দেশে ধর্মের সাথে মিশেছে রাজনীতি, পরিস্থিতি উদ্বেগজনক: শোভনদেব

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 9
    Shares

‘‌‌আমাদের দেশে ধর্মকে রাজনৈতিক প্রাঙ্গণে দাঁড় করানোর চেষ্টা হচ্ছে। মনে রাখবেন, ধর্মের প্রথম স্থান হচ্ছে হৃদয়ে, দ্বিতীয় স্থান হচ্ছে ধর্মস্থানে। এর বাইরে যখনই আমরা ধর্মকে টেনে আনার চেষ্টা করি, তখনই ধর্মকে কলঙ্কিত করা হয়। শ্রদ্ধা জানানো হয় না। তাই এটা বুঝে ধর্মকে ব্যবহার করা উচিত।’‌ এমনই মন্তব্য রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের৷ বৃহস্পতিবার বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয় কর্মচারী সমিতির উদ্যোগে একটি রক্তদান শিবির ও প্রীতি সম্মেলনে যোগ দিতে আসেন তিনি। অনুষ্ঠানের সূচনা করে মন্ত্রী বলেন, ‘‌সাম্প্রতিককালে নানান ধরনের সমস্যার কারণেই আমি নতুন করে আবার কোরান, বাইবেল, গীতা পড়লাম। সেখানে কোনও ধর্মকে বা কোনও ধর্মের মানুষকে অসম্মান, অশ্রদ্ধা করার কথা লেখা নেই। ধর্মগ্রন্থগুলিতে অনেক কথাই লেখা আছে। কিন্তু তার মধ্যে দুটি খুবই উল্লেখযোগ্য—একটি হচ্ছে, নিজেকে অনেক উন্নত মনের মানুষ হিসেবে তৈরি করতে হবে। এই উপদেশ সব ধর্মে আছে। আর দ্বিতীয় কথা যেটা আছে সেটা হচ্ছে যে, ওই শক্তির কাছে সমর্পণ করো। যে শক্তিতে একজন হিন্দু বিশ্বাস করেন, মুসলিম বিশ্বাস করেন ও খ্রিস্টান বিশ্বাস করেন। ওই শক্তির কাছে সমর্পণ করো নিজেকে। এই দুটি কথা আমি খুব ভাল করে পড়ে বুঝতে পেরেছি। ‌আমি মনে করি প্রত্যেকটি ধর্মের মানুষকে তার নিজের ধর্মের প্রতি বিশ্বাস এবং নিজের ধর্মের প্রতি অহঙ্কার ও গর্ব থাকা উচিত। যখনই সেই অহঙ্কার বা গর্ব তার মধ্যে থাকবে তখন সে আর অন্যায়ের পথে পা বাড়াবে না, ধর্মান্ধতার পথে পা বাড়াবে না।’ অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে ছিলেন বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নিমাইচন্দ্র সাহা, জেলা পরিষদের সদস্য উত্তম সেনগুপ্ত ও বর্ধমান পুরসভার প্রাক্তন কাউন্সিলরা।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 9
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~