খবর ২৪ ঘন্টা

বিস্ময়ের শহর দুবাই ~ জেনে নিন এই স্বপ্ননগরীর কয়েকটি বিস্ময়কর তথ্য…

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

বর্তমান বিশ্বের এক বিস্ময়ে পরিণত হয়েছে দুবাই। এখানে রয়েছে এমন আরো কিছু বিষয় যা আপনাকে সত্যিকার অর্থেই তাক লাগিয়ে দেবে।  জেনে নিন এমনই কিছু বিষয় যা দুবাইকে পৃথিবীর যে কোনো শহর থেকে আলাদা করেছে ।
  •  দুবাইয়ে আছে ইনডোর স্কি রিসোর্ট। বরফে ঢাকা ২৭৮ ফুট পাহাড়ি পথ তৈরি করেছে স্কি দুবাই। মল অব আমিরাতের মধ্যে অবস্থিত এই স্কি রিসোর্ট। অর্থাৎ, বাইরে যে ঋতুই থাক না কেন, এখানে সব সময় বরফ পাওয়া যাবে। বাইরে তীব্র তাপদাহ থেকে পালিয়ে এখানে প্রবেশ করলেই বরফে স্কিয়িং করতে পারবেন।

  • দুবাইয়ের তাপমাত্রা অনেক। এই শহরে কি ‘আইস লাউঞ্জ’ এর কথা চিন্তা করা যায়? মাইনাস ৬ ডিগ্রি ফারেনহাইট তাপমাত্রায় বসে মজা করে আইসক্রিম বা পানীয় খেতে পারবেন। তবে এক বিশেষ পোশাক পরেই ঢুকতে হবে  আপনাকে।

  • দ্য পাম আইল্যান্ডস আরো কোথায় বা আছে? সমুদ্রের উপর বালি দিয়ে মানুষের তৈরি একমাত্র দ্বীপ। এখানে রয়েছে সারি সারি হোটেল আর রিসোর্ট। এদের এমনভাবে বসানো হয়েছে যা ওপর থেকে দেখলে একটি পাম গাছের মতো দেখতে লাগে।

  • সবচেয়ে দামি আইসক্রিম কিন্তু দুবাইয়েই পাওয়া যায়। এই আইসক্রিমের স্বাদ নিতে গুনতে হবে ৮১৬ ডলার। মাদাগাস্কারের ভ্যানিলা বিন দিয়ে তৈরি এই আইসক্রিমে রয়েছে ইরানের জাফরান, ইতালির বিরল ব্ল্যাক ট্রাফল আর ভক্ষণযোগ্য ২৩ ক্যারেট সোনার পাতলা প্রলেপ।

  • মুখের যত্নে সোনার ব্যবহার হয় দুবাইয়ে, আর কোথাও নয়। স্থানীয় বিউটি এক্সপার্ট লি এর মতে, স্বর্ণে রয়েছে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট। এটা ত্বকে সতেজ রাখে। সূর্যের অতিবেগুনী রশ্মির ক্ষতি হ্রাস করে। ত্বকে আনে সোনার মতো চমক। বলা হয়, মিশরের রানি ক্লিওপেট্রা সোনার প্রলেপ দিয়ে রূপচর্চা করতেন।

  • স্কাই ডাইভিং সম্পর্কে অনেকেরই ধারণা রয়েছে। কিন্তু সেটাও যে ইনডোরে হতে পারে তা সম্ভব করেছে ‘আইফ্লাই দুবাই’। আবদ্ধ কোনো স্থানে ওড়ার সাধ এখানেই মিটতে পারে। এখানে টানেল থেকে যে হাওয়া বেরিয়ে আসে তার ওপর ভর করে মাটি থেকে অনায়াসে ৪ মিটার উঁচুতে ভেসে থাকা যায়।

  • পৃথিবীর বৃহত্তম শপিং মলের অবস্থান দুবাইয়ে। দুবাই মল এতটাই বিশাল যে এখানে ৩৩ হাজার জলজ প্রাণী নিয়ে এক অ্যাকুরিয়াম আর ৭৬ হাজার বর্গ ফুটের বিনোদন পার্ক অনায়াসেই ঢুকে গেছে। এখানে আছে পৃথিবীর সর্ববৃহৎ ক্যান্ডি শপ যার আয়তন ১০ হাজার বর্গ ফুট।

  •   হাঙরের সঙ্গে সাঁতার কাটতে হলে দুবাইয়ে যেতে হবে। দুবাই মলে ১ কোটি লিটার আয়তনের অ্যাকুরিয়ামে সাঁতরে বেড়ায় হাঙর। জীবনে প্রথমবার ডাইভিং করলেও এখানে নামতে কোনো সমস্যা নেই।

  •  টেনিস তারকা রজার ফে্ডেরার এবং আন্দ্রে আগাসি যখন দুবাইয়ে বেড়াতে গিয়েছিলেন, তখন তাদের জন্য বুর্জ আল আরব হেলিপ্যাডকে টেনিক কোর্ট-এ রূপান্তরিত করা হয়। এই টেনিস কোর্ট মাটি থেকে ১০৫৩ ফুট ওপরে।

  •  ফর্মুলা ওয়ান কার চালানোর স্বপ্ন  যদি থাকে সেই স্বপ্ন পূরণ করতে আপনাকে দুবাই যেতে হবে। ফর্মুলা ওয়ান কার রেসাররা উপস্থিত থেকে আপনাকে সহায়তা করবেন। ড্রিম রেসিং এর সে ব্যবস্থাই রয়েছে দুবাইয়ে।

  • এই বছরের শুরুতে দুবাইতে উদ্বোধন করা হলো ” দুবাই ফ্রেম”। জাবিল পার্ক এলাকায় গোল্ড প্লেটেড ভবনটি যে কারো দৃষ্টি আকর্ষণ করবে। ৬৮ মিলিয়ন ডলার ব্যয়ে নির্মিত অদ্ভুত এই স্থাপত্যের ভেতরে রয়েছে দুবাইয়ের নতুন আর পুরনো শহরের মেলবন্ধন।
Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...