সপ্তমীর সকালে পথদুর্ঘটনা হুগলিতে, মৃত ৫

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

 

মঙ্গলবার অর্থাৎ সপ্তমীর সকাল ৯ টা নাগাদ এক মর্মান্তিক পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল পাঁচ যাত্রীর। এদিন সকালে আরামবাগ থেকে কোলকাতা যাচ্ছিল একটি যাত্রী বোঝাই বেসরকারি বাস। কালুরবাটি গ্রাম সংলগ্ন এলাকায় হঠাতই বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ডাকাতিয়া খালের ওপরে ব্রীজের রেলিং এ ধাক্কা মারে। রেলিং ভেঙে যাত্রী বোঝাই বাসটি সোজা ডাকাতিয়া খালে গিয়ে পড়ে, সম্পূর্ণই উল্টে যায়। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় চার যাত্রীর, পরে হাসপাতালে মৃত্যু হয় আরও এক জনের। গুরুতর আহত হয়েছেন প্রায় পঁচিশ জন। মৃত তিন জনের পরিচয় জানা গেছে। তাঁরা হলেন মৌমিতা ঘোষ, বাড়ি খানাকুল থানার অন্তর্গত গনেশপুর এলাকায়। মৃত সোনা পাল সুনীতি দত্ত, ডানকুনি থানার চামুণ্ডাতলা রায় পাড়ার বাসিন্দা। মৃত বাকি দুজনের পরিচয় জানা যায়নি। বাসটি আরামবাগের গড়েরঘাট থেকে আসছিল। খবর পাওয়া মাত্রই ঘটনাস্থলে আসেন পুলিশ সুপার গ্রামীন সুকেশ জৈন। পুলিশ সুপারের নেতৃত্ত্বে যুদ্ধ কালীন তৎপরতায় উদ্ধার কাজ শুরু করে বিশাল পুলিশ বাহিনী। পুলিশ সুপার জানিয়েছেন দ্রুততার সঙ্গে উদ্ধার কাজ চালানো হয়েছে। কিছুক্ষনের মধ্যেই দুর্ঘটনাগ্রস্থ বাসে থাকা সকল যাত্রীকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। পরবর্তী সময় বেশ কয়েক জনের শারীরিক অবস্থা অবনতি হওয়ায় তাঁদের চুঁচুড়া সদর হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। এদিকে আহতদের চিকিৎসার যাবতীয় তদারকি করতে চুঁচুড়া হাসপাতালে হাজির ছিলেন মন্ত্রী তপন দাশগুপ্ত। হাসপাতালে ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস নেতা মনোজ চক্রবর্তী প্রমুখ। মন্ত্রী তপন দাশগুপ্ত জানিয়েছেন মৃত পাঁচ যাত্রীকে শ্রীরামপুর হাসপাতালে ময়নাতদন্তের ব্যবস্থা করা হয়েছে। চুঁচুড়া হাসপাতালে থাকা আহত সকলেরই চিকিৎসা শুরু হয়েছে। প্রত্যেকেই ভালো আছেন। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় উত্তেজনা থাকায় প্রচুর পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

আহত প্রায় পঁচিশ জনকে ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে। ঘটনাটি ঘটেছে ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়েছে হরিপাল থানার অন্তর্গত কালুরবাটি গ্রাম সংলগ্ন অহল্যাবাই রোড এলাকায়। দ্রুত ঘটনাস্থলে ক্রেন আনার ব্যবস্থা করা হয়। উল্টে পড়া বাসটিকে টেনে তোলার ব্যবস্থা করা হয়। উদ্ধার কাজে হাত লাগায় স্থানীয় বাসিন্দারাও। ঘটনার খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে হাজির হন হরিপালের বিধায়ক ব্যাচারাম মান্না। তড়িঘড়ি আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় হরিপাল গ্রামীন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~