিপোর্ট দেবে। তাঁরা সিএজি রিপোর্টের অপেক্ষায় রয়েছেন।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 20
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~