খবর ২৪ ঘন্টা

জীবনে ফিরিয়ে আনুন আর্থিক সমৃদ্ধি, শান্তি, ভালোবাসা ~ জেনে নিন ফেং-শুই এর কিছু পরামর্শ…

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

দুর্ভাগ্য পিছু ছাড়ছে না আপনার? পুজো পাঠ, তাবিজ কবচে কিছুই হচ্ছে না? কেন জানেন? আপনার ঘরের মধ্যেই লুকিয়ে রয়েছে বাস্তু দোষ৷ যে দোষের প্রকোপে দুর্ভাগ্যের ফেরে আপনি৷ এর সমাধান রয়েছে চিনা বাস্তুশাস্ত্রের এক অতি প্রাচীন পদ্ধতি ফেং সুই-এর কাছে৷

আজ থেকে প্রায় ৩ হাজার বছর আগে চিনে এই শাস্ত্রের জন্ম হয়। অনেকে আবার এ পদ্ধতিকে ৫ হাজার বছরের পুরনো পদ্ধতি বলে দাবি করেন। ইতিহাস ঘাঁটলে দেখা যায়, প্রাচীনকালে চিনের রাজপরিবারের বিভিন্ন পরীক্ষাতে ফেং সুই দক্ষতার প্রমাণ দিতে হতো তৎকালীন রাজারা তাদের কর্মচারীদের মধ্যে ফেং সুই মাস্টারদের নিয়োগ করতেন বলে জানা যায়।

সে তো ধরুন গল্পকথা৷ কিন্তু আজকের দিনেও ফেং শুই আপনার জীবনে ভাগ্য ফেরাতে পারে৷ কীভাবে? রইল টিপস

১. ঘরের দেওয়ালের দিকে পিছন করে সব আসবাব রাখবেন না৷ ফেং শুই বিশেষজ্ঞ কারেন রাউচ কার্টার বলছেন কমিউনিকেশন বাড়বে এরকম ভাবে নিজের ঘর সাজান৷ অর্থাৎ মুখোমুখি সাজান আসবাব৷ কিন্তু সব আসবাব দেওয়ালের দিক করে রাখবেন না৷ যাতে মুখোমুখি বসে আপনার অতিথিরা কথা বলতে পারেন৷

২. রান্নাঘর পরিস্কার রাখুন, আর্থিক ভাগ্য ফিরবে আপনার৷ ফেং শুই বলছে অর্থ ঘরে আনতে রান্নাঘর খুবই গুরুত্বপূর্ণ৷ তাই আপনার রান্নাঘর ও ফ্রিজ পরিস্কার রাখুন৷ সতেজ খাবারে পূর্ণ থাকুক ফ্রিজ৷  বিশেষ করে গ্যাস ও তার আশপাশের এলাকা যেন থাকে পরিস্কর৷ গ্যাস ওভেনের প্রতিটি বার্নার সমানভাবে যেন জ্বলে ও খাবার টেবিলের কোণাগুলি ফাঁকা রাখুন৷

৩. জীবনে ভালবাসার অভাব? সমাধান দিচ্ছে ফেং শুই৷ এর মতে প্রতিটি ঘরে একই দেখতে দুটি করে আসবাব রাখুন৷ অন্তত, ঘরের কোণায় থাকুক দুটি চেয়ার, একই দেখতে৷ একাকীত্ব কাটাতে সরিয়ে ফেলুন একটি ছবি বা আর্ট ওয়ার্কের নমুনা৷ দেওয়ালে আসুক জোড়া ছবি বা আর্ট ওয়ার্ক৷ আপনার চারপাশে সবকিছু থাকুক জোড়ায় জোড়ায়।

৪. অর্থকে স্বাগত জানান ঘরে লাল, পার্পল বা সবুজ রং করিয়ে৷ ফেং শুই বলছে রংএর প্রভাব প্রত্যেক মানুষের জীবনে অপরিসীম৷ তাই সৌভাগ্যও আসে সেই রং-এর হাত ধরেই।

৫. হাসিখুশি মুখের ছবি লাগান ঘরে৷ বিশেষত, বাড়ির মানুষদের, আপনার প্রিয়জনের ছবি ঘরের দেওয়ালে লাগিয়ে রাখুন৷ এতে স্ট্রেস কমবে, সুস্থ পরিবেশ বজায় থাকবে বাড়িতে৷ বিশেষত শোওয়ার ঘরে  থাকুক দম্পতির ছবি।

৬. ঘরের সদর দরজা এমনভাবে বানান, যা আকর্ষণ করে অতিথিকে৷ সুন্দর পরিচ্ছন্ন থাকুক দরজার চারপাশ৷ বাড়ি বরাবর সোজা রাখুন সদর দরজাকে৷ ওয়েলকাম ম্যাট বা সদর দরজার সামনে রাখা পাপোশ হবে উজ্জ্বল রং-এর।

৭. বাড়ির পরিবেশে সুস্থ আবহাওয়া ফিরিয়ে আনতে খাবার টেবিল রাখুন গোলাকা৷ তার চারপাশে সাজিয়ে রাখুন চেয়ার গুলিকে৷ ফেং শুই বলছে এমনভাবে খাবার টেবিল সাজানো হোক, যাতে প্রত্যেকে প্রত্যেকের মুখ দেখতে পায়

৮. বাগান হোক পরিচ্ছন্ন৷ আগাছা সরিয়ে সেখানে রাখুন গাছ ও জলের ফোয়ারা৷ পজিটিভ এনার্জিকে ডেকে আনে গাছ ও জল৷ ফুল সৌভাগ্যের প্রতীক৷ তাই বাগানে প্রচুর ফুল গাছ লাগাতে পারেন ।

৯. মূল শোওয়ার ঘর খুব না বড় হলেও তা আরামদায়ক হিসেবে তৈরি করুন৷ বাড়ির প্রতিটি ঘর আরামদায়ক হলে তা সৌভাগ্যকে ডেকে আনে

১০. ফাউন্টেন আপনার ভাগ্য ফিরিয়ে আনার ক্ষেত্রে বিশেষ উপযোগী৷ বাড়ির সদরদরজার সামনে একটি ফাউন্টেন রাখুন৷ তাহলেই তা আপনার সৌভাগ্যের কারণ হতে পারে৷ কিন্তু সেই ফাউন্টেনের জল প্রতিদিন বদলানোর বিশেষ প্রয়োজন৷ আরও যদি ভাগ্য ফেরাতে চান তাহলে ওই ফাউন্টেনের মধ্যে রাখুন তিনটি চকচকে মুদ্রা।

১১. বাড়িতে অ্যাকিউরিয়ামের মধ্যে গোল্ডফিশ রাখুন৷ তাহলেই দেখবেন আপনি আর্থিক ক্ষেত্রে কতটা সৌভাগ্যশালী৷ বাড়ির সদর দরজার সামনে কিংবা বাড়ির বাঁদিকে গোল্ডফিস সহ অ্যাকিউরিয়াম রাখুন, যা আপনার জীবনে সুখ শান্তি ফিরিয়ে আনতে সক্ষম৷ যদি জীবনে কোনও কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যান, কিংবা আপনার স্বাস্থ যদি ভালো না থাকে তবে গোল্ডফিসের পাশাপাশি ওই  অ্যাকিউরিয়ামে আরও আটটি কালো মাছ রাখুন।

১২. বাড়ির শোওয়ার ঘরে এমন কিছু রাখুন, যা আপনাকে মজা দেবে৷ কোনও মজাদার ছবি বা ভাস্কর্য, অথবা ঘরের একটা কোণ একটু অন্যরকম করে সাজিয়ে দেখতে পারেন।

১৩. ঘরে কোনও জলের ছবি রাখবেন না৷ এমন কোনও ছবি যেখানে দেখা যাচ্ছে জল পড়ছে বা বয়ে যাচ্ছে৷ ফেং শুই বলে এমন ছবির অর্থ আপনার হাত থেকে টাকা পয়সা চলে যাচ্ছে৷ বা অতিরিক্ত খরচের অর্থ বহন করে এইসব ছবি।

১৪.  তলোয়ার বা ধারালো কোনও বস্তু দেওয়ালে টাঙিয়ে রাখবেন না৷ কোণাকুণি রাখা তরোয়ালের কোনও ছবিও রাখবেন না ঘরে৷ বাড়িতে অশান্তি  বয়ে  আনে এই ধরণের ছবি।

১৫. আপনার আলমারির জিনিসপত্র যেন গোছানো থাকে৷ পাশাপাশি শোওয়ার ঘর কোনও আবর্জনা বা বাজে জিনিসে ভরিয়ে তুলবেন না৷ বাস্তু অনুযায়ী আপনি যে বিছানায় ঘুমোন তার নিচে কোনও জিনিস না রাখলেই ভালো।

১৬. ঘরের দক্ষিণ-পূর্ব দিকের সঙ্গে ধন-সম্পত্তির যোগ থাকে, তাই এই দিক নিয়েও একটু যত্নবান হওয়া প্রয়োজন৷ ফেং সুই এর  সঙ্গে  যুক্ত  কিছু  জিনিস  এখানেও  রাখুন, ইতিবাচক ফল পেতে পারেন।

১৭. ভাঙাচোরা, অ-দরকারী জিনিসপত্র সরিয়ে ফেলুন।কারণ ঘর নোংরার  পাশাপাশি যতবার এসব ভাঙাচোরার  দিকে নজর যাবে,  নেতিবাচক  শক্তি  প্রভাব ফেলবে  আপনার উপর।


১৮. অফিসে কাজ করার সময় চোখের সামনে দরজা থাকলে ভালো হয়। আরামদায়ক অনুভুতি তৈরি হবে।

১৯. মোমবাতির একটি ক্যান্ডেল স্টিক রাখুন বেডরুমে৷ এতে ঘরের সৌন্দর্য যেমন বাড়বে তেমনই সঙ্গীনির সঙ্গে সম্পর্ক আরও গভীর হবে। এছাড়াও রাখুন ফুলদানি৷ বেডরুমে একটি বিশাল লম্বা জানলা রাখুন৷ তার সামনে রাখুন দুটি চেয়ার৷ যেখানে আপনারা আপনাদের অবসর সময়ে  বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করুন।

 

 

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...