মোদিকে ক্লিনচিট, বিরোধিতায় জাকিয়া জাফরির আবেদন শুনবে সুপ্রিম কোর্ট

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 15
    Shares

২০১২ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে গোধরা স্টেশনে সবরমতি এক্সপ্রেসের কয়েকটি কামরায় আগুন জ্বালিয়ে দিয়েছিল একদল দুষ্কৃতী। মৃত্যু হয় ৫৯ জন সাধু–সন্ন্যাসীর। তার পরই সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে গুজরাট। ২৮ ফেব্রুয়ারি মুসলিম অধ্যুষিত গুলবার্গ সোসাইটি আবাসনে হামলা চালিয়েছিল দুষ্কৃতীরা। তৎকালীন কংগ্রেস সাংসদ এহসান জাফরির স্ত্রী জাকিয়া জাফরির অভিযোগ, এহসানকে আততায়ীরা ঘর থেকে টেনে বের করে রাস্তায় কুপিয়ে আগুন লাগিয়ে দেন। কংগ্রেস নেতা–কর্মীরা সাহায্য চেয়ে থানায় বহুবার ফোন করলেও তা কেউ ওঠায়নি।
সই নৃশংস ঘটনার প্রেক্ষিতেই সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন জাকিয়া জাফরি৷ এবার গুজরাট দাঙ্গায় নরেন্দ্র মোদিকে ক্লিন চিট দেওয়ার বিরোধিতায় জাকিয়া জাফরির আবেদনের শুনানি হবে সুপ্রিম কোর্টে। সুপ্রিম কোর্টের নজরদারিতে হওয়া সিটের তদন্ত রিপোর্টে বলা হয়েছিল, তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী মোদি ২০১২ সালের দাঙ্গা রুখতে যাবতীয় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করেছিলেন। হাইকোর্ট তাঁর আবেদন খারিজ করার পর সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন জাকিয়া। আগামী সোমবার সেই আবেদনেরই শুনানি।
জাকিয়া ২০১৪ সালে সিটের রিপোর্টের বিরুদ্ধে গুজরাট হাই কোর্টে আবেদন করেছিলেন, ২০০২ সালের গুজরাট দাঙ্গায় গভীর চক্রান্ত হয়েছিল এবং হিংসা রোখার ব্যবস্থা নিয়ে চোখ বুজেছিলেন তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী মোদি। জাকিয়ার সঙ্গে যৌথভাবে আবেদন করেছিল সমাজকর্মী তিস্তা সেলভড় পরিচালিত স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন জাস্টিস ফর পিস। কিন্তু গতবছর হাই কোর্ট জাকিয়ার আবেদন খারিজ করে সিটের রিপোর্টকে বহাল রেখে রাজ্যের তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ক্লিন চিট দিয়েছিল।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 15
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~