খবর ২৪ ঘন্টা

অস্কার ২০১৮ ~ মনোনয়ন থেকে সেরার শিরোপা, জেনে নিন এক নজরে…

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

ওয়েব ডেস্ক, নিজস্ব প্রতিনিধিঃ অস্কারের ৯০ তম আসর ২০১৮, নাম বলতেই উঠে আসছে যুক্তরাষ্ট্রের লস আঞ্জেলসের ডলবি থিয়েটার,৪ ঠা মার্চ বিকাল ৫ টা। এইদিন বিশ্বের চলচিত্র জগতের সর্বোচ্চ সম্মান অস্কারপ্রাপ্তির নেশায় জল্পনা কল্পনা ছাড়িয়ে সকলেই প্রতীক্ষায় ছিলেন,তার সাথে ছিল দর্শকদের উৎকন্ঠা । আর আয়োজকের ভূমিকায় অবশ্যই সেই মার্কিন কৌতুক অভিনেতা জিমি কিমেল। ২৪ টি ক্যাটাগরিতে এবারের সম্মান প্রাপ্তির বিভাজন। লাল গালিচায় ব্যক্তিদের ভিড়, তারমধ্যেই চাপা উত্তেজনা। আর মখমলে তারকা রাজ্যে স্বাগত সৃজন প্রতিভায় “অস্কার২০১৮ “।আসুন তবে দেখে নেওয়া যাক কারা কারা এমন প্রাপ্তিযোগে নিজেদের সাজিয়ে তুললেন, আর কি বা সম্মানের তালিকায় উঠে এলো।

সেরা পরিচালক…

সেরা পরিচালক হিসাবে প্রথমের উঠে এলেন গুইমারলো ডেল তেরো, ছবির নাম – “দ্য শেব অব ওয়াটার “। এটা ভুললে চলবে না যে, সেরা ছবির মনোনয়ন পেয়েছিল থ্রি বিলবোর্ডস আউটসাইড এবিং, মিসৌরি’, ‘ডানকার্ক’, ‘কল মি বাই ইউর নেম’, ‘ডার্কেস্ট আওয়ার’, ‘গেট আউট’, ‘লেডি বার্ড’, ‘ফ্যান্টম থ্রেড’ ও ‘দ্য পোস্ট’। এর মধ্যে ১৩ ট মনোনয়ন নিয়ে সর্বোচ্চে এগিয়ে গেলো “দ্য শেব অব
ওয়াটার”। তবে সেরা পরিচালকের মনোনয়ন পাতায় পাতায় পাতায় নাম গুলো হলো ডানকির্কের পরিচালক ক্রিস্টোফার নোলান, গেট আউটের জন্য জর্ডান পিলে, লেডি বার্ডের জন্য গ্রেটা গারউইং, এবং ফ্যান্টম থ্রেডের জন্য পল থমাস অ্যান্ডারসন।সেখানে তেরো যথেষ্ট প্রশংসার দাবি রাখেন।

শ্রেষ্ট অভিনেতা…

এবার আসি শ্রেষ্ট অভিনেতার পালায়। আর সেখানে বলতে হয় ” ডার্কেস্ট আওয়ার “সিনেমা। এমনিতেই অন্ধকারের মধ্যেই গল্পের জাল বোনা, এটা বেশ সাধারণ। কিন্তু নেভিল চেম্বারলেনের পর ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী হিসাবে চার্চিলের অগ্রগতি, শীর্ষ স্থান লাভ এবং ডানক্রিক থেকে ইংরাজ সৈনিকদের বের করে অপারেশন ডায়ানামোর পরিকল্পনা, আর একটার পর একটা জাল ছিঁড়ে চলন এটাই গল্পের মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছে।আর গল্পের মোড় ফেরাতে গ্যারি ওল্ডম্যান দৈনন্দিন জীবনের কথা, খুঁটিনাটি বিবাদ, দ্বন্দ্ব পরিষ্কার ভাবে তুলে ধরেছেন, আর তার সাথে সংযোজন পার্লামেন্টের বক্তৃতা। এরমধ্যে তাঁর প্রাপ্তির ঝুলিতে আছে গোল্ডেন গ্লোব তাই গ্যারি এক্যাডেমি পুরুষ্কার পেলেও বলাটাই বাতুলতা হয়ে দাঁড়ায়। তবে শেষ পর্যন্ত লর্ড ডিলেনের মুখে কাব্যিক ভাষা কিছুটা বিশ্লেষণের জায়গা গড়ে তুললেও, তিনিই সেরা। তবে আরো ছিলেন প্রতিযোগিতা পর্বে “তিমোথে শালামেত”( কল মি বাই ইওর নেম) ,
ড্যানিয়েল ডে-লুই” (ফ্যানটম থ্রেড) , ড্যানিয়েল কালুয়া ( গেট আউট)। সকলের মধ্যে গ্যারি ওল্ডম্যান জিতে নিলেন শ্রেষ্ঠত্বের স্থান, এটাই প্রাপ্তিযোগ।

শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী…

এবার আসা যাক, শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী নির্নয়। আর এখানে বলতে গেলেই মনে পড়বে, ‘থ্রি বিলবোর্ডস আউটসাইড ইবিং, মিসৌরি’-এর ফ্রান্সিস ম্যাকডোরমান্ড।এখানে বর্তমান সমাজে ধর্ষণের পর আত্মীয় পরিজন কাঁদে আর সেটাকে চাপা দেওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু এখানে উইলবি যে কিনা পুলিশের লোক আর যাকে কমিউনিটির সকলে ভালোবাসেন, তাঁর বিরুদ্ধে সোচ্চার প্রতিবাদ। এই প্রতিবাদের দ্বারা সকলকে ছাড়িয়ে দিয়ে অভিনেত্রী জিতে নিলেল শ্রেষ্টত্বের দাবি। “সেভেন সাইকোপ্যাথোস” ২০১২ সালের পর এটি সত্যিই অন্যতম এক আঙ্গিকের ছবি। সমাজ, অভিব্যক্তি, যৌননির্যাতন সকল বৈশিষ্ট্য নিয়েই অসামান্যের দাবিদার।

বিদেশী ভাষা চলচ্চিত্র অস্কার…

ড্যানিয়েলা ওয়েগা : ট্রান্সজেন্ডার তারকা চলচ্চিত্র শিল্পকে আলোকিত করে।

একজন কল্পিত মহিলা মারিনা অনুসরণ করে, ড্যানিয়েল ভেগা নামে, একটি ট্রান্সজেন্ডার নারী- যারা অরল্যাণ্ডো সঙ্গে একটি সম্পর্কের হয়। তিনি ৩০ বছরের সিনিয়র একজন মানুষ। যখন অরল্যান্ডো এন্যুরিয়াসমের মৃত্যু ঘটায়, তখন মারিনা তার পরিবারের জন্য সন্দেহের একটি বস্তু হয়ে দাঁড়ায়, যারা তাকে দেখে এবং তার সাথে একটি কুকুর হিসাবে আচরণ করে, এবং বাহ্যিক বাহিনীকে আরও কঠিন করে তোলে। সমালোচকেরা প্রশংসা দিয়ে চলচ্চিত্র দেখিয়েছেন, বিশেষ করে ভ্যাগার অভিনয়ের জন্য, একটি ট্রান্সজেন্ডার নারী যিনি একটি কল্পনাপ্রসূত নারী,এক বিশিষ্ট স্থান লাভ করেছে।

অস্কারের সেরা কণ্ঠস্বর…

এবার অস্কারর তালিকায় স্পেক্টর এনভায়রার – ডিজনি  পিক্সারের “কোকো,” উচ্চাভিলাষী সঙ্গীতজ্ঞ মিগুয়েল (অ্যান্থনি গঞ্জালেজের কণ্ঠস্বর) ।
চার বছর আগে তিনি ফ্রোজেন গানে “লেট ইট গ” এর জন্য এন্ডারসন-লোপেজের সাথে প্রথম অস্কার জিতেছেন, তিনি অ্যানিমেটেড সিরিজ ওয়ান্ডার প্যাট্টের উপর তাঁর কাজের জন্য এমি অ্যাওয়ার্ডস মালিক। তিনি বেস্ট মিউজিকাল থিয়েটার অ্যালবাম (বুক অফ মরমোন), সেরা সংকলন সাউন্ডট্র্যাক ফর ভিজ্যুয়াল মিডিয়া (ফ্রোজেন), এবং বেস্ট গান লিখিত ফর ভিউলেম মিডিয়ার (“লেট ইট গ”) জন্য তিনটি গ্র্যামিসকেও সরিয়েছেন এবং তিনি প্রত্যেকটি মনোনীত হয়েছেন। তিনি অ্যাভেন্যু কি এবং বেস্ট বুক এবং বেস্ট অরিজিনাল ফর দ্য বুক অব মোর্মনের জন্য সেরা মূল স্কোর হিসাবে সম্মানিত। তাই এখানে প্রাপ্য সম্মান যে আসবেই সেখানে বলাই যায়। তবে ১২ জন ব্যক্তির তালিকায় রয়েছেন ইজিটস, মেল ব্রুকস, রিতা মোরেনো এবং উইপোজি ​​গোল্ডবার্গ প্রমূখ।

 

সিনেমায় পার্শ্ববর্তী চরিত্রে অভিনেত্রী…

অ্যালিসন জ্যানি,যিনি তার মৃত ভাইয়ের জন্য এই অস্কার উৎসর্গ করেছেন। জ্যানির ছবির লেখক স্টিভেন রজার্স, পরিচালক ক্র্যাগ গিলসপি, এবং” একজন অভিনেতা,যাকে জ্যানি নিজে স্বীকার করেছেন এবং ক্রু, যাদের জ্যানি তাঁর এই উঁচুতে উঠার জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেছেন।
রবিবারের রাতের ফলাফলটিতে জ্যানে’র পুরষ্কার সেশনের সমাপ্তি ঘটে।গোল্ডেন গ্লোবস, এসএজি অ্যাওয়ার্ডস, সমালোচকদের চয়েস অ্যাওয়ার্ডস, চলচ্চিত্র স্বাধীনতা পুরস্কার এবং বাফটা অ্যাওয়ার্ডস-এ শ্রেষ্ঠ সমর্থনকারী অভিনেত্রীকে নির্বার্চিত করেন।

সেরা পার্শ্ববর্তী পুরুষ চরিত্র…

স্যাম রকওয়েল, একজন আমেরিকান অভিনেতা। লন কুকুর, কনফেশনস অফ এ ডেঙ্গারস মাইন্ড , ম্যাচস্টিক ম্যান , দ্য হিচিকার্স গাইড টু দ্য গ্যালাক্সি, চাঁদ, জি-ফোর্স , এবং সাত সাইকোপাথ প্রধান চরিত্র হিসাবে পরিচিত । এই অভিনেতা, তিনটি বিলবোর্ড আউট বাই ইব্বিং, মিসৌরি, নাটকটির ভূমিকায় অভিনয় করার জন্য সেরা সহকারী অভিনেতার জন্য মনোনীত হয়েছেন, ইতিমধ্যেই একটি গোল্ডেন গ্লোব এবং একটি স্যাজি পুরস্কার গৃহীত হয়েছে এই পুরস্কারের ঋতু (অন্যান্য অভিনয় সহ) জন্য মানসিকভাবে বিরক্ত পুলিশ অফিসার জেসন ডিক্সন এবং ১০ বছর তার সঙ্গী, লেসলি বিবিব, পুরো সময় তার পাশে আনন্দিত হয়েছে। আর এইভাবেই পার্শ্ববর্তী পুরুষ অভিনেতা হিসাবে রকওয়েল যথার্থ ভাবে সাফল্যমণ্ডিত হয়েছেন।

ডকুমেন্টারি চলচ্চিত্র…

স্বর্গ একটি ট্রাফিক জ্যাম ৪০৫” , আমেরিকান স্ট্রাইফেল দ্বারা পরিচালিত আমেরিকান ডকুমেন্টারী চলচ্চিত্র। এর বিষয়বস্তু হল শিল্পী মিন্ডি আলপার। চলচ্চিত্রটি আইডিয়া পুরস্কার থেকে সেরা শর্টের জন্য মনোনয়ন লাভ করে, এবং ফুল ফ্রেম ফিল্ম ফেস্টিভাল এবং অস্টিন ফিল্ম ফেস্টিভালে উভয় দর্শক ও জুরি অ্যাওয়ার্ড জিতেছে। এটি ৯০ তম অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডস এ শ্রেষ্ঠ ডকুমেন্টারি সংক্ষিপ্ত বিষয় জন্য একাডেমি পুরস্কার জিতেছে।এবার তাই শ্রেষ্ঠ সম্মানের খাতায় অস্কারে ভূষিত চলচ্চিত্র।

ডকুমেন্টারি চলচ্চিত্রে বৈশিষ্ট্য অস্কার…

যখন চলচ্চিত্র নির্মাতা ব্রায়ান ফগেল খেলাধুলায় ডোপিং সম্পর্কে সত্য প্রকাশ করতে গিয়েছিলেন, তখন রাশিয়ান বিজ্ঞানীদের সাথে একটি  সাক্ষাৎকারটি একটি ব্যক্তিগত পরীক্ষা থেকে ভূরাজনৈতিক থ্রিলারের মধ্যে তার গল্পকে রূপান্তরিত করে। গর্ত প্রস্রাব, অসম্পূর্ণ মৃত্যু এবং অলিম্পিক সোনা ক্রীড়া ইতিহাসে বৃহত্তম স্ক্যান্ডাল এক্সপোজার সব  এর অন্তর্ভুক্ত।

অভিযোজিত পর্দায় অস্কার…

কল মি বাই ইয়োর নেম – 

১৯৮৩ সালের এক গ্রীষ্মকালে, ১৭ বছর বয়সী এলিও পের্লমান, ইতালির ১৭ তম শতাব্দীর ভিলাতে তার পরিবারের সাথে দিন কাটাচ্ছে।অলিভার, একটি সুদর্শন ডক্টরেট ছাত্র, যারা এলিয এর বাবা জন্য একটি ইন্টার্নিশিপ হিসাবে কাজ করছে । তাদের আশেপাশের সূর্য ডাঙ্গিত সৌন্দর্যের মধ্যে, এলিও এবং অলিভার একটি গ্রীষ্মের সময় জাগরণ ইচ্ছায় অযৌক্তিক সৌন্দর্য আবিষ্কার করে, যা চিরদিনের জন্য তাদের জীবন পরিবর্তন করবে।এই ভাবেই চলচ্চিত্রের ক্রমবিকাশ দেখানো হয়েছে।

মূল পর্দায় অস্কার… 

গেট আউট –

আন্দ্রে হ্যওয়ার্থ নামে একজন যুবক কালো মানুষ, রাতের বেলায় একটি অপরিচিত উপবন রাস্তায় হাঁটে, যখন তাকে একটি মুখোশধারী আক্রমণকারী দ্বারা আক্রমণ করা হয় যিনি তাকে তার গাড়ির কাছে টেনে এনে তাকে অজ্ঞান করে দেন।

ব্ল্যাক ফটোগ্রাফার ক্রিস ওয়াশিংটন তার সাদা বান্ধবী রোজ আর্মমেজের পরিবারের সাথে সাক্ষাত্ করতে আগ্রহী নয়। পরিবার এর গ্রাউন্ডেড এস্টেট তাদের ড্রাইভ সময়, তারা একটি হরিণ আঘাত এবং ঘটনা রিপোর্ট। দৃশ্যটি নিয়ে আসার সময় সাদা পুলিশ সদস্য ক্রিসের শনাক্তকরণের জন্য অনুরোধ করেন যদিও তিনি ড্রাইভিং করেননি, কিন্তু রোজ হস্তক্ষেপ করেন এবং সাক্ষাত্কারটি অচেনা হয়ে যায়। এইভাবে প্রেক্ষিত ঘিরে ঘটনার ক্রমবিকাশে আজ অস্কারপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র। এখানেই সার্থকতা।

চলচ্চিত্র বিজ্ঞানে অস্কার… 

 ব্লেড রানার ২০৪৯ –

ব্লেড রানার ২০৪৯ হল, ২০১৭ আমেরিকান বিজ্ঞান কথাসাহিত্যিক চলচ্চিত, যা ডেনিস ভিলেনিউভ পরিচালিত এবং হ্যামটন ফ্যানশার এবং মাইকেল গ্রিনের লেখা। ১৯৮২ সালের ফিল্ম ব্লেড রানারের একটি সিম্বল, চলচ্চিত্রটি রায়ান গসসিং এবং হ্যারিসন ফোর্ডের অ্যানা দে আর্মস, সিলভিয়া হকস, রবিন রাইট, ম্যাকেনজি ডেভিস, কার্লা জুরি, লেনি জেমস, ডেভ বয়েস্তিস্তা এবং জারদ লেটোর সহযোগিতায় ভূমিকা পালন করে। এডওয়ার্ড জেমস অকমস, মূল ফিল্ম থেকে তার ভূমিকা সংক্ষিপ্তভাবে প্রদর্শন করেছেন। প্রথম চলচ্চিত্রের ত্রিশ বছর পর, গ্লসিং কে কে ব্লেড রানারকে অভিনয় করে।যিনি একটি গোপন জিনিস প্রকাশ করেন- যা মানুষ এবং প্রতিলিপিকের মধ্যে একটি যুদ্ধে জড়িয়ে ফেলার হুমকি দেয়, যা ফোর্ডের দ্বারা পরিচালিত সাবেক ব্লেড রানার রিকার ডেকার্ডের দিকে ফিরিয়ে নিয়ে যায়।এই ঘটনার প্রেক্ষিত নিয়ে অস্কারপ্রাপ্তি।

পোশাক পরিচ্ছেদে শিল্পী অস্কারপ্রাপ্তি…

ফ্যানটম থ্রেড –

মার্ক ব্রিজেস-

১৯৫০ সালের যুদ্ধোত্তর লন্ডনের গ্ল্যামার সেট করে, প্রখ্যাত পোশাকশিল্পী রেনল্ডস উডকোক (ড্যানিয়েল ডে-লুইস) এবং তার বোন সাইলি (লেসলি ম্যানভিল) ব্রিটিশ ফ্যাশন কেন্দ্রে রয়েছেন। রাজকীয় পোশাক, চলচ্চিত্রের নাটক, হিজরত, সোশ্যালাইটস, ডিভুতান্টস এবং ডেমস হাউস অব উডকোকের স্বতন্ত্র শৈলী উডকোকের জীবনের মাধ্যমে নারী আসেন এবং যান, অনুপ্রেরণা এবং সাহচর্যের সাথে পথ চলা। তার সর্বশেষ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে, পল থমাস অ্যান্ডারসন একটি সৃজনশীল যাত্রায় এক শিল্পী আলোকসজ্জা প্রতিকৃতি আঁকেন এবং যা বিশ্বে চলমান । ফ্যান্টম থ্রেড পল থমাস অ্যান্ডারসন এর অষ্টম সিনেমা, এবং ড্যানিয়েল ডে লুইস সঙ্গে তার দ্বিতীয় সহযোগিতার এই প্রাপ্তি। এবার আসা যাক…

স্টাইলে অস্কার প্রাপ্তি…

মিউজিক শিল্পী কাজুহির সুজী এই বছরের একাডেমি অলিম্পিকের জন্য সেরা অভিনেতা এবং হেরোস্টাইলে ব্রিটিশ ফিল্ম “ডার্কেস্ট আওয়ার“, যা ওয়ার্টাইম নেতা উইনস্টন চার্চিল সম্পর্কে তার কাজের স্বীকৃতি লাভ করে। তিনি পুরস্কারের প্রথম জাপানি বিজয়ী।

সাইন্ড এডিটিং …

সাইন্ড এডিটিং এর জন্য রয়েছে “ডানকার্ক “ সিনেমাটি।

চলচ্চিত্র, বক্স অফিস, নায়ক, নায়িকা, পরিচালক, যাই থাকুক না কেন, সেরা সেরা সম্মান সকলেই চায়। আর কেবল রেটিং নয় গ্রিনিস বুকের চাহিদার মতো রয়ে গেছে অস্কারের টান। অর্থ ব্যয়,আর মন,মনন দিয়ে চরিত্র গুলি নিজেকে উজার করে সাজিয়ে তোলেন সৃজনে, লক্ষ্য একটাই বিশিষ্টতা লাভ, আর তাতেই সার্থকতা।

 

 

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...