শহরে ৭৫ কেজির নিষিদ্ধ শব্দবাজি বাজেয়াপ্ত

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 21
    Shares

শহরের বিভিন্ন এলাকা থেকে নিয়ম ভেঙে বাজি ফাটানোর অভিযোগ ওঠে প্রতি বছরই। আর এবছরও দীপাবলির আগে বেড়েছে পুলিশি তৎপরতা। তাতেই সাফল্য পেল পুলিশ৷ কালীপুজো এবং দীপাবলির আগে প্রচুর পরিমাণে বাজি উদ্ধার করল বিধাননগর কমিশনারেটের পুলিশ। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে রবিবার বাগুইআটির হানার পাড়ার একটি বাড়ি থেকে ৫০ কেজি বাজি উদ্ধার করে পুলিশ৷ যার দাম আনুমানিক ৪০হাজার টাকা। বাড়ির পাশে থাকা গোডাউনে এই বিপুল পরিমাণে বাজি রাখা আছে খবর পেয়ে তল্লাশি চালায় পুলিশ। তখনই উদ্ধার হয় এই বিপুল পরিমাণ বাজি।
এদিকে নিউটাউনের ইডেনশিপ এলাকা থেকে উদ্ধার করা হয় ৭৫ কেজি নিষিদ্ধ বাজি। গত কয়েক বছর ধরে এই বাজি মজুত করা হচ্ছিল বলে খবর পায় পুলিশ৷ বিধাননগর পুলিশ কমিশনারেটের অন্তর্গত এই এলাকায় কোথা থেকে এই বিপুল পরিমাণ বাজি এল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।
এর আগে দীর্ঘ দিন ধরে শুনানি চলার পর শর্ত সাপেক্ষে বাজি বিক্রিতে সম্মতি দেয় সুপ্রিম কোর্ট। নির্দিষ্ট সময়ের জন্য কম দূষণ ছড়ায় এমন বাজি বিক্রির অনুমতি দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি বাজি ফাটানোর সময়ও নির্দিষ্ট করে দেওয়া হয়। বলা হয় দীপাবলীতে ৮টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত বাজি ফাটানো যাবে। বড়দিনের ক্ষেত্রে সময়টা রাত ১১.৫৫ থেকে রাত ১২.৩০। পরে আদালত নির্দেশ দেয় দিল্লি এবং আশপাশের এলাকা ছাড়া দেশের অন্যত্র আগে থেকে তৈরি করা বাজি ফাটানো যাবে। কিন্তু দিল্লি এবং তার আশাপাশের এলাকায় শুধু পরিবেশ বান্ধব বাজি ফাটাতে হবে।
এছাড়াও বিমান বন্দরের আশপাশের এলাকায় হাওয়াইয়ের মতো বাজি ফাটানোর উপর নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। সেটি অমান্য করে কয়েকটি বাড়িতে প্রচুর পরিমাণে হাওয়াই মজুত করা হয়েছে বলে খবর পায় পুলিশ। তার মধ্যে একটি বাড়ি থেকে ইতিমধ্যেই প্রায় হাজার দেড়েক হাওয়াই উদ্ধার হয়েছে।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 21
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~