খবর ২৪ ঘন্টা

জেনে নিন, ভারতের সবথেকে বিষাক্ত ও বিপদজনক সাপেদের সম্পর্কে…

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

ওয়েব ডেস্ক,নিজস্ব প্রতিনিধিঃ  আমরা জানি সাপ বা সর্প শুধু যে মা মনসার বাহন, তাই নয় বরং মনসা হলেন শিবের কন্যা, আর সেই জন্যই স্বয়ং শিবের থেকেই কন্যা হিসাবে তাঁর সর্প প্রাপ্তি। দেবাদিদেব মহাদেবকে আমরা যেমন সাপ ছাড়া কল্পনাই করতে পারি না। হলাহল পান করে যিনি নীলকন্ঠ হিসাবে পরিচিত, সেই ভগবান শিবের গলায় কন্ঠমালা সদৃশ আমরা তীব্র বিষধর সকল সর্পকে দেখতে পাই। আসুন আজ সোমবার ভগবান শিবের উপাসনায় আমরা তাঁরই অঙ্গে, ভগবান শিবের কন্ঠে জড়িয়ে থাকা এবং মা মনসার বাহন এই সাপের আবাসস্থল সম্পর্কে জানি।

ভারতের পশ্চিমঘাট পর্বতমালায় পাওয়া সাপের প্রজাতি—-

পশ্চিমঘাট পর্বতমালা ভারতীয় জীব বৈচিত্র্যের এক অসাধারণ বর্ণময় কাহিনী রচনা করেছে। ভারতে একমাত্র অবশিষ্ট রেনফরেস্ট হল এটি।ভারতের পশ্চিমঘাট পর্বতমালায় বিভিন্ন প্রজাতির সরীসৃপ, কীটপতঙ্গ, সম্যক জাতীয় কিছু প্রাণী এবং উভচর প্রাণীদের আবাসভূমি।পশ্চিঘাটে পাওয়া সর্প প্রজাতির প্রধান জনগোষ্ঠী পরিবারটি ইউরোপেলটাইডের অন্তর্গত। কিন্তু পশ্চিমাঘাট পর্বতমালা ভারতের সবচেয়ে বিষাক্ত সাপ এবং অবিষাক্ত সাপের বাসস্থান। কয়েকটি চা এবং কফি বাগান অঞ্চল এই সাপেদের আবাসস্থল এবং কেরালাতে পাওয়া পাঁচটি সর্বাপেক্ষা বিষাক্ত সাপগুলি হল ভারতীয় কোবরা, কিং কোবরা, রাসেল ভাইপার, শা স্কেলেড ভাইপার এবং ক্রেট বা করাত।

কিং কোবরা…

কিং কোবরা (ওফিওফ্যাগাস হানাহ্) হল বিশ্বের সবচেয়ে বড় বিষাক্ত সাপ এবং বেশিরভাগই পশ্চিমঘাটের অ্যাজুম্বে রেনফরেস্টে পাওয়া যায়।কর্ণাটক, কেরালা এবং তামিলনাডুর পশ্চিমঘাট বিষাক্ত কিং কোবরার বাসস্থল। এরা গভীর জঙ্গলে বসবাস করে এবং অন্য সব সাপের চেয়ে এদের কদর অনেক বেশি।

মালাবার পিট ভাইপার…

মালাবার পিট ভাইপার (ট্রাইমিরেসরাস ম্যাল্যাবেরিকাস) হল প্রচন্ড বিষাক্ত পিট ভাইপার প্রজাতির সর্প ,যা দক্ষিণপশ্চিম ভারতের পশ্চিমঘাট পর্বতমালায় দেখা যায়। মালাবার পিট ভাইপার নিশাচর, স্লথগতি সম্পন্ন সাপ এবং এদের সাধারনতঃ নদীর তীরবর্তী পাথুরে অঞ্চল বা গাছে দেখতে পাওয়া যায়।

হাম্প নোজড্ পিট ভাইপার…

হাম্প নোজড্ পিট ভাইপার (হিপ্নেল হিপ্নেল) একটি অত্যন্ত মারাত্মক বিষাক্ত প্রজাতির সাপ যা ভারতের পশ্চিমঘাট পর্বতগুলিতে পাওয়া যায়।এই প্রজাতির সাপগুলি নিশাচর, আক্রমণাত্মক এবং ভারতের পশ্চিমাঞ্চলীয় উপকূলের বিষাক্ত সাপের তালিকাভুক্ত।

ভারতীয় গ্রীন পিট ভাইপার…

 

ভারতীয় গ্রীন পিট ভাইপার বা বাঁশ পিট ভাইপার দক্ষিণ ভারতের বাঁশের বনে পাওয়া যায় কিন্তু পশ্চিমঘাটের হরিশচন্দ্রগদের কাছেও দেখা যায়।বাঁশ পিট ভিপার (ট্রাইমিরেসরাস গ্র্যামিনিয়াস) একটি একটি বিষাক্ত পিট ভাইপার প্রজাতির সাপ এবং এর কোন উপপ্রজাতি নেই।

হর্স সু পিট ভাইপার…

 

দক্ষিণ ভারতের পশ্চিমঘাট অঞ্চলে একে দেখতে পাওয়া যায় (ট্রাইমিরেসরাস স্ট্রিগেতাস)। হর্স সু পিট ভাইপারও অন্যতম বিষাক্ত পিট ভাইপার প্রজাতি এবং বর্তমানে এরও কোন উপপ্রজাতি মেলেনি।

বড় আঁশওলা পিট ভাইপার

বড় আঁশওলা পিট ভাইপার ( ট্রাইমেরেসরাস ম্যাক্রোলেপিস) বেশিরভাগই দক্ষিণাঞ্চলীয় পশ্চিমঘাট পর্বতের পালককাদ গ্যাপ পর্বতে পাওয়া যায়। পশ্চিমঘাটের অন্যতম বিষাক্ত প্রজাতির এই সাপটির কোন উপপ্রজাতি এখনো পাওয়া যায় নি।

ব্যান্ডেড কুকরী

প্রচলিত কুকরী (অলিগোদন আর্নেন্সিস) বা ব্যান্ডেড কুকরি সাপ ভারতীয় উপমহাদেশে পাওয়া যায় এবং এগুলি বিষাক্ত নয়। কুকরী সাপগুলির ছুরি আকৃতির দাঁত বিশিষ্ট এবং বক্রস ব্যান্ড ও চরিত্রগত পার্থক্যগুলির জন্য চিহ্নিত করা সহজ।

গ্রীন ভাইন স্নেক

গ্রীন ভাইন স্নেক (অহিটুল্লা নাসুটা ) ভারতে পাওয়া স্বল্প বিষধর বৃক্ষের সাপ এবং এমন একটি সর্প প্রজাতি যা সরাসরি তার সন্তানের জন্ম দিতে সক্ষম।পশ্চিমঘাটের এই সাপটি পশ্চিঘাটের বনভূমিতে সহজেই দেখতে পাওয়া যায়।

মন্টেন ত্রিঙ্কেন স্নেক

মন্টেন ত্রিঙ্কেন সর্প প্রজাতি কোলুব্রিডের বিষহীন প্রজাতির সাপ , যা শ্রীলঙ্কা ও দক্ষিণ ভারতে পাওয়া যায়। ত্রিঙ্কেন সর্প প্রজাতি সাধারণত আক্রমনাত্মক এবং মন্টেন ত্রিঙ্কেন পশ্চিমঘাটের স্থানীয় সাপ।

ওয়েয়ানাড কেলব্যাক

ওয়েয়ানাদ কেলব্যাক (আমফিজমা মন্টিকোলা) হল একটি নিরীহ কোলুব্রিড সাপ, যা পশ্চিম ঘাটের কোডাগু ও ওয়েয়ানাদ অঞ্চলে পাওয়া যায়। এই বিষহীন সাপটির লালচে মাথা এবং বড় চোখ আছে।

ত্রাভাঙ্কোর উলফ স্নেক

ত্রিভঙ্কর উলফ স্নেক (লাইকোডন ট্রাভানকোরিকাস) বেশিরভাগই দক্ষিণ ভারতের অন্ধ্র প্রদেশ, তামিলনাড়ু এবং কেরালায় পাওয়া যায়। এই সাপের গাঢ় বাদামী গাত্র বর্ণের ওপর হলুদ ব্যান্ড রয়েছে।

বেডডোমের ক্যাট স্নেক

বেডডোমের ক্যাট স্নেক (বোইগা বেডডোমি) হল একটি কলুব্রিড প্রজাতির সর্প, যা মহারাষ্ট্রের পশ্চিম অঞ্চলে এবং শ্রীলঙ্কায় পাওয়া যায়। এই সাপগুলি স্বল্প বিষাক্ত, বৃক্ষবাসী এবং নিশাচর প্রকৃতির।

খাইরের কালো শিল্ডটেল

ভারতের পশ্চিমাঞ্চলীয় ঘাটগুলিতে খাইরের কালো শিল্ডটেল (মেলনোফিডিয়াম খাইরেই ) নামে একটি নতুন প্রজাতি আবিষ্কৃত হয়েছে। এই নতুন সর্প প্রজাতিটি ইউরপেলটাইডের পরিবারের অন্তর্গত এবং প্রায়শই ভূগর্ভে বসবাস করে।144 বছর পরে নতুন এটি কোন প্রজাতির সর্পের আবিষ্কার।

গিরির ব্রোঞ্জব্যাক ট্রি সাপ

গিরির ব্রোঞ্জব্যাক ট্রি সাপ (ডেন্ড্রেলাফিস গিরি) ব্রোঞ্জব্যাক ট্রি সাপের একটি নতুন প্রজাতি যা ভারতের পশ্চিমঘাটের দক্ষিণাংশে পাওয়া যায়।এটি প্রথমে অাম্বোলি গ্রামে পাওয়া যায়। এর গায়ে একটি কালো রঙের স্ট্রাইপ রয়েছে।

ভারতীয় র‍্যাট স্নেক

ভারতীয় র‍্যাট স্নেক (পটিয়া মুকোসা) বিষহীন কোলুব্রিড সর্পের একটি নিরীহ প্রজাতি যা সমগ্র ভারত এবং দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায় পাওয়া যায়। বিষহীন এই সাপটি অতি দ্রুত চলাচল করে এবং ভারতের পশ্চিমঘাটের কিং কোবরার অতি প্রিয় খাবার।

ভারতীয় রক পাইথন

ভারতীয় রক পাইথন (পাইথন মোলুরাস) ভারতবর্ষের বিস্তৃত এলাকার মধ্যে পাওয়া যায়, যার মধ্যে রয়েছে পাথুরে অঞ্চল, ঘাসজমি, রেনফরেস্ট। সাপটি হলুদ এবং কালো রঙের এবং বিষহীন।

ভারতীয় কোবরা

ভারতীয় কোবরা (নাজা নাজা) ভারতীয় উপমহাদেশে পাওয়া সবচেয়ে বিপজ্জনক সাপ।পালনি পাহাড়, কেরালার রেনফরেস্ট, পশ্চিম ঘাটের চা এবং কফির চাষ আবাদের জায়গা কোবরার সুপরিচিত আবাসস্থল।

রাসেল ভাইপার

ভারতের সমস্ত উপমহাদেশ জুড়ে রাসেল ভাইপার (ডাবোয়িয়া রাশেলী) পাওয়া যায় এবং ভারতের চারটি সর্বাধিক বিষাক্ত সাপের একটি এটি। এটি অত্যন্ত আক্রমনাত্মক এবং ভারতে সবচেয়ে বেশি সর্প কামড়ের ঘটনা ঘটার জন্য দায়ী।

সও স্কেলড্ ভাইপার

সও স্কেলড্ ভাইপারকে ডেথ ভাইপার নামেও ডাকা হয় (ইচিস কারিনাটাস)। ভারতে পাওয়া সর্বাধিক ক্ষুদ্রতম সাপের প্রজাতির একটি সদস্য এবং সর্পের সর্বাধিক কামড়ে মৃত্যু ঘটানোর জন্য দায়ী। ভারতের শুষ্ক অঞ্চলে একে দেখতে পাওয়া যায় এমন স্ফাবিক ভিপার কিন্তু কিছু সময় মহারাষ্ট্রের পশ্চিমে পাহাড়ী এলাকায় একে দেখা যায়।

ভারতীয় ক্রেট ( করেত)

প্রচলিত ভারতীয় ক্রেট (বুঙ্গেরাস কেরুলিয়াস) ভারতে সবচেয়ে বিষাক্ত সাপ। ভারতীয় ক্রেট ভারতে পাওয়া প্রথম পাঁচটি শীর্ষস্থানীয় বিষধর সাপের মধ্যে অন্যতম। ভারতীয় কোবরা, কিং কোবরা, রাসেল ভাইপার এবং সও স্কেলড্ ভাইপার হল অন্যান্য তীব্র বিষধর সর্প।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...