অসহিষ্ণুতা ইস্যুতে ফের বিতর্কে নাসিরুদ্দিন শাহ

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 19
    Shares

এদেশে ধর্মের নামে হিংসার দেওয়াল তুলে দেওয়া হয়েছে। এরপর যাঁরাই এই অবিচারের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলছে, তাঁদের শাস্তি দেওয়া হচ্ছে। ফের বিতর্কিত মন্তব্য বলিউড অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহ–র। এবার অ্যামনেষ্টি ইন্ডিয়ার ভিডিওতে বিতর্কিত মন্তব্য করে বসলেন তিনি। ২ মিনিট ১৪ সেকেণ্ডের ভিডিওটিতে নাসিরুদ্দিন বলেন, ‘সংবিধান গৃহীত হওয়ার পর থেকে তার একমাত্র লক্ষ্য ছিল, ভারতের প্রতিটি মানুষকে সামাজিক, আর্থিক ও রাজনৈতিক ন্যায়বিচার দেওয়া। সকলে যেন ভাবনা, মতপ্রকাশ, বিশ্বাস এবং ধর্মীয় আচার–আচরণের স্বাধীনতা পান সেটাও দেখা। কিন্তু এখন যাঁরাই অধিকারের দাবিতে সরব, তাঁদের জেলে পুরে দেওয়া হচ্ছে। শিল্পী, অভিনেতা, গবেষক, কবি–সকলকে দমিয়ে দেওয়া হচ্ছে। সাংবাদিকদেরও থামিয়ে দেওয়া হচ্ছে। গোটা দেশে এখন তীব্র হিংসা এবং নৃশংসতার বাতাবরণ।’‌ ভিডিওতে একেবারে শেষে নাসির বলেন, ‘‌একসময় যে দেশে আইন ছিল, সেখানে এখন শুধুই অন্ধকার।’‌স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাগুলিকে বন্ধ করে দেওয়ার জন্য কেন্দ্রকে একহাত নিয়ে নাসিরুদ্দিন বলেন, তিনি প্রশ্ন তোলেন, ‘‌এরকম একটা দেশেরই কি স্বপ্ন আমরা দেখেছিলাম যেখানে বিরোধী মত পোষণের করা যাবে না?‌’ কয়েকদিন আগেই নাসির বলেছিলেন, এ দেশের নিজের সন্তানদের ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তিত তিনি। কারণ তাঁদের কোনও নির্দিষ্ট ধর্মপরিচয় নেই। সেই মন্তব্যের জেরেই প্রবল সমালোচিত হন নাসির। দেশ জুড়ে ওঠে বিতর্কের ঝড়। প্রসঙ্গত, ভীমা–কোরেগাঁও অশান্তির চক্রী হিসেবে ভারভারা রাও, অরুণ ফেরেইরা, সুধা ভরদ্বাজ, ভার্নন গনসালভেজদের গ্রেপ্তারি দেশজুড়ে ঝড় তুলেছিল। নাসিরের মন্তব্যে সে ঘটনারই ইঙ্গিত, তা স্পষ্ট।

Facebook Comments


শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 19
    Shares

খবর ২৪ ঘন্টা

খবর এক নজরে…

No comments found