ইচ্ছামৃত্যু এবার হাতের মুঠোয় ~ আত্মহত্যার সহজ ও ব্যাথাবিহীন মেশিন “Sarco” আনল অস্ট্রেলিয়ান সংস্থা

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 683
    Shares

স্বেচ্ছা মৃত্যু কথাটা মহাভারতের যুগ থেকে চলে আসছে| পিতামহ ভীষ্ম ছিলেন সেই স্বেচ্ছা মৃত্যুর  অধিকারী| এরপর বিবর্তনের যুগে অনেক মুনি ঋষিরাই নিজেদের এর
দাবিদার বলে ঘোষণা করতেন| শুধু তাই নয়| শোনা যায় অনেকে তো   লোক সমুক্ষে স্বেচ্ছামৃত্যু বরণ করে স্বর্গলাভ করেছেন আবার পুনর্জন্ম ও নিয়েছেন| যদিও বিষয়টি বিতর্কিত তা সত্ত্বেও কিন্তু এই ধারনার উপর ভিত্তি করেই একবিংশ শতাব্দীর মানুষের সামনে আস্তে চলেছে স্বেচ্ছামৃত্যু বরণের
মেশিন| যাকে সহায়ক মৃত্যু যন্ত্র (Assisted Suicide Meshine) ও বলা যেতে পারে| চমকে গেলেন তো ? চমকাবেন না | এই আধুনিক যুগে যদি সব কিছুই মেশিন পরিচালিত হতে
পারে তবে এটা কেন নয়| এমনটাই দাবি করেছে এক্সিট ইন্টারন্যাশনাল বলে একটি সংস্থা যার কর্ণধার অস্ট্রেলিয়ার ডাক্তার ফিলিপ নিৎসেচকে| (Philip Nitschke)| এই
সংস্থার তৈরি মেশিন সার্কো (Sarco) প্রযুক্তিগত বিস্ময়ের একটি আধুনিকতম সংস্করণ| এই বিষয়ে আরো জানতে চোখ রাখুন আমাদের পাতায় |

সার্কোর উদ্ভাবক এক্সিট ইন্টারন্যাশনাল  মানুষের স্বেচ্ছামৃত্যু র সহায়ক সংস্থা বলে নিজেদের গড়ে তুলেছে| এদের নতুনতম সংযোজন এই সার্কো| সংস্থার কথা অনুযায়ী এই
যন্ত্রটির মধ্যে আছে একটি ভীত বা Base যার উপরে আছে মানুষের সমান উপযোগী একটি স্বচ্ছ ঘুমন্ত কক্ষ | ব্যাবহারকারি কক্ষের মধ্যে প্রবেশ করে একটি বোতাম টিপলেই
তরল নাইট্রোজেন  কক্ষের মধ্যে ছড়িয়ে পড়তে থাকবে যা প্রকৃতপক্ষে অক্সিজেনের মাত্রা স্বাভাবিকের থেকে অন্তত ৫ গুন্ কমিয়ে দেবে| কিছুক্ষনের  মধ্যেই ব্যবহারকারী জ্ঞান হারিয়ে ফেলবে এবং কোনোরকম যন্ত্রনা ছাড়াই আস্তে আস্তে
মৃত্যুর করে ঢলে পড়বে | মৃত্যুর পরে এই কক্ষটি ই কফিন হিসেবে ব্যবহার করা যাবে এবং এটি পুনর্ব্যবহারযোগ্য|
Image result for sarco suicide chamber

সংবাদ মাধ্যম সূত্রে জানা যায় যে যন্ত্রটি 3D প্রিন্টেড, এবং এর বিভিন্ন অংশ যে কোনো জায়গায় একসাথে করে যন্ত্রটি বানানো যায়| আরো জানা যায় যন্ত্র তৈরির প্রতিচিত্রটি (Blue Print) বিনামূল্যে ইন্টারনেটের মাধ্যমে পাওয়া যায়|
ব্যবহারকারীকে শুধু একটা পরীক্ষা দিতে হয়| তাদেরকে একটা মানসিক প্রশ্নপত্রের (Mental Questionnaire)  উত্তর দিতে হয়| যদি তারা এই পরীক্ষাটি পাস্ করেন তাহলে
তাদেরকে ৪টেসংখ্যার একটি সংকেত পদ্ধতি (Code) দেওয়া হয় যা এই যন্ত্রের ক্যাপসুল দরজাটি উন্মুক্ত করতে  সাহায্য করে|

সংবাদ সূত্রে আরো জানা যায় সুইজারল্যান্ড  এর কিছু বেসরকারি চিকিৎসালয় এই যন্ত্রটি ব্যবহারের লাইসেন্স পাবার জন্য আগ্রহ দেখিয়েছে| পৃথিবীর আরো কিছু কিছু জায়গা থেকে এই যন্ত্রটি পাবার জন্য আবেদন করেছে| নতুন ভিক্টোরিয়া আইন অনুযায়ী
বেলজিয়াম, কানাডা, কলোমবিয়া এবং নেদারল্যান্ডে স্বেচ্ছামৃত্যু সহায়তাকে আইনসিদ্ধ করা হয়েছে| আমেরিকায় শুধুমাত্র ভীষণভাবে অসুস্থ ব্যক্তি ই এই উপায়টি বেছে নিতে পারেন| আবার কিছু কিছু জায়গায় তো অন্তত দু জন ডাক্তার এর দ্বারা
বিষয়টি যাচাই করার আদেশ রয়েছে| ক্যালিফোর্নিয়া, কোলেরাডো, ওরেগন, ভারমন্ট এবং ওয়াশিংটনের মতো জায়গায় মর্যাদার সাথে মৃত্যুর  অধিকারকে স্বীকৃতি দিয়েছে| ২০১৬
সালে ৬৯ শতাংশ আমেরিকার মানুষেরা বলেছেন যে ডাক্তারদের উচিত অসুস্থ রুগীদের যন্ত্রণাহীন মৃত্যু বরণ করতে দেওয়া| এই বছর সেই সংখ্যাটি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭৩ শতাংশ|
Image result for sarco suicide chamber

অধিকর্তা ফিলিপ নিৎসেচকে এর মতে সত্তরোর্ধ্ব যে কোনো মানুষের ই সহায়ক মৃত্যু নাগরিক অধিকার হওয়া উচিত| আরো বলেছেন মানুষের জীবনের সবথেকে বড় এই সিদ্ধান্তটি
মানুষের হাতেই থাকা উচিত| 
কিন্তু কি জানেন জীবনটা ভীষণ সুন্দর| এই একটা জীবনেই মানুষের কত কি করার কত কি পাওয়ার  থাকে| শুধু নিজের জন্য নয় অন্যের জন্য ও বাঁচার সুযোগ থাকে আর সেটা যে
কতটা আনন্দের সেটা বোধহয় বলে বোঝানো যাবে না| যারা এই অনুভূতিটা উপলব্ধি করেছেন , শুধুমাত্র তারাই এর ব্যাখ্যা দিতে পারবেন| এটা সত্যি জীবনে বেঁচে থাকাটা যখন
অসহনীয় হয়ে পরে তখন অনেক মানুষই  মৃত্যুর পথ বেছে নেয়| কিন্তু সেটা কখনোই কাম্য নয়| সকলে সুস্থ সুন্দরভাবে বেঁচে থেকে জীবনকে উপভোগ করুক সেটাই একমাত্র কাম্য
এবং পাথেয়|

দেখে নিন এই নিঃশব্দ আত্মহত্যা যন্ত্র, Sarco Capsule সম্পর্কিত ভিডিওটি 

https://www.youtube.com/watch?v=4pbcEoy6KNQ

 
Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 683
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.