মমতার ব্রিগেডের সভায় দুত পাঠাচ্ছেন সোনিয়া গান্ধী

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 11
    Shares

মমতা বন্দোপাধ্যায়ের ব্রিগেডের সভায় লোকসভার বিরোধী দলনেতা কে প্রতিনিধি হিসেবে পাঠাচ্ছে কংগ্রেস। 19 জানুয়ারি তৃণমূল কংগ্রেসের সমাবেশে থাকছেন মল্লিকার্জুন খাড়গে। মঙ্গলবার মমতা নিজেই জানান, সোনিয়া গান্ধীর শরীর ভালো না থাকার জন্য কংগ্রেসের তরফ থেকে মল্লিকার্জুন খাড়গে সভায় থাকবেন। বিজেপি বিরোধী প্রায় সব দলেরই শীর্ষ নেতৃত্ব থাকবেন সমাবেশে। কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন সহ বাম নেতৃত্ব কে চিঠি দিয়ে সবাই থাকার আমন্ত্রণ জানিয়েছেন মমতা নিজে। মমতার কথায়, কেরালার মুখ্যমন্ত্রী কে বলেছিলাম অন্য আরো কয়েকজনকে চিঠি দিয়েছিলাম। আমি আমার দায়িত্ব পালন করেছি। কেউ যদি না আসেন, যদি তার রাজনৈতিক বাধ্যবাধকতা থাকে তাহলে কিছু করার নেই। এতে কোন অভিযোগ নেই। আমি সেটাকে শ্রদ্ধা করি, তবে কাশ্মীর থেকে উত্তর প্রদেশ, বিহার সব জায়গার প্রতিনিধি থাকছেন।
এদিন নবান্ন থেকে বেরোনোর সময় মমতা বলেন,”ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে আমাদের মহাসভা হচ্ছে। আমার মনে হয়, জ্যোতি বাবু একবার করেছিলেন ১৯৭৭ সালে, তখন এতটা বড় হয়নি কিন্তু উনি অনেককেই আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন। 41 বছর বাদে আবার সর্বভারতীয় স্তরের অনেক নেতৃবৃন্দ আসছেন।”
তালিকায় কে নেই? প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে বিভিন্ন রাজ্যের বর্তমান ও প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর থাকছেন। বর্ষিয়ান প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী দেবে গৌড়া, এনসিপির শারাদ পাওয়ার, ন্যাশনাল কনফারেন্সের ফারুক আব্দুল্লাহ থেকে শুরু করে নবীন প্রজন্মের সপা নেতা অখিলেশ যাদব, আরজে ডি তেজস্বী যাদব, ওমর আব্দুল্লাহ, স্ট্যালিন, জিগ্নেশ, হার্দিক প্যাটেল আসবেন। থাকবেন চন্দ্রবাবু নাইডু, কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামী, দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী আপ নেতা অরবিন্দ কেজরিওয়াল, অজিত সিং ও তার ছেলে, বাবু লাল মারান্ডি,, ইন্ডিয়ান ইউনিয়ন মুসলিম লীগের বদরুজ্জামান এছাড়াও শত্রুঘন সিনহা, অরুণ শৌরি, যশবন্ত সিনহা। এত ভিভিআইপি আসার কারণে এদিন নবান্নে রাজ্য প্রশাসন ও পুলিশ আধিকারিকদের সঙ্গে নিরাপত্তা ও প্রটোকল নিয়ে বৈঠক হয়। মুখ্যমন্ত্রীর নেতৃত্বে বৈঠকে ছিলেন তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, সুব্রত বক্সি, সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, সৌগত রায়, কল্যাণ ব্যানার্জি, কাকলি ঘোষ দস্তিদার, এছাড়াও অন্যান্য রা। নিরাপত্তায় কড়া নজর দিচ্ছে দলীয় নেতৃত্ব, মোট পাঁচটি স্টেজ হচ্ছে ব্রিগেডের সমাবেশে, মূল স্টেজ এর দৈর্ঘ্য 100 ফুট বাই 40 ফুট, বাকি চারটি স্টেজ এর দৈর্ঘ্য প্রস্থ 28 ফুট বাই 40 ফুট করে। এসেছে মোট 30 লরি। পুরো মঞ্চ তৈরি হয়েছে লোহার বিম ও বাঁশের কাঠামো দিয়ে। এসেছে 1000 এর বেশি লোহার পাটাতন। মল্লিকার্জুন খাড়গের আশা নিয়ে প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি সোমেন মিত্র বলেছেন”জাতীয় রাজনীতির কারণে আর কে কে এ আইসিসি 19 তারিখ পাঠাচ্ছে। কিন্তু রাজ্য কংগ্রেসের বিরোধিতা যেমন ছিল তেমনই থাকবে। আমাদের যাওয়ার কোন প্রশ্ন নেই”। মমতায় দিন বিজেপির ভাঙ্গন রাজনীতির সমালোচনা করেছেন কর্ণাটক বা কচি গোয়া সর্বত্রই বিজেপি এমনভাবেই ক্ষমতা দখলের পুরনো খেলা খেলছে বলে মন্তব্য তার।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 11
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~