সোনিয়ার কেন্দ্রকে কার্যত দত্তক নিচ্ছেন অর্থমন্ত্রী!

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 31
    Shares

উত্তরপ্রদেশের রায়বরেলি থেকে নির্বাচিত কংগ্রেসের প্রাক্তন সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী। রায়বরেলি গান্ধী পরিবারের গড় বলেই পরিচিত। সেই রায়বরেলিকে কার্যত দত্তক নিলেন অরুণ জেটলি। ফলে ২০১৯ সালের নির্বাচনের আগে কংগ্রেস–বিজেপির রাজনৈতিক উত্তাপ তুঙ্গে উঠবে বলে মনে করা হচ্ছে। অরুণ জেটলি জানিয়েছেন নিজের সাংসদ তহবিলের ৫ কোটি টাকা খরচ করবেন উত্তরপ্রদেশের রায়বরেলিতে।
এর আগে পাঞ্জাব থেকে লোকসভায় দাঁড়িয়ে হেরে গিয়েছিলেন অরুণ জেটলি। এরপর উত্তরপ্রদেশ থেকে রাজ্যসভায় নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে উত্তরপ্রদেশের রায়বরেলি থেকে গান্ধী পরিবারকে কড়া প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ফেলতে চায় বিজেপির সর্বোচ্চ নেতৃত্ব। সেই কারণেই জেটলিকে বেছে নেওয়া হয়েছে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা।
উত্তরপ্রদেশ বিজেপির ইনচার্জ হিরো বাজপেয়ী জানান, প্রায় একমাস আগে অরুণ জেটলি রায়বরেলিকে বেছে নিয়েছেন সাংসদ তহবিলের টাকা খরচ করার জন্য। রাজ্যসভার সদস্য অরুণ জেটলি। এক বিশেষ পরিবারের হাতে এই কেন্দ্র থাকলেও এখনও তা অনুন্নত বলেই অভিযোগ তাঁর। সেই এলাকা থেকে দাবি উঠে আসায় জেটলি রায়বরেলিকেই বেছে নিয়েছেন।
রায়বরেলির পাশের কেন্দ্রই হল আমেথি। সেখানে সাংসদ হলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। কিছুদিন আগে প্রিয়াঙ্কা গান্ধী জানিয়েছিলেন, সোনিয়া গান্ধীই ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে রায়বরেলি থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। ফলে লোকসভা নির্বাচনের আগে এই আসন এখন সরগরম হয়ে উঠছে বলে মনে করা হচ্ছে।
ইতিমধ্যেই আড়াই কোটি টাকা রায়বরেলির চিফ ডেভেলপমেন্ট অফিসারের কাছে পৌঁছে গিয়েছে। প্রত্যেক বছর প্রত্যেক সাংসদ এমপি ল্যাডে ৫ কোটি টাকা পেয়ে থাকেন। নিজের পছন্দ মতো কাজের জন্য সেই সাংসদ জেলাশাসককে অনুরোধ জানিয়ে থাকেন। রাজ্যসভায় সাংসদ, যে রাজ্য থেকে নির্বাচিত হন সেই রাজ্যের একাধিক জেলায় উন্নয়নমূলক কাজের জন্য সুপারিশ করে থাকেন।নভেম্বর মাসে দিওয়ালির সময় এখানে আসছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 31
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~