সারারাত চোখে ঘুম ছিল না: সৌমিত্রী চ্যাটার্জী

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 2
    Shares

কাল সারারাত চোখে ঘুম ছিল না।
খোলা জানালায় সাজানো পর্দা ছিল।
এক আকাশ রাতের অন্ধকার ছিল।
কাঁঠাল গাছের পাতার ফাঁকে
হাওয়ার ফিসফিসানি ছিল।
বৃষ্টি ঝরা চৈত্র রাতের মৃদু শীতল আবেশ ছিল।
দিশাহারা মনে কিসের যেন খোঁজ ছিল।
ছেঁড়া মনের টুকরো গুলো বড্ড কাছে ছিল।
শুধু দুচোখে ঘুম ছিল না।
কাল সারারাত চোখে ঘুম ছিল না।

মাথার পাশে একলা মনও ছিল।
নিঃসঙ্গ বালিশে খোলা দৃষ্টি ছিল।
রাতের আঁধারে ভিজে মনের নিস্তব্ধতা ছিল।
চোখের দুকোণে শুষ্ক কান্নার গোঙানি ছিল।
শীতলতম ওষ্ঠাধরে কাঠিন্য ছিল।
অব্যক্ত, অবর্ণনীয় কিছু যন্ত্রণা ছিল।
উন্মুক্ত শরীরে শ্বাদন্তের বিচরণ ছিল।
সামাজিক তকমার আশ্রয়ে নিয়মিত ধর্ষণ ছিল।
শুধু দুচোখে ঘুম ছিল না।
কাল সারারাত চোখে ঘুম ছিল না।

গুমড়ানো রাতের নিষ্পেষণে যন্ত্রণাকাতর শরীর ছিল।
শরীরী যন্ত্রণায় মিশে মনের অবলুপ্তি ছিল।
দীর্ঘাকৃতি রাতের দীর্ঘায়ত গোঙানি ছিল।
সহ্যক্ষমতার চূড়ান্ত পরীক্ষা ছিল।
বিষন্নতার বিড়ম্বনায় অস্ফুট মনের হাহাকার ছিল।
রাতের মুখোশে নিরাভরণা শরীরে নাটুকে মোচড় ছিল।
শ্বাপদের অস্তিত্বের আঁচড়ে
ছিন্নভিন্ন শরীরে কান্নাভেজা মন ছিল।
কারো প্রতীক্ষায় প্রহর গোনা উদাসী মন ছিল।
সে ছিল, তবুও ছিল না।

কাল সারারাত চোখে ঘুম ছিল না।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 2
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.