খবর ২৪ ঘন্টা

বিনোদনে শুক্রবার ~ এক ঝলকে ” বলি – হলি – টলি”…

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

শুক্রবার মানে রঙিন পর্দায় পা, কলাকুশলী স্বীকৃতি আর দর্শকের প্রেম – সাথে বক্স অফিস জুড়ে মুনাফায় কে কতো টা এগিয়ে তার হিসাবের খেরোর খাতা। আসুন তবে প্রতীক্ষার অবসান করি, আর জেনে নেওয়া যাক বক্স অফিসের খুঁটিনাটি।কলা কুশলীর এমন সৃজন সেলুলয়েড সংসার অন্ত:স্থল বেয়ে যেন সপ্তাহের বারোমাস্যা তৈরি করেছে।

গতবারের পরীর হাত বেয়ে উত্তেজনার পর, এবারে বলব “হেট স্টোরি ৪”

উর্বশী রাউটেলার আকর্ষণীয় শরীরী সাড়া জাগানো আবেদনে বুঁদ দর্শক মণ্ডলী। সিনেমাটি থ্রিলার, ২৬ শে জানুয়ারি সাড়া জাগানো ট্রেলারের পর এই ৯ ই মার্চের অপেক্ষায় দর্শকবৃন্দ। ২০১২ সালে এই হেট স্টোরি ” প্রথম বার মুক্তি পায়। কিন্তু দর্শকের মন কেড়ে আবার নতুন ভাবে বক্স অফিস সাজে ২০১৪ সালে। আর তাল রেখে ২০১৫ সালে তার তৃতীয় পার্ট বের হয়। প্রথম পার্টে ছিলেন লাস্যময়ী পাওলী দাম, আর সাথে সুরভিন চাওলা, জেরিন খান এবং ডেইজি শাহ।

আর বিশাল পাণ্ডের ” হেট স্টোরি চার ” এ উর্বশীর পাশাপাশি আছেন ওয়াহি, ভিভান ভাথেনা, গুলশান গ্রোভার প্রমুখ ব্যক্তিত্ব। এই সিনেমায় ভ্যালেন্টাইন ডে ” এর মুহুর্তে একটি গান রিলিজ করে, গানটি ” তুম মেরে হে “। এই গান দর্শককে মাতিয়ে তোলে আর তার সাথে প্রেম, দেহ মাদকতা, সেক্সের চরম পর্যায় এবং তা থেকে আঘাত পেয়ে অর্থাৎ বিশ্বাসের ভাঙ্গনে চরম বিদ্বেষ। তবে হ্যাঁ,যৌবনের ক্ষুন্নিবৃত্তি, যৌনতা, ক্লেশ , এগুলো না থাকলে দর্শক নেয় না। এখানে বলা চলে সাহিত্যের ক্ষেত্রেও এই গুলি দেওয়া হয়। কারণ বক্স অফিসে পৌঁছাতে দৈহিক আবেদন সেরা ফসল। তবে সেক্ষেত্রে উর্বিশীর সাথে সমান ভাবে কাঁপিয়েছে ইহানা ধিল্লোঁ।

এই সিনেমার গানগুলি হলো :

আসিক বানায়ে আপ নে
 বুঁন্দ বুঁন্দ
তুম মেরে হো
নাম হে মেরা
বদনামিয়া
মহবত নেশা হে ….

গানে মন মাতিয়ে যে ব্যক্তিত্বদের আমরা পাই তাঁরা হলেন: নেহা কাকার, হিমেশ রেশমিয়া, জুবিন, অমৃতা সিং, টনি কাকার ও সুকৃতি কাকার ও নীতি মোহন

গল্প বলছে যে,

লাতিনের সবচেয়ে প্রিয় বিজ্ঞাপন সংস্থা তাতার মধ্যে একটি তারকা মডেল হয়ে উঠতে চায়। সে এমন মেয়ে যে, উচ্চাভিলাষী, সুন্দরী এবং নিঃসন্দেহে আত্মসচেতনে নারী । রাজীবার, যে মহিলাটি তার প্রতিভা স্পট করতে চায় এবং তার প্রকল্পটি পেতে চায় সেটি পেতে কোনওভাবেই সে থামতে জানে না। অন্যদিকে আরিয়ান, যিনি প্রথম দর্শনে তশা দ্বারা আঘাত পেয়েছেন, সে তার নিজের ভাই রাজীবের বাইরেও বন্ড এবং সীমানা অতিক্রম করবেন, যাতে তিনি ঠান্ডা রক্তের জন্য কামনা করতে পারেন। কৌতুকপূর্ণ, পাগলপ্রায় তিক্ত হৃদয়, বাষ্পীয় টুইস্ট এবং আবেগ দ্বারা চালিত, চক্রান্ত মিডিয়া ক্র্যাশ মধ্যে একটি ক্রস ক্রেনসে আসে।এই ভাবে গল্পের শুরু থেকে এগিয়ে চলা আর বাকিটা হলে বসেই না হয় শেষ হোক।

এবার আসি, ” থ্রি স্টোরেস” এর গল্পে :

মূল থ্রি স্টোরেস একটি আকর্ষণীয় প্রেক্ষাপটে সিনেমার দর্শকদের মধ্যে উদ্দীপ্ত করবে বলে আশা করা যায়। ছবিটিতে রয়েছে টুইস্ট এবং সক্রিয় পূর্ণ চলচ্চিত্র হওয়ার প্রতিশ্রুতি। মুম্বাইয়ের একটি চাউল ভিত্তিক তিনটি কাজকর্মের উপর ভিত্তি করে অন্ধকারের গোপনীয়তা এবং অতীতের অনুশোচনা প্রকাশ করা হয় এবং এটি স্পষ্ট হয়ে যায় যে এই ছোট্ট সমাজের জীবনটি বেশিরভাগই আলো আঁধার ক্ষেত্র ধরে অবস্থান করে ।

থ্রি স্টোরেস‘ তারকা রিচ চধ, শারমিন জোশি, পলকিত সম্রাট, রেণুকা শাহেন, মাসুমেহ মখীজা এবং আয়েশা আহমেদ এবং অঙ্কিত রাঠি আত্মপ্রকাশের প্রতীক। ছবিটির পরিচালক অর্জুন মুখার্জি এবং ব্যক্তিত্বের আসরে ফারহান আখতার, রিতেশ সিদ্ধওয়ানি ও প্রিয়া শ্রীধরন।

এই গল্পের গান তিনটি!
“বাস তু হে”, লিরিক্সে পুনিত কৃষ্ণা,
“রাসলীলা “ লিরিক্স আলোকিক রাহি,আমজাদ নাদেম
” আজাদিয়া “আর জারুরি বেয়াকুফি ”
কন্ঠে আমরা পাই, অরিজিৎ সিং, সুমেধা কর্মহি, জোনিতা গান্ধী, মোহিত চৌহান, বিয়ানকা প্রমুখ।

 

 

 এবার আসি ” দিল জুঙ্গলী “সিনেমা।

এটি একটি আসন্ন ইন্ডিয়ান রোমান্টিক কৌতুক চলচ্চিত্র যা আলেয়া সেনের পরিচালিত ছবি। এই সিনেমায় অভিনয়ে আছেন, ট্যাপসি পন্নু, সাকিব সলিম, অভিহালশ থাপলিয়াল, নিধী সিংহ, আয়েশা কাদুসকার এবং শ্রদ্ধা শ্রীভাসাভকে।

ছবিতে গান আলাদা মোড় নেয়। আর সেই গানের তালিকায় আছে,

নাচলে না “
গজব কা হেয় দিন “
বিট জঙ্গুলী
বান্দেয়া
দিল জানে না “
কন্ঠ ব্যক্তিত্বে দর্শক অপেক্ষা করছে যে গলা চিনতে নিতে, সেই ব্যক্তিদের একটু বলে রাখি,মোহিত চৌহান, আরমান মালিক, জুবিন, অরিজিৎ সিং, প্রকৃতি কাকার, নীতি মোহন প্রমুখ।

আপাতত এইখানে জানার পরিধি থাক,না হলে হলে দেখার ইচ্ছাটাই চলে যাবে।

এবার তবে ৯ ই মার্চের ইংরাজি সিনেমা নিয়ে আসা যাক।

প্রথমেই আসি, ” Thoroughbreds “


কানেকটিকাট উপনিবেশের দুই উচ্চকণ্ঠে কিশোরী মেয়েরা তাদের অসম্ভাব্য বন্ধুত্বের পুনরাবৃত্তি ঘটায়। একসঙ্গে, তারা তাদের উভয় সমস্যার সমাধান একটি পরিকল্পনা গ্রহণ করে। আর সেই পরিকল্পনায় সমস্যা সমাধানের উদ্দেশ্য তারা যেকোন কিছু দিতে প্রস্তুত। এই ভাবেই গল্পের ক্রম অগ্রগতি চোখে পড়ে, বাকিটা সময়ের অপেক্ষা।
গল্পের পরিচালনার আত্মপ্রকাশে কোরি ফিনলে । এখানে অভিনয়ে আছেন, অলিভিয়া কুক, আনার টেলর-জয়, অ্যান্টন ইয়েলচিন (তার চূড়ান্ত ভূমিকা), পল স্পার্কস এবং ফ্রাঙ্কি সুইফ্ট।

এবার আসি “The leisure seeker “

গল্পের উপজীব্যতা বলে –
পরিবারের সাথে ভ্রমণ করা অবসরপ্রাপ্ত ভিকার, বিনোদনমূলক যানবাহন, জন এবং এলা স্পেন্সারের কথা। এইটি মাইকেল জোদারিয়ানের ভিত্তিতে লেখা। এই চলচ্চিত্রের পরিচালক হলেন, পোলো ভিরজি।

এরপর বলব ” The forgiven “


বর্ণাঢ্য দক্ষিণ আফ্রিকার জীবনকালে, নিষ্ঠুর খুনী পিট ব্লামফিল্ড আর্চবিশপ ডেসমন্ড টুটু-এর সাথে মিটিংয়ের মাধ্যমে মুক্তিপণ চায়, আর সেখানেই সামাজিক, রাজনৈতিক বিষয় ঘিরেই গল্পের ক্রমপরিণয়।

 “Girls vs Gangstars

তিনজন বন্ধু একটি সৈকতে নগ্ন অবস্থায় জেগে ওঠে। তারা শীঘ্রই স্থানীয় দস্যুদের লক্ষ্যবস্তু হয়ে দাঁড়ায়, কারণ তারা তাদের মাতাল ধাপগুলো পুনরায় প্রত্যাবর্তন করার এবং হোমে ফিরে যাওয়ার চেষ্টা করে।এই ভাবেই সৈকত বেয়ে জীবনের কথকথা এগোতে থাকে।

 এরপর আসি  The stranger : Pray at night 

মাইক এবং তার স্ত্রী সিন্ডি তাদের ছেলে এবং মেয়েকে একটি রাস্তায় ভ্রমণে নিয়ে যায় যা তাদের সবচেয়ে খারাপ দুঃস্বপ্ন হয়ে যায়। পরিবারের সদস্যরা শীঘ্রই বেঁচে থাকার জন্য একটি বেপরোয়া যুদ্ধে নিজেদের খুঁজে পায়।যখন তারা একটি নির্জন মোবাইল হোম পার্ক রহস্যময়ভাবে মরুভূমিতে পৌঁছে আসে – তখন থেকেই মনোবৈজ্ঞানিক পরিবর্তন নজরে আসে আর ছবির মধ্যে ধাপ খুঁজে পাওয়া যায়।

এর পর আসা যাক ” Gringo “

হিলড সোয়েঙ্কা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ব্যবসায়ী। হ্যারল্ড সোয়িংকাকে মেক্সিকো ভ্রমণের পর ব্যাকস্টাবিং সহকর্মীদের, স্থানীয় ড্রাগ লর্ডস এবং একটি কালো ওপস ভাড়াটেদের জন্য দোষারোপ করেন। আইন শৃঙ্খলায় নাগরিক থেকে অপরাধী চেয়েছিলেন লাইনটি অতিক্রম করে হেরল্ড এমন একটি ক্রমবর্ধমান বিপদজনক পরিস্থিতি টিকিয়ে রাখতে লড়াই করুক যা প্রশ্ন উত্থাপন করে – তার গভীরতা কত বা কিভাবে দুটি ধাপ এগিয়ে চলেছে?এইভাবেই জীবনের চলমানতায় ক্রমবর্ধমানের প্রতিনিধি রূপে চলন। বাকি কথা আইনক্সে শেষ হোক তবে উচ্চ সাফল্যে, তবেই সার্থকতা।

এর পর বলব ” The Hurricane Heist

নিউ হোপ, আলা, এর গ্রামীণ শহরটি, তার পথের দিকে অগ্রসরমান সুপার সাইক্লোন সমস্যা রয়েছে: উপসাগরীয় উপকূলবর্তী অঞ্চলে একটি হারিকেন  এবং স্থানীয় ট্রেজারি সুবিধা লুটের জন্য ৩০টি সুশৃঙ্খল বাহিনীর একটি দল রয়েছে।এই ভাবে বর্ণনার মাধ্যমে গল্পের শুরু।তবে সমস্যা কেন্দ্র করেই গল্পের চলন – কতটা দর্শক নেবে এটাই দেখার।

 অবশেষে আসি “The wrinkle in time “

মেগ মরি এবং তার ছোট ভাই চার্লস ওয়ালেস তাদের বিজ্ঞানী পিতা জনাব মরিকে ছেড়ে পাঁচ বছর আছেন। কারণ তিনি একটি নতুন গ্রহ আবিষ্কার করেছেন এবং সেখানে ভ্রমণের জন্য একটি টেসার্যাক্ট হিসাবে পরিচিত ধারণাটি ব্যবহার করেছেন। মেগ এর সহপাঠী কেলভিন ও’কিফ তাদের সহযোগিতায় দান করেন এবং তিন রহস্যময় যাত্রী মিসেস উইটস, মিসেস কে এবং মিসেস নামে অভিহিত করেন বিপজ্জনক সফরে নামেন। এই ভাবে গল্প তার প্লটের মধ্য দিয়ে অগ্রসর হয়।

এবার আসব বাংলা সিনেমার পাল্লা ভারীতে পোড়েন দিতে, আসুন তবে দেখে নেওয়া যাক:

অপরাজিত আড্য ও পরাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাসির রসিকতার পটভূমিতে দর্শকের মন কাড়া “ ক খ গ ঘ “।
আর তার সাথে ” জজো ” অনির্বাণ ভট্টাচার্য, সায়নী ঘোষ ও দর্শন। সব মিলিয়ে ৯ ই মার্চ, ২০১৮ এক চাঁদের হাট।

হলি, বলি, টলি মিলে বক্স অফিস তাকিয়ে দর্শকের দিকে। আজ প্রত্যাশা তুঙ্গ করেই সৃজন। আসুক সার্থকতা এই কামনাতে আমরা।

আসুন দেখে নেওয়া যাক কোন হলে কোন কোন সিনেমা চলছে এবং তাঁর শো-টাইম…

সৌজন্য: http://www.bollywoodmdb.com

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...