নিরাপত্তার খামতি থাকছে না শহরে, তৈরি কলকাতা পুলিশ

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 14
    Shares

বড়দিনে পার্ক স্ট্রিট–সহ গোটা কলকাতার বিভিন্ন পানশালায় নজর রেখেছিল পুলিস। নজরদারি রাখা হয়েছিল শপিং মল এবং মেট্রো স্টেশনেও। ওই কর্তা বলেন, ৩১ ডিসেম্বরেও এই জায়গাগুলির ওপর একই ভাবে নজর রাখা হবে। ওই দিন মধ্যরাতে শহরের বিভিন্ন গির্জায় প্রার্থনার আয়োজন করা হয়। সেখানে মোতায়েন থাকবে পুলিস।
বড়দিনের মতো বছরের শেষ দিনটিতেও নিরাপত্তা নিয়ে কোনও খামতি রাখতে রাজি নয় কলকাতা পুলিস। ঝুঁকি এড়াতে ওই দিন নিরাপত্তা বাড়ানো হবে পার্ক স্ট্রিট–সহ শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ জায়গায়। নজর রাখা হবে সিসি ক্যামেরার মাধ্যমে। সতর্ক করা হয়েছে শহরের সব ক’‌টি থানাকে। রাস্তায় উর্দিধারী পুলিস যেমন থাকবে, তেমনি ভিড়ে মিশে নজর রাখবেন সাদা পোশাকের পুরুষ এবং মহিলা পুলিসকর্মীরা। থাকবেন পুলিসের উচ্চপদস্থ আধিকারিকেরা। রাতভর নজর রাখা হবে ধর্মতলা, পার্ক স্ট্রিট–সহ শহরের নানা জায়গায়। থাকবেন মহিলা পুলিসকর্মীদের তৈরি কলকাতা পুলিসের ‘‌দ্য উইনার্স’‌–এর সদস্যরা। জলপথেও নজরদারি চালাবে পুলিস।
শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে রাখা হবে পুলিস ভ্যান। পার্ক স্ট্রিট এবং তার আশপাশে নজরদারির জন্য থাকছে ওয়াচ টাওয়ার। প্রকাশ্যে মদ্যপান রুখতে এবং জোরে ও মদ্যপান করে গাড়ি চালানো রুখতে অন্য পুলিসকর্মীদের সঙ্গে সজাগ থাকবেন কলকাতা পুলিসের গুন্ডাদমন বাহিনীর সদস্যরা। মোটরসাইকেল এবং অটোরিকশাতেও ঘুরবে পুলিস।সাইকেল নিয়ে সরু গলিতে টহল দেবে তারা। থাকছে পুলিস পিকেট। ভিড়ের চাপে বা অন্য কোনও কারণে যদি কেউ অসুস্থ হয়ে পড়েন, সেক্ষেত্রে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য থাকছে অ্যাম্বুল্যান্স। বিপর্যয় মোকাবিলার জন্য থাকছে পুলিসের বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী। থানাগুলিতে মজুত রাখা হচ্ছে পুলিসের অতিরিক্ত বাহিনী।
বছরের শেষ দিনটিতে পিকনিকে মেতে ওঠেন অনেকেই। সে–‌কারণে পিকনিকের জায়গাগুলিতে নজর রাখা হবে। থানাগুলি থেকে স্থানীয় ক্লাবগুলির সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে।
কলকাতা পুলিসের সঙ্গে তৈরি থাকবে বিধাননগর পুলিসও। নজর রাখা হবে পানশালা এবং শহরের বিভিন্ন রেস্তোরঁাগুলিতে। দিনের বেলায় নজর রাখা হবে ইকো পার্ক, নিক্কো পার্কের মতো জায়গাগুলিতে। রাতের দিকে বিভিন্ন মোড় এবং রাস্তায় বাড়ানো হবে টহল। সাধারণ কর্মীদের সঙ্গে রাস্তায় থাকবেন পুলিসের বড়কর্তারাও।‌‌‌
এ বিষয়ে পুলিসের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে ৩১ ডিসেম্বর মধ্যরাতে পার্ক স্ট্রিটে ভিড় জমান বহু মানুষ।শহরের নাগরিকদের সঙ্গে থাকেন শহরতলির নাগরিকেরাও। ফলে প্রয়োজন অনুযায়ী যান–নিয়ন্ত্রণ যেমন করা হবে, তেমনি যে কোনও বেআইনি কাজকর্ম রুখতে রাখা হচ্ছে অতিরিক্ত পুলিসবাহিনী।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 14
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~