খবর ২৪ ঘন্টা

চিকিৎসাজগতে নতুন ‘বিপ্লব’ ঘটাতে চলেছে সন্জ্ঞীবন সুপারস্পেশালিটি হাসপাতাল

ছবি সৌজন্য :- অনুষ্টুপ ভট্টাচার্য

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

হাওড়ার ফুলেশ্বরে দেড় মেগাওয়াট উৎপাদন ক্ষমতাসম্পন্ন হাসপাতালের নিজস্ব বিদ‍্যুৎকেন্দ্র চালু করে বিদ্যুতের চাহিদা মেটানো হোক কিংবা উৎপাদন প্রক্রিয়াজাত গ্যাস ব্যবহার করে শীতাতপ নিয়ন্ত্রণের খরচ কমানো,রোগী পরিষেবা সবক্ষেত্রেই ইতিমধ্যেই এক নিজস্বতার ছাপ রেখেছে সন্জ্ঞীবন সুপারস্পেশালিটি হাসপাতাল। সেই বাড়তি সঞ্চয়ের লভ্যাংশ দিয়ে রোগীদের বাজারচলতি দরের চেয়ে কম খরচে আন্তর্জাতিক মানের চিকিৎসা পরিষেবা পৌঁছে দিয়ে আগেই চিকিৎসাক্ষেত্রে এক  নয়া অধ‍্যায় সৃষ্টি করেছে সঞ্জীবন হাসপাতাল।

এবার সেই সঞ্জীবন হাসপাতাল আবার নতুন করে পথ চলা শুরু করল। সন্জ্ঞীবন সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল গাঁটছড়া বাঁধল মালয়েশিয়ার লিনকন বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে।চিকিৎসা জগতে সঠিক মূল‍্যে বিশ্বমানের পরিষেবা পৌঁছে দিয়ে বিপ্লব আনতে সন্জ্ঞীবন সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের এক অনন‍্য পদক্ষেপ। শিক্ষা ও স্বাস্থ্যের এক অপরুপ মেলবন্ধনের ছবি তারা তুলে ধরল সম্প্রতি তাদের আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে।

মালয়েশিয়ার ‘লিঙ্কন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ’এর সহযোগিতায় হাওড়ার ফুলেশ্বরে অবস্থিত ‘সঞ্জীবন হাসপাতালে  শুরু হতে চলেছে ৫ বছরের এম ডি পাঠক্রম। সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে ভর্তি প্রক্রিয়া। অক্টোবর মাস থেকে শুরু হবে পঠনপাঠনের কাজ।
প্রথমে ৬০ জন ছাত্রছাত্রীকে ভর্তি নেওয়া হবে, প্রথমদফায় সব আসন ভর্তি  হয়ে গেলে আরো ৪০ টা আসনে ছাত্রছাত্রী ভর্তি নেওয়া হবে।
ছাত্রছাত্রীর ভর্তির পর তাদের নিয়ে কলেজের শিক্ষকমণ্ডলী মালয়েশিয়ায় যাবেন,প্রাথমিক পরিচিতি করানোর জন্য।
পরবর্তীকালে ভারতে এবং মালয়েশিয়া দুজায়গাতে পড়াশোনার মধ‍্য দিয়ে ছাত্র ছাত্রীদের পঠনপাঠন পূর্ণতা লাভ করবে।

ছবি সৌজন্য :- অনুষ্টুপ ভট্টাচার্য

শ্রী শুভাশিস মিত্র  জানান “নিট পরীক্ষার মাধ্যমে উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীরাই এখানে শিক্ষালাভের জন্য আবেদন করতে পারবেন।৫বছরের এই শিক্ষাক্রমের প্রবেশ মূল্য ১৫লক্ষ টাকা। এছাড়াও প্রতি বছর ৭.৫ লাখ টাকা করে ৫ বছরে লাগবে।যা মালয়েশিয়াতে এই একই কোর্স ফি’র মাত্র ৫০%। মালয়েশিয়ার এম ডি ডিগ্রিই ভারতের এমবিবিএস-এর সমতুল। ডঃ:মৈত্র আর ও জানান “লিঙ্কন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ’ থেকে এম ডি ডিগ্রি পাওয়ার পর লাইসেন্স পাওয়ার জন্য পরীক্ষা দিয়ে ছাত্রছাত্রীরা ভারত ও বিদেশে চিকিৎসা করার ছাড়পত্র পাবেন। সফল চিকিৎসকেরা ‘সঞ্জীবন হাসপাতালে’ ইন্টার্ণশীপ পরে অন‍্য হাসপাতালে ও কর্মে নিয়োজিত হতে পারবেন।”

দুই সাংসদ ছাড়াও আজকের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন  নায়িকা ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, চরিত্রাভিনেত্রী শ্রীতমা মুখার্জি ও চরিত্রাভিনেতা ভাস্বর চ্যাটার্জি এবং বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী,সাংসদ দোলা সেন,শিল্পী যোগেন চৌধুরী, চলচ্চিত্র পরিচালক রাজা সেন।

এই মুহূর্তে পশ্চিমবঙ্গের জনসংখ্যার অনুপাতে চিকিৎসক ও সেবিকার সংখ্যা উল্লেখযোগ্য রূপে কম । এই সংখ্যাটাকে বাড়িয়ে তোলার জন্যই এই বিরল পদক্ষেপ নিয়েছে ‘সঞ্জীবন হাসপাতাল’।সঞ্জীবন হাসপাতালের কর্ণধার ড:সুভাষ মিত্র বলেন “রাজ্যকে কৃতী চিকিৎসক দেওয়াই আমাদের লক্ষ্য। সেই লক্ষ্যেই আমাদের এই একসঙ্গে পথ চলার সিদ্ধান্ত”।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...