গুগল কোনও রাজনৈতিক পক্ষপাতিত্ব করেনি

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

গুগলের বিরুদ্ধে রিপাবলিকানদের অভিযোগ, ডোনাল্ড ট্রাম্পকে নিয়ে মজা করে গুগল। তাঁর বক্তব্য ও ছবিকে অযথা বিকৃত করা হয়। মার্কিন প্রেসিডেন্টের রাজনৈতিক ভাবমূর্তি এতে নষ্ট হচ্ছে বলে দাবি করা হয়। গুগলের সিইও সুন্দর পিচাই বলেন, ‘‌গুগল ডান–বাম রাজনীতি বোঝে না। বাস্তব পরিস্থিতিকে বিচার করে। সেই অনুযায়ী সার্চ অপশনে তথ্য সাজায়। এখানে কোনও ব্যক্তি বা রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট গুরুত্ব পায় না। পাশাপাশি, সাম্প্রতিক ঘটনা, ব্যক্তির জনপ্রিয়তাকে গুগল গুরুত্ব দেয়। আসল খবর এবং তথ্যই মানুষকে দেওয়া গুগলের কাজ।’‌
গুগলের নিরপেক্ষতা নিয়ে গুগলের সিইও সুন্দর পিচাইকে প্রশ্ন করেন মার্কিন হাউস জুডিশিয়ারি কমিটির চেয়ারম্যান বব গুডল্যাটে। গুগল সিইও–কে গুডল্যাটে বলেন, গুগল যদি সার্চ ইঞ্জিনে তথ্য বিকৃত করে, সেটা খুবই খারাপ ব্যাপার। অনলাইনে তথ্য নিয়ন্ত্রণ করার ক্ষমতা আছে বলে গুগলের সেটা করা উচিত নয়। অনলাইনে কোন কোন তথ্য তাঁরা পাচ্ছেন না, সেটা জানার অধিকার আমেরিকানদের আছে। পিচাইয়ের আইনজীবীর পাল্টা জবাব, ‘‌গুগল আমেরিকা এবং সে দেশের মানুষকে সম্মান করে। তবে পৃথিবীর সব মানুষই গুগল সার্ফিং করেন। সেই দিকে নজর দিয়েই সবরকমের তথ্য, ছবি নিয়ে প্রত্যেকদিন হাজির হতে হয়। যে কোনও একজন ব্যক্তি বা দেশকে গুরুত্ব দেওয়া গুগলের কাজ নয়।’‌‌‌

মার্কিন সেনেটে চলছিল গুগলের বিরুদ্ধে শুনানি। সেখানে বিচারপতির সামনে শান্ত গলায় বক্তব্য রাখেন গুগলের সিইও সুন্দর পিচাই। তাঁর বিরুদ্ধে দাঁড়িয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্টের কাছের মানুষরা। গুগলের রাজনৈতিক নিরপেক্ষতাকে প্রশ্ন করে অভিযোগ ধেয়ে আসছে একে একে। সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেই পিচাই জানালেন, ‘‌গুগল বরাবর নিরপেক্ষ। কোনওরকম রাজনৈতিক পক্ষপাতিত্ব গুগল করেনি, করবেও না। এই সমস্ত অভিযোগই যুক্তিহীন।’‌

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~