“চৌকিদার” এর রাম-রাজত্বে রোজ ১০৬ টি ধর্ষণ, যার ৪০% নাবালিকা ~ সরকার ব্যাস্ত ধর্মের দোষারোপে

IPL লাইভ স্কোর~

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 1.9K
    Shares

ওয়েব ডেস্ক~  উন্নাও ও কাঠুয়া নিয়ে যখন দেশ তোলপাড়, বাদ যাচ্ছেনা লোকসভা থেকে সোশ্যাল মিডিয়া অথবা মোমবাতি মিছিল থেকে টুইটারে আছড়ে পরা প্রতিবাদী কণ্ঠস্বর। কিন্তু কিছুতেই পাল্টাচ্ছেনা দেশের লজ্জাজনক চিত্র। এই প্রতিবেদন যখন লেখা হচ্ছে, তখনই হয়তো দেখের কোনও কোনায় ধর্ষকের লালসার শিকার হতে হচ্ছে কোনও নারী কিম্বা নাবালিকা কে।

হ্যাঁ এটাই ৫৬ ইঞ্চি ছাতির তৈরি রামরাজত্ব!!! সরকারি পরিসংখ্যান বলছে, প্রতিদিন এই দেশে যৌন-লালসার শিকার হন ১০৬ জন (তাও যারা প্রশাসনের দ্বারস্থ হন)। যার মধ্যে ৪০%-ই নাবালিকা। সারা বিশ্বের সামনে প্রতিনিয়ত উঠে আসছে ভারতের বুকে নারী-নির্যাতন, নারী সুরক্ষার ব্যার্থতা। তা সত্বেও “আমাদের – ওদের ” সমীকরণে চাপা দেওয়ার চেষ্টা চলছে উন্নাও-কাঠুয়ার অপরাধীদের। সরকারি মদতে বিজেপি-র নাম বিহীন গোষ্ঠী তুলে ধরছে ধর্ষনের মতো জান্তব-অপরাধে জড়িয়ে থাকা সাম্প্রদায়িক তাস।

সমাজের বুকে প্রতিনিয়ত ছড়িয়ে দেওয়া সাম্প্রদায়িক তীর বিদ্ধ করতে ছাড়ছেনা সেলিব্রিটি থেকে খেলোয়াড় কাউকেই।  ভারতের ইতিহাসে নারী-নির্যাতনের এই কালিমা লিপ্ত পরিবেশে দাঁড়িয়েও হিন্দু অপরাধী- মুসলিম অপরাধী নিয়ে তরজা করার মানসিকতাও যে ধর্ষকদের প্রকাশ্যে সমর্থন করারই নামান্তর সেটাও কি আজ কেন্দ্রীয় সরকারের অন্ধ-গুনমুগ্ধ-অতি ধর্মাবলম্বীদের বোঝাতে হবে?

সরকারি পরিসংখ্যান অনুযায়ী গত ৪ বছরে, যেমন হারে বেড়েছে নারী-নির্যাতনের ঘটনা, তেমন হারেই কমেছে দোষীদের শাস্তির বিধান। রাম রাজত্বে “সীতা-মাইয়া” দের আজ চরম দুর্দিন ।

৪ বছরের “রাম-রাজ্যে” মোদী সরকারের সংখ্যালঘু – দলিত – কৃষক এবং নারী ও শিশু সুরক্ষায় ব্যার্থতা স্বাধীনতা পরবর্তী ইতিহাসে সবথেকে কালিমালিপ্ত যুগ এনে দিয়েছে। এমনকি বিজেপির সহযোগী বিশ্ব-হিন্দু পরিষদের প্রাক্তন মুখপাত্র প্রবীন তোগাড়িয়া সাংবাদিকদের বলেন, “যে দেশে সৈন্যরা সীমান্তে সুরক্ষিত নন, প্রতিদিন কৃষক আত্মহত্যা করছেন, দেশের কন্যারা তাদের ঘরেও সুরক্ষিত নন, সে দেশের প্রধানমন্ত্রী বিদেশ সফরেই ব্যাস্ত। ”

 

 

 

 


শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 1.9K
    Shares

Sponsored~

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*