কংগ্রেসের গড়েই কংগ্রেসের বিরুদ্ধে সরব মোদি

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 4
    Shares

বিজেপির কোনও কুয়াত্রোচি মামা এবং মিশেল আঙ্কেল নেই বলেই কী বিজেপির যাবতীয় অস্ত্র কেনার চুক্তি দুর্নীতিতে ভরা?‌ শীর্ষ আদালতে রাফালে নিয়ে ক্লিনচিট পাওয়ার পরে কংগ্রেসের অস্ত্র কেলেঙ্কারি নিয়ে এই প্রথম প্রকাশ্যে সরব হলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। রায়বরেলিতে গিয়ে লোকাল ট্রেনের কোচ ফ্যাক্টরির উদ্বোধনে গিয়ে কংগ্রেসের বিরুদ্ধে সরব হলেন মোদি। মোদি কংগ্রেসকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন কুয়াত্রোচি ইটালির নাগরিক ছিলেন বলেই বোফর্স কেলেঙ্কারিতে মিডলম্যানের কাজ করেছিলেন। কারণ প্রাক্তন প্রয়াত রাজীব গান্ধীর স্ত্রী সোনিয়া গান্ধীও ইটালির নাগরিক। ঠিক তেমনই অগস্টা ওয়েস্টল্যান্ড চুক্তির ক্ষেত্রেও মিডিলম্যানের কাজ করেছিলেন ক্রিশ্চান মিশেল। বোফর্স দুর্নীতি তদন্তের জন্য সৌদি আরব থেকে ভারতে আনা হয়েছে তাকে। আইন এবং বিচারব্যবস্থার প্রতি বিশ্বাসহীনতা তৈরি করে দিয়েছে কংগ্রেসই অভিযোগ করেছেন মোদি। তবে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন হিন্দি বলয়ের তিন রাজ্যে বিজেপির বিপুল হারের পর কংগ্রেসকে আক্রমণ করার নতুন কোনও অস্ত্র হাতে নেই মোদির সেকারণ এই ভিত্তিহীন বিষয় নিয়ে সরব হচ্ছেন তিনি।

এদিন তিনি আরও বলেন, রায়বরেলির অনুন্নয়নের জন্য নাকি কংগ্রেসই দায়ী। উত্তর প্রদেশের এই লোকসভা কেন্দ্রটি বরাবরই কংগ্রেসে জিতে এসেছে। এই কেন্দ্রটি সোনিয়া গান্ধীর গড় বলেই পরিচিত। সেখানে দাঁড়িয়ে অনুন্নয়নকেই হাতিয়ার করলেন মোদি। কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে মোদি ভুলে গেলেন কেন্দ্র থেকে রাজ্য সর্বত্র কিন্তু শাসকের আসনে রয়েছে বিজেপি। কাজেই উন্নয়ন এবং অনুন্নয়ন দু’‌টি বিষয়ই শাসকের উপর নির্ভর করছে। সেসব যুক্তির অবশ্য ধার ধারেন না মোদি। চাঁচাছোলা ভাষায় কংগ্রেসকে আক্রমণ করে কংগ্রেসের আমলে ঘটা একাধিক অস্ত্র দুর্নীতি নিয়ে।

এরপর তাঁর প্রয়াগরাজ যাওয়ার কথা। এলাহাবাদের নাম বদলে হয়েছে প্রয়াগরাজ। এবার সেখানে বসছে কুম্ভমেলার আসর। তার প্রস্তুতি কেমন সেটাই দেখবেন প্রধানমন্ত্রী। এর আগে বৃহস্পতিবার রায়বেরালী যান যোগী আদিত্যনাথ। প্রধানমন্ত্রীরর সফরের আগে সমস্ত ব্যবস্থা খতিয়ে দেখেন তিনি। স্থানীয় রেল কোচ ফ্যাক্টারিতেও যান যোগী। ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটের আগে বিজেপির সংগঠনকে মজবুত করাই মোদীর সফরের লক্ষ্য বলে মনে করা হচ্ছে। তবে এই সফরের সঙ্গে পাঁচ রাজ্যের ফলাফলের কোনও সম্পর্ক দেখছে না বিজেপি। ১১ ডিসেম্বর পাঁচ রাজ্যের ফলাফল প্রকাশিত হয়। তাতে বিজেপির ফল খুব একটা আশাপ্রদ হয়নি। কিন্তু তাঁর আগেই এই সফর চূড়ান্ত হয়ে গিয়েছিল বলা জানা গিয়েছে।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 4
    Shares

খবর ২৪ ঘন্টা

খবর এক নজরে…

No comments found