ভারতব্যাপী বানিজ্যবিস্তার গণেশের বাজারে নিয়ে এলো একরাশ নতুন প্রোডাক্ট…

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 43
    Shares

ওয়েব ডেস্ক, নিজস্ব প্রতিনিধিঃ  হাই সুগার ধরা পড়েছে? উচ্চ রক্তচাপের সমস্যায় ভুগছেন? ডাক্তার বাবু খাওয়াতে অনেক রেস্ট্রিকশন করে দিয়েছেন? মন চাইলেও একটু বেশি কিছু খেয়ে রুটিনের বাইরে যেতে পারছেন না?এমন সব মানুষদের দিকে তাকিয়েই বাজারে নতুন প্রোডাক্ট আনার কথা ঘোষণা করলো ভারতের বুকে “ময়দাজাত” দ্রব্যের লিডিং এবং লার্জেস্ট ব্র্যান্ড গণেশ গ্রেনস লিমিটেড.এক সাংবাদিক সম্মেলনে সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর মানিষ মীমানি এই ঘোষণা করেন. নতুন যে প্রোডাক্টগুলো গনেশ মার্কেটে নিয়ে আসতে চলেছে তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো “মাল্টিগ্রেইন” আটা,”সর্বতী” আটা,”গ্লুটেন ফ্রি” আটা, “ডায়াবেটিস কন্ট্রোল” আটা।

এক নজরে দেখা নেয়া যাক বাজারে আসতে চলা নতুন প্রোডাক্টের “ইউ এস পি” …

Image result for ganesh gluten free atta

১. গ্লুটেন   ফ্রি আটা — মূলত মিলেটের থেকে তৈরি এই আটার তৈরি রুটি খুব হজমউপযোগী. কোনোরকমের এলার্জির সমস্যা যাদের সমস্যা আছে তাদের জন্য খুব উপযোগী মিলেট থেকে তৈরি এই আটা।

Image result for ganesh gluten free atta

২.   শর্বতী আটা — মূলত মধ্যপ্রদেশের গমের থেকে তৈরি হয় এই আটা . বাজার চলতি অন্য আটার তুলনায় একটু দামি এই আটা .প্রতি কেজিতে ৫৫টাকা যা গনেশের অন্যান্য প্রতিযোগীদের তুলনায় অনেক কম.এই আটার তৈরি রুটি খুব নরম হয়.

Image result for ganesh gluten free atta

৩. মাল্টিগ্রেইন আটা :– গম,জব,বাজরা,মিলেট সবধরণের গ্রেইন্স থেকে তৈরি হওয়া এই আটা ও সহজেই হজম করা যায়।


৪. ডায়াবেটিস কন্ট্রোল আটা :-
মূলত ডায়াবেটিস এবং হাই সুগারে আক্রান্ত মানুষদের কথা মাথায় রেখে এই আটা বাজারে আনতে চলেছে গনেশ.

১৯৩৬ এ পশ্চিমবঙ্গের বুকে পথচলা শুরু করা গনেশ যারা ।২০১২ সলে বাজরার ময়দা,বেসন,সিঙ্গারার ময়দা,মাকাই ময়দা,সোয়াবিন ময়দা মার্কেট এ নিয়ে এসেছিলো
এবার তারাই নতুন প্রোডাক্ট মার্কেটে এনে পূর্ব ভারতের বিহার,ঝাড়খন্ড,ওড়িশা সহ সমগ্র নর্থ-ইস্টার্ন ভারত, দিল্লী,উত্তর প্রদেশ,উত্তরাখন্ড,অন্ধ্র প্রদেশ,তেলেঙ্গানা,কর্ণাটক এবং তামিলনাডু সহ গোটা ভারতের বুকে তাদের ব্যবসার প্রসার ঘটাচ্ছেন .

মানিষ মীমানি জানান ” শুধুমাত্র পশ্চিমবাংলার বুকেই আমাদের ৪৫০ ডিলার আছে যারা প্রায় ৩০,০০০ রিটেলারকে সার্ভিস দিচ্ছে,এই সংখাটাই আমরা ২০১৮’র মধ্যে ৯০০তে নিয়ে যাবার লক্ষমাত্রা রেখেছি.এছাড়াও ৩টি রাজ্যে আমাদের ৬টি ওয়্যারহাউস এবং ৮টি ম্যানুফ্যাকচারিং ইউনিট আছে.আমাদের নিজ্জস্স লজিস্টিকস ব্যবস্থার মধ্যে দিয়ে এসব জায়গা থেকে সাধারণ মানুষের কাছে “ফ্রেশ ” আটা এবং ময়দার প্রোডাক্ট গুলো পৌঁছে দেবো.”

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 43
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.