খবর ২৪ ঘন্টা

হাতিবাগান নবীন পল্লী এবং জগৎ মুখার্জি পার্কের পুজোর ‘থিম’ ভাবনায় সুবল পাল

ছবি সৌজন্য :- অনুষ্টুপ ভট্টাচার্য

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

বিগত কয়েক বছর ধরে থিম পুজোর চিন্তা ভাবনাতে এগিয়ে আসছে উঃ কলকাতার সাবেকী পূজা কমিটিগলোও। দক্ষিণের থিম পূজোগুলিকে রীতিমতো চ‍্যালেন্জ্ঞের মুখে ফেলে দিয়েছে এই পূজো কমিটিগুলো। থিম ভাবনা,আলোকসজ্জা,মন্ডপ সজ্জায় লড়াই এখন রীতিমতো জমে উঠেছে। সম্প্রতি প্রেস ক্লাবে হাতিবাগান নবীন পল্লী ও জগৎ মুখার্জি পার্কের উদ্যোগক্তারা উপস্থিত হয়েছিলেন তাদের এবারের পুজোর থিম প্রকাশ‍্যে আনার উপলক্ষে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত চিলেন সুপ্রতিম ঘোষ, ডাঃ পুলক দে, সুব্রত গাঙ্গুলি, সৌম্যজিৎ লাহিড়ি, তেজাশ গান্ধী, পার্থ পাল ও পিলু ভট্টাচার্য সহ বিশিষ্টজনরা। এই দুটো পূজোরই থিমের ভাবনায় রয়েছেন শিল্পী সুবল পাল। নবীন পল্লীর থিম ভাবনার বিষয় “তবু মনে রেখো” ।

বর্তমানে সংবাদপত্রের বিকল্পে হিসেবেএসেছে পোর্টাল, বইয়ের পরিবর্তে এসেছে ই-বুক। আজ আর পাঠাগারগুলিতে দেখা যায়না বইপ্রেমীদের ভিড়। প্রায় সবকিছুই বিলুপ্তের পথে।আর সেটাই হল এবারের এবারের পূজোর থিম।নবীন পল্লির থিম সং রচনা করেছেন অনিন্দ্য চ্যাটার্জি (চন্দ্রবিন্দু) এবং ভাষ্যপাঠে আছেন জগন্নাথ ও উর্মিমালা বসু, আবহ সঙ্গীতে বিমল ব্যানার্জি এবং পোষাক সজ্জায় আছেন তেজস গান্ধী। পুজোর চেয়ারম্যান কলকাতা কর্পোরেশনের এমআইসি অতীন ঘোষ এবং প্রধান পৃষ্ঠপোষক রাজ্যের মন্ত্রী সাধন পান্ডে।


জগৎ মুখার্জি পার্কের দূর্গাপুজো বেশকিছু বছর ধরে থীম পুজো শুরু করেছে। এই পূজোর ও থিমভাবনায় রয়েছেন শিল্পী সুবল পাল। ২০১৮ সালে বসে ১০০ বছর আগের বা পরের ঘটনাবলীকে ‘স্বপ্নালোকে’ তুলে ধরতে চেয়েছেন শিল্পী সুবল। থিম ভাবনার মধ‍্যে দিয়ে এবার দেখানো হবে ২২১৮ সালে আপনাকে নিয়ে যাবে টাইম মেশিন,অর্থাৎ ২০০ বছর পরের ঘটনা ২০১৮ সালে দাঁড়িয়ে মানুষ দেখতে পাবে। আবাহ সঙ্গীতে আছেন পার্থ পাল ,পোষাক সজ্জায় তেজস গান্ধী।এই দুই পুজো সংগঠন বা বলা ভাল পূজা কমিটি যৌথভাবে পুজোর প্রচার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সেই প্রচারের সম্পূর্ন দায়িত্ব সামলাবেন নিলাদ্রী শেখর গাঙ্গুলি।


ছবি সৌজন্য :- অনুষ্টুপ ভট্টাচার্য

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...