নতুন অস্ত্রে সাজছে পাকিস্তান ও ভারত, সীমান্তে নয়া উদ্বেগ?

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 11
    Shares

চীনা মিসাইল পাচ্ছে পাকিস্তান সেনা৷ এই মিসাইল শব্দের চেয়ে তিন গুণ বেশি গতিসম্পন্ন জাহাজধ্বংসকারী মিসাইল বলে জানা গিয়েছে৷ পুরো প্রক্রিয়ার উপর নজর রাখছেন ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের শীর্ষ অফিসাররা। তবে যেহেতু পাক নৌসেনার দূরের লক্ষ্যভেদকারী সেন্সর নেই তাই ওই চীনা মিসাইল হাতে পেলেও তা তৎক্ষণাৎ ভারতের পক্ষে ক্ষতিকারক হয়ে যাবে না, মনে করছেন তাঁরা। অন্যদিকে, আয়তনে ভারতের সমান রেডার তৈরি করেছে চীন। অ্যাডভান্সড কম্প্যাক্ট সাইজ রেডারটি সম্পূর্ণ দেশীয় পদ্ধতিতে তৈরি হয়েছে বলে জানিয়েছে চীনা সংবাদমাধ্যম। এই রেডারের সাহায্যে তাদের সব কটি সমুদ্রের উপর সম্পূর্ণভাবে নজরদারি চালাতে পারবে চীনের নৌবাহিনী। রেডারের এই উন্নতমানের প্রযুক্তির জন্য লিউ ইওংট্যান এবং কিয়ান কিহু নামে দুই তরুণ বিজ্ঞানীকে এজন্য সংবর্ধনা এবং অর্থ পুরস্কারও দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং।‌‌

Image result for india pakistan border
তবে আজ সেনা প্রধান বিপিন রাওয়াত পালটা বলেছেন, ‘‘জানুয়ারি মাসের ২০ তারিখের মধ্যে দেশের নর্দান কমান্ডোর হাতে উঠবে স্নাইপার৷ সেই সঙ্গে ডিফেন্স রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন (ডিআরডিও) ভারতীয় সেনাবাহিনীর হাতে মিসাইল ও রকেট তুলে দেওয়ার কথা৷ ফেব্রুয়ারি বা মার্চের মধ্যে সেই টাইমলাইন জানিয়ে দেবে ডিআরডিও৷ যদি ডিআরডিও সেই টাইমলাইনের মিস করে তাহলে সেনা বাইরে থেকে রকেট ও মিসাইল আমদানি করবে৷’’
পাশাপাশি জানা গিয়েছে, সিএম–৩০২ নামের ওই মিসাইল ছাড়া পাক নৌসেনার জন্য আরও চারটি চীনা অস্ত্র তৈরি হচ্ছে সাংঘাইয়ের হুডং–ঝংহুয়া জাহাজঘাঁটিতে। লক্ষ্য ধ্বংস করার ভারতের ব্রাহ্মস অ্যান্টি–শিপ ক্রুজ মিসাইলের ক্ষমতা এবং সুপারসোনিক গতি সম্পন্ন সিএম–৩০২ মিসাইল হাতে পেলে পাক নৌবাহিনী অনেকটাই ক্ষমতাশালী হয়ে যাবে বলে মনে করছেন সামরিক বিশেষজ্ঞরা। বিদেশি জাহাজ, বিমান এবং মিসাইলের গতিপ্রকৃতির ব্যাপারেও অনেক দ্রুত খবর পাঠাবে এই ওভার দ্য হরাইজন বা ওটিএইচ রেডার। চীনের সাগরে তাদের নৌসেনার টহলদারি জাহাজের উপর রাখা থাকবে ওটিএইচ রেডার।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 11
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~