বিয়ের তিন মাসের মধ্যে আত্মঘাতী দম্পতি !

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 24
    Shares

মাত্র মাস তিনেক আগেই রেহানা নামে বছর উনিশের যুবতীর সঙ্গে বিয়ে হয় সইফুদ্দিনের। পাড়ায় তাদের কারওরই কোনও বদনাম ছিল না। কিন্তু তাঁদের পরিবারে যে অশান্তি চলছিল, তাও জানত পড়শিরা। টাকা নিয়েই চলত নিত্যদিনের ঝগড়া। তবে বুধবার সকাল থেকেই সাড়া মিলছিল না সইফুদ্দিন ও রেহানার। পরিবারের সদস্যরা ডাকাডাকি করার পরও দরজা খোলেনি তারা। এরপর প্রতিবেশিদের খবর দেওয়া হয়। ভাঙা হয় দরজা। তখনই দেখা যায় ঘরের মধ্যে সিলিং ফ্যান থেকে ঝুলছে দু’‌জনের দেহ। ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বনগাঁর বাগদা থানার আষারু পঞ্চায়েতের জিয়ালা গ্রামে। ইতিমধ্যে দেহদু’‌টিকে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে পুলিস।
এরপরই খবর দেওয়া হয় বাগদা থানায়। পুলিশ জানায় মাত্র তিন মাস আগে বিয়ে হয়েছিল এই দম্পতির৷ কিন্তু বিয়ের পর থেকে মাঝেমধ্যেই হত অশান্তি। আর এই কারণেই সম্ভবত আত্মঘাতী হয়েছেন সদ্য বিবাহিত দম্পতি। তবে এই ঘটনার পর রেহানার শ্বশুরবাড়িকেই দুষছে বাপের বাড়ির লোকজন। তাদের বক্তব্য, বিয়ের পর থেকেই বাপের বাড়ি থেকে টাকা আনার জন্য চাপ দেওয়া হত রেহানাকে। সেই নিয়ে সংসারে চলছিল তুমুল অশান্তি। সেই চাপ সহ্য করতে না পেরে আত্মহত্যাই করেছে রেহানা।
মৃত যুবক সইফুদ্দিন পেশায় ট্রাক চালক। ঘটনাস্থলে আসে পুলিশ। এরপর মৃতদেহ দু’‌টিকে উদ্ধার করে পাঠানো হয় ময়নাতদন্তের জন্য। অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু হলেও ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিস। প্রাথমিক তদন্তে অনুমান, পারিবারিক অশান্তির কারণেই এই ঘটনা ঘটেছে। তবে এটি খুন না আত্মহত্যা, সে বিষয়ে এখনও পুলিশের তরফে কিছু জানানো হয়নি।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 24
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~