‘ধার চাহিয়া লজ্জা দেবেন না’ বিজেপি কে কটাক্ষ মমতার

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 456
    Shares

আজ সৌমিত্র তো কাল অনুপম। তৃণমূলে ভাঙন অব্যাহত।  ফিরহাদ হাকিম, পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কাছে বিজেপি তরফে ফোন গিয়েছে। সব্যসাচী দত্তের বিজেপি যাওয়ার জল্পনা রাজ্য রাজনীতিতে তোলপাড় হলে,  সামাল দিতে হয় তৃণমূল নেতৃত্বকে।  দলের এমন পরিস্থিতে আজ প্রার্থী প্রকাশ করতে গিয়ে সোজাসুজি মমতা বলেন, বিজেপি আমায় বলতে পারতো। কিছু গদ্দার পাঠিয়ে দিতাম।

বিজেপিকে কটাক্ষ করে মমতা বলেন, ‘ধার চাহিয়া লজ্জা দিবেন না। এ বার একটা সাইনবোর্ড লাগাতে হবে।’ তাঁর কথায়, বিজেপি চুপিচুপি বলতে পারতো কিছু ধার দাও। প্রার্থী দিতে পারছি না। তাহলে কিছু গদ্দার পাঠিয়ে দিতাম। মুকুল রায়ের নাম না করে তিনি আরও বলেন, একটা গদ্দার তো গেছে। ওখানে সব চোর জোড়ো হয়েছে।

উল্লেখ্য, কয়েক দিন আগে বিধাননগরের মেয়র সব্যসাচী দত্তের বাড়িতে মুকুল রায়ের পৌঁছনোয়, তোড়জোড় জল্পনা শুরু হয়ে যায় রাজ্য রাজনীতিতে। লোকসভার আগেই কি তৃণমূল ছাড়ছেন তিনি? বারাসত থেকে বিজেপির হয়ে প্রার্থী হচ্ছেন? এমন জল্পনায় জল ঢালতে তড়িঘড়ি সব্যসাচীর সঙ্গে বৈঠক করেন তৃণমূল নেতৃত্ব। প্রকাশ্যে বিজেপি যাওয়ার জল্পনা খারিজ করে সব্যসাচী বলেন, দাদা-ভাইয়ে সম্পর্ক মুকুলের সঙ্গে। তিনি বাড়িতে এলে লুচি-আলুদম খাইয়েছি। তাঁর সাফ জবাব, দলে আছি দলে থাকব।

সব্যসাচীকে আটকাতে পারলেও, মুকুল ঘনিষ্ঠ সাংসদ সৌমিত্র খাঁ, অনুপম হাজরা বিজেপি যোগ দেন। বিজেপি দাবি করে, তৃণমূল প্রার্থী ঘোষণার পর আরও দলে যোগ দেওয়ার সম্ভবনা রয়েছে। এমনকি বিজেপির প্রার্থী তালিকায় তৃণমূলের রাঘব-বোয়ালদের থাকার সম্ভবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন দিলীপ ঘোষ।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 456
    Shares

খবর ২৪ ঘন্টা

খবর এক নজরে…

No comments found