কুম্ভ মেলায় ৪২০০ কোটি খরচ করছে উত্তরপ্রদেশ সরকার!

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 135
    Shares

শাস্ত্র মতে প্রতি ছ’ বছর পর পর হয় অর্ধকুম্ভ মেলা। আর পূর্ণ কুম্ভ হয় এক যুগ মানে বারো বছর বাদে। সব মিলিয়ে এবছর প্রয়াগে ৪৮ দিন ধরে মেলা চলবে। গত মঙ্গলবার থেকে তা শুরু হয়ে গিয়েছে। মোট ৬ দিন শাহি স্নান হবে এবার। এর মধ্যে মকর সংক্রান্তির দিন একটি হয়ে গিয়েছে। বাকি গুলি হল- ২১ জানুয়ারি( পৌষ পূর্ণিমা), ৪ ফেব্রুয়ারি (মৌনি অমবস্যা) ১০ ফেব্রুয়ারি (বসন্ত পঞ্চমী) ১৯ ফেব্রুয়ারি ও(মাঘি পূর্ণিমা) মহা শিবরাত্রি (৪ মার্চ)। তবে এসবের মধ্যেও সব থেকে বড় যে তথ্য উঠে আসছে তা হল প্রয়াগরাজে এবারের কুম্ভমেলার জন্য মোট ৪২০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে উত্তরপ্রদেশ সরকার। শুধু তাই নয় কোনও কুম্ভ মেলায় এর চেয়ে বেশি অর্থ খরচ হয়েছে কিনা তা নিয়ে সংশয় আছে। রাজ্যের অর্থমন্ত্রী রাজেশ আগরওয়াল সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে জানিয়েছেন, ‘উত্তরপ্রদেশ সরকার এবারের মেলার জন্য ৪২০০ কোটি টাকা খরচ করছে। ২০১৩ সালে খরচ হয়েছিল ১৩০০ কোটি টাকা।’ এর বাইরেও কয়েকটি দপ্তর নিজেদের মতো করে অর্থ বরাদ্দ করেছে।


এর আগে ২০১৩ সালে মহা কুম্ভের জন্য রাজ্য সরকার খরচ করেছিল ১৩০০ কোটি টাকা। এবার প্রায় তিন গুণ বেশি অর্থ খরচ করছে রাজ্য।
টাকার পরিমাণের সঙ্গে সঙ্গে বেড়েছে মেলার জায়গাও। এর আগে সমস্ত মেলা হত ১৬০০ একর জায়গা জুড়ে। এবার হচ্ছে ৩২০০ একর জায়গা নিয়ে। মন্ত্রী জানান মেলার সুযোগ সুবিধা বাড়ানোই আমাদের লক্ষ্য। তাই কয়েকটি ক্ষেত্রে ঝুঁকিও নিতে হচ্ছে আমাদের। কুম্ভ মেলা ছাড়া গোটা বিশ্বের আর কোথাও একটি মাত্র বিশ্বাসকে পাথেয় করে এত বেশি সংখ্যায় জন সমাগম হয় না।

পুণ্যার্থীদের মধ্যে গঙ্গায় ডুব দেওয়ার জন্য প্রথমে যান ১৩টি আখাড়ার সাধু–সন্ন্যাসীরা। এরপরই ভক্তরা ডুব দেন গঙ্গায়। এ বছরই প্রথম কিন্নরী আখাড়ার রূপান্তরকামীরা কুম্ভে যোগ দিয়েছেন। মঙ্গলবার তাঁরাও অর্ধকুম্ভে স্নান করেন। মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি এবং উন্নাওয়ের বিজেপি বিধায়ক সাক্ষী মহারাজও মকরস্নান করেন। প্রায় দু’‌মাস ধরে চলবে এই অর্ধকুম্ভ। ১২ বছরে দু’‌বার আসে। সংঙ্গমে পুণ্যার্থীদের ওপর হেলিকপ্টারে করে ফুলের পাপড়ি ছড়ানো হয়।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 135
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~