খবর ২৪ ঘন্টা

অসহিষ্ণুতার আরও এক নজির ~ মুসলিম, তাই মহাভারতে অভিনয় করতে পারবেন না আমির !!

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

ওয়েব ডেস্ক~ মহাভারত তাঁর ড্রিম প্রজেক্ট৷ তাও সেখানে তিনি অভিনয় করতে পারবেন না৷ এমনই দাবি ট্যুইটারের বাসিন্দাদের৷ নেটিজেনরা দাবি করেছেন মহাভারত সিনেমার প্রজেক্ট থেকে বাদ দিতে হবে অভিনেতা আমির খানকে৷ কারণ? তিনি মুসলিম৷

মহাভারতের উপর সিনেমা তৈরির পরিকল্পনা নিয়ে আমির নাকি অনেক দূর এগিয়েছেন। সিনেমাপ্রেমীরা আশা করছিলেন তাঁকে দেখা যাবে কৃষ্ণের ভূমিকায়। এই নিয়েই শুরু হয় বিতর্ক৷ ট্যুইটারে রীতিমতো ব্যঙ্গ বিদ্রূপের শিকার হতে হল এই অভিনেতাকে৷ শ্লেষ ঝরে পড়ল বিভিন্ন মহল থেকে। সেই নেটিজেনদের সমর্থন করে এবার এই ইস্যুতে সরব হলেন ফ্রাসোয়াঁ গতিয়ের নামে ভারতে বসবাসকারী এক ফরাসি সাংবাদিক।

শনিবার টুইট করে তিনি প্রশ্ন তুলেছেন, মহাভারতের মতো হিন্দুদের মহাকাব্যে কীভাবে অভিনয় করছেন আমিরের মতো মুসলিম অভিনেতা? ইসলামের কোনও ধর্মগুরুর ভূমিকায় যদি হিন্দু অভিনেতাকে দেখা যায়, তবে কি মুসলিমরা মেনে নেবেন? বলাই বাহুল্য, ফ্রাসোয়াঁ-র টুইট শুধু আর ফিল্মদুনিয়ায় আটকে নেই।


আর এখানেই প্রশ্ন উঠছে৷ ফ্রাসোয়াঁরা মদত পাচ্ছেন কোথা থেকে? শিল্পীর কোনও জাত হয় না, এই আপ্তবাক্য ভুললে চলবে না৷ আমির, শাহরুখ, সলমন—এই তিনজন এখনও পর্যন্ত বলিউডের বড় শক্তি। প্রশ্ন উঠছে, তবে কি ধর্মের ধুয়ো তুলে সেই শক্তিকে তছনছ করার চেষ্টা চলছে? তবে, আমিরের হয়ে মুখ খুলেছেন জাভেদ আখতার। তাঁর কথায়: ভারতে সাম্প্রদায়িক বিষ ছড়ানোর জন্য বিদেশের কোনও কোনও এজেন্সি হয়ত সক্রিয় হয়ে উঠেছে। এরা ভারত সম্পর্কে কিছুই জানেনা।

শিল্প-সাহিত্যে অসহিষ্ণুতার আঘাত ভারতে নতুন কিছু নয়। কালবুর্গির মতো লেখক, গৌরী লঙ্কেশের মতো সাংবাদিককে মারা হয়েছে গুলি করে। দেশের পরিস্থিতি নিয়ে মুখ খোলায় শাহরুখ খান কিংবা আমির খানদের আগেও পড়তে হয়েছিল গেরুয়া শিবিরের শাণিত বাক্যবাণের মুখে। তাত্পর্যপূর্ণ হল, আমিরকে যিনি টুইটে আক্রমণ করছেন, সেই ফ্রাসোয়াঁ আবার বিজেপি শিবিরের কাছের লোক বলে পরিচিত। হিন্দুত্বের প্রবক্তাও বটে। সেই ১৯৭১ সাল থেকেই তিনি ভারতে রয়েছেন।

শোনা যাচ্ছে, মহাভারত নিয়ে সিনেমা করতে খরচ হবে প্রায় এক হাজার কোটি টাকা। তবে ফ্রাসোয়াঁর টুইট নিয়ে আমির খানের তরফে কোনও মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...