বিজেপি শাসিত রাজ্যে জিততে পারে কংগ্রেস, বলছে সমীক্ষা

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 26
    Shares

বিজেপির পরাজয় সুনিশ্চিত করতে কাছাকাছি আসা বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির কাছে দুটি রাজ্যে কংগ্রেসের জয় হতে পারে৷ এমনই সম্ভাবনার কথা বলছে সমীক্ষা৷ পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের দিন ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই সমীক্ষা চলছে। কোন রাজ্যে কোন দলের ফল কী হবে তার চুলচেরা বিশ্লেষণ করছে বিভিন্ন সমীক্ষা সংস্থা। একাধিক সমীক্ষার গড় বলছে ২৩০ আসনের মধ্যপ্রদেশ বিধানসভায় ১২৬টি আসন পেয়ে ক্ষমতা ধরে রাখতে পারে বিজেপি। তবে এই হিসেব অনুযায়ী বেশ কয়েকটি আসন হারাতে পারে পদ্ম শিবির। ২০১৩ সালে ১৬৫ আসনে জিতে ক্ষমতায় এসেছিল বিজেপি। আর গত নির্বাচনে ৫৮টি আসনে জেতা কংগ্রেসের দখলে থাকতে পারে ৯৭টি আসন। সেক্ষেত্রে দুই রাজ্যের কংগ্রেসের জয় বিরোধীদের অক্সিজেন দিতে চলেছে। সি–ভোটার এবং টাইমস নাও–এর জনমত সমীক্ষার গড় বলছে ২০০ আসনের রাজস্থান বিধানসভায় ২০১৩ সালে ২১ আসন পাওয়া কংগ্রেস এবারে ১২৯টি কেন্দ্রে জিততে পারে। নভেম্বর–ডিসেম্বর মাসে হতে চলা এই নির্বাচনে রাজস্থান আর ছত্তিশগড়ে জেতার জায়গায় আছে কংগ্রেস।
ছত্তিশগড়ের নির্বাচন হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের ইঙ্গিত দিচ্ছে। এই রাজ্যে বিজেপি টানা তিনবার জিতেছে। কিন্তু সমীক্ষার গড় বলছে এবার ৯০ সদস্যের বিধানসভায় ৪৭ আসন জিততে পারে কংগ্রেস। তেলঙ্গানায় ১৭টি আসন পেতে পারে কংগ্রেস। মেয়াদ শেষের আগেই বিধানসভা ভেঙ্গে দিয়েছেন তেলঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও। তাঁর দল টিআরএস ১১৭টি আসনের মধ্যে ৮৫টি আসনে জিতে বিধানসভায় নিরঙ্কুশ সংখ্যাগোরিষ্ঠতা পেতে চলেছে। কংগ্রেসের দখলে যেতে পারে ১৮টি আসন। আর বিজেপি পেতে পারে ৫টি আসন। নভেম্বর–ডিসেম্বর মাসে হতে চলা এই নির্বাচনে রাজস্থান আর ছত্তিশগড়ে জেতার জায়গায় রয়েছে কংগ্রেস। তবে ছত্তিশগড়ে জয় এবং পরাজয়ের মধ্যে ব্যবধান খুবই সামান্য হতে চলেছে বলে ইঙ্গিত। অন্যদিকে মধ্যপ্রদেশ ধরে রাখতে পারে বিজেপি। পরপর তিনবার মধ্যপ্রদেশে সরকার চালিয়ে আসা বিজেপির কাছে চতুর্থবার জয়ের ফেরার সুযোগ রয়েছে। তবে সহজে নয়। তবে এই রাজ্যগুলির ফলাফলের ওপর লোকসভা নির্বাচনের প্রভাব ফেলবে। বিজেপি পরিচালিত এনডিএ সরকার আবারও দিল্লি দখল করতে পারবে কি না তার স্পষ্ট ইঙ্গিত মিলতে চলেছে।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 26
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~