ঘর গোছাক কংগ্রেস, পরামর্শ প্রধানমন্ত্রী মোদীর…..

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 15
    Shares

সামনে মধ্যপ্রদেশে বিধানসভা নির্বাচন। একইসময়ে রয়েছে আরও কয়েকটি রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন। তারপর ক্ষমতায় টিকে থাকার লড়াই লোকসভা নির্বাচন। তাই মঙ্গলবার মোদি–শাহ জুটি ঝাঁপিয়ে পড়ল মধ্যপ্রদেশে। সেখানের সমাবেশে দাঁড়িয়ে স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সরাসরি আক্রমণ শানিয়েছেন কংগ্রেসকে। তিনি বলেন, কংগ্রেস দেশের মধ্যে জোট করতে ব্যর্থ হয়েছেন বলেই ভারতের বাইরে গিয়ে সাহায্য চাইছে। কংগ্রেস দেশের কাছে বোঝা হয়ে দাঁড়িয়েছে। ভারতীয় জমসংঘের সহ–প্রতিষ্ঠাতা দীনদয়াল উপাধ্যায়ের জন্মবার্ষিকীতে ভোপালে আয়োজন করা হয়েছিল কার্যকর্তা মহাকুম্ভ সভা। সেখানে এই ভাষাতেই কংগ্রেসকে আক্রমণ করেছেন তিনি। এই সভা থেকে তিনি বলেন, ‘‌কংগ্রেস নেতাদের খোঁজ করে দেখতে হবে কেন তাঁদের দলের এমন অবস্থা। আমরা ১৯৮৪ সালে হেরে গিয়েছি, পরেও হেরেছি। কিন্তু কখনও ইভিএম মেশিনকে দায়ী করিনি। বরং দলের অন্দরে কারণ খুঁজেছি। সময় কংগ্রেসকে শাস্তি দেবে মধ্যপ্রদেশের উন্নয়নে অবহেলা করার জন্য। আমাকে কংগ্রেস অনেক গালাগাল দিয়েছে। অভিধানে এমন কোনও গালাগালি বাকি নেই যা আমাকে দেওয়া হয়নি। তারপরও আরও ভাল করে পদ্ম ফুটবে দেশে। নির্বাচনে হেরে গিয়ে কী কংগ্রেসের মাথা খারাপ হয়ে গিয়েছে?‌ নোংরা কাদা ছোঁড়াছুড়ির রাজনীতি যত করবেন তত ভাল করে পদ্ম ফুটবে।’‌
বিশেষজ্ঞরা প্রশ্ন তুলছেন রাজনৈতিকভাবে কি কংগ্রেসের সঙ্গে এঁটে উঠতে পারছে না বিজেপি?‌ রাফাল যুদ্ধবিমান দুর্নীতি ইস্যুতে কংগ্রেসের আক্রমণে কি ব্যাকফুটে যাচ্ছে বিজেপি?‌ মধ্যপ্রদেশের ভোপাল থেকে জাতীয় রাজনীতির অলিন্দে এখন এই প্রশ্নই উঠতে শুরু করেছে। কারণ সম্প্রতি রাফাল যুদ্ধবিমান চুক্তি নিয়ে ভারত সরকারকে বেকায়দায় ফেলেছে ফ্রান্সের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট। তারপর রাফাল নিয়ে কংগ্রেসের পাশে দাঁড়াতে দেখা গিয়েছে পাকিস্তানকে। তার জেরেই ক্ষেপে গিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তাই এদিন কংগ্রেসকে এভাবে আক্রমণ করেছেন তিনি বলে মনে করা হচ্ছে।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 15
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~