শুরু হল যুক্তরাষ্ট্র – দ:কোরিয়া সামরিক যৌথ মহড়ার প্রস্তুতি …

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 16
    Shares

বন্ধুত্ব ফের একবার ঝালিয়ে নেওয়া না কি বিশেষ বিশেষ কিছু দেশকে বার্তা দেওয়া? ঠিক কোন উদ্দ্যেশে শুরু হতে চলেছে দক্ষিণ কোরিয়া-আমেরিকা যৌথ সামরিক মহড়া, তা এখন লাখ টাকার প্রশ্ন৷

আগামী মাসেই যৌথ সামরিক মহড়া শুরু করতে চলেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং দক্ষিণ কোরিয়া। পয়লা এপ্রিল থেকে এই মহড়া শুরু হবে বলে জানা গিয়েছে৷

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রক মঙ্গলবার এক সাংবাদিক সম্মেলন করে৷ যৌথ সামরিক মহড়ার কথা তবে এই ঘোষণার পর এখনও পর্যন্ত কোনও প্রতিক্রিয়া দেয়নি উত্তর কোরিয়া৷ এদিকে, পিয়ংইয়ং-এর ওপর চাপ জারি রাখতে রাখতে চাইছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন।

Image result for joint military exercise s. korea US

শীতকালীন অলিম্পিক উপলক্ষে দুই কোরিয়ার সম্পর্কের বরফ গলতে শুরু করে। এই পরিস্থিতিতেই আবারও সিওল-ওয়াশিংটন যৌথ সামরিক মহড়া শুরুর ঘোষণা করা হয়৷ মহড়ার বিষয়টি রাষ্ট্রসঙ্ঘকে অবহিত করা হয়েছে বলেও জানানো হয়। যৌথ এই সামরিক মহড়া পূর্ব পরিকল্পিত এবং প্রতি বছরই চলে বলে দাবি করেছে সিওল৷

তবে এর ফলে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইন ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উনের পরিকল্পিত বৈঠক বাতিল হয়ে যেতে পারে বলে অনেকে মনে করছেন। মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগ পেন্টাগন জানিয়েছে, এপ্রিল মাসের এই সামরিক মহড়ায় ২৩ হাজার মার্কিন ও তিন লাখ দক্ষিণ কোরীয় সেনা অংশ নেবে।

দক্ষিণ কোরিয়া এমন সময় এই ঘোষণা করল, যখন উত্তর কোরিয়া বারবার এ ধরনের মহড়া বন্ধ করার জন্য ওয়াশিংটন ও সিওলকে সতর্ক করেছে৷ পিয়ংইয়ং এ ধরনের মহড়াকে ভালো চোখে দেখে না৷ তাদের মতে এই ধরণের মহড়া অন্য দেশের ওপর হামলার প্রস্তুতি ও শত্রুতামূলক পদক্ষেপ৷

Image result for joint military exercise s. korea US

দক্ষিণ কোরীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের মুখপাত্র চই হিয়ান শু একটি সাংবাদিক সম্মেলন করেন৷ তিনি জানান আগামী পয়লা এপ্রিল থেকে নিয়মিত মহড়ার অংশ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়া বার্ষিক সামরিক মহড়া শুরু করছে৷ অলিম্পিক উপলক্ষে যৌথ সামরিক মহড়া কিছুটা দেরিতে শুরু করা হচ্ছে৷
যদিও, ইইউ-এর বিদেশ বিষয়ক প্রধান ফেদেরিকা মোঘেরিনি বলেন, পরমাণু নিরস্ত্রীকরণে উত্তর কোরিয়ার ঘোষণাকে স্বাগত জানাই। এটি একটি আত্মরক্ষামূলক মহড়া এবং এতে তৃতীয় কোনো পক্ষের আতঙ্কিত হওয়ার কারণ নেই।

Image result for presidents s. korea US

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জে ইন ও উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের বৈঠকের মধ্যে দিয়ে দুই কোরিয়া একটি শান্তিপূর্ণ সমাধানে পৌঁছাবে বলে আশা করছে দুই দেশের আধিকারিকরা৷

এদিকে, কোরীয় উপদ্বীপে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ নিয়ে আলোচনায় ফিনল্যান্ডে রয়েছে দুই কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি দল। তাদের মধ্যে আলোচনায় ট্রাম্প-কিম সম্ভাব্য বৈঠকের বিষয়টি গুরুত্ব পেতে পারে। পয়লা এপ্রিল থেকে শুরু হতে চলা যৌথ সামরিক মহড়া মে মাসের শেষ পর্যন্ত চলবে

Image result for joint military exercise s. korea US

এদিকে, উত্তর কোরিয়া এর আগে জানিয়েছিল, আমেরিকা দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়া চালালে নিজস্ব পদ্ধতিতে তার জবাব দেবে উত্তর কোরিয়া৷ সেদেশের জাতীয় সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, আমেরিকা যদি শেষ পর্যন্ত উত্তর কোরিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা বহাল রেখে যৌথ সামরিক মহড়া চালায় তাহলে পিয়ংইয়ং নিজস্ব পদ্ধতিতে তার জবাব দেবে। সে অবস্থায় উদ্ভূত পরিস্থিতির পুরো দায় আমেরিকাকেই নিতে হবে।
এই সংবাদমাধ্যমের আরও বক্তব্য, সাম্প্রতিক সময়ে দুই কোরিয়ার মধ্যে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্কের যে সূচনা হয়েছিল যৌথ মহড়া চালানো হলে তা ঝুঁকির মধ্যে পড়বে।

Attachments area
Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 16
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.