খবর ২৪ ঘন্টা

রুদ্ধশ্বাস ম‍্যাচে ২-২ ফলে ড্র মরসুমের প্রথম কলকাতা ডার্বি….

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

মোহনবাগান :- ২

(পিন্টু মাহাতা,হেনরি কিসেক্কা)

ইস্টবেঙ্গল :- ২

(জনি অ‍্যাকোস্টা,লালমাওইয়া)

মরসুমের প্রথম ডার্বি।ফলে উত্তাপ, উত্তেজনা ছিলই।ম‍্যাচের আগেই টিকিটের চাহিদা বুঝিয়ে দিয়েছিল পারদ ক্রমশ চড়ছে। সদ‍্য বিশ্বকাপ খেলা কোস্টারিকার বিশ্বকাপার ডিফেন্ডার জনি অ‍্যাকোস্টার উপস্থিতি ম‍্যাচে অন‍্যমাত্রা যোগ করেছিল। একদিকে একটা দলের সামনে হাতছানি ছিল ২ বছরের ডার্বি জয়ের খরা কাটিয়ে পরপর ৯ বার কলকাতা লিগ জয়ের দিকে এগিয়ে যাওয়া,আর অন‍্যদলের সামনে চ‍্যালেন্জ্ঞ ছিল সেই বিজয়রথকে থামানো। ম‍্যাচের শুরু থেকেই মোহনবাগানের মিডফিল্ডের জন‍্য ম‍্যাচে মোহনবাগান দখল নিতে শুরু করে। ১৯ মিনিটে পিন্টু মাহাতোর জমি ঘেঁষা ভলিতে রক্ষিত বাড়ার পরাস্ত হতেই ১-০ গোলে এগিয়ে যায় শঙ্করলালের ছেলেরা। ২৯ মিনিটে হেনরি কিসেক্কার ডান পায়ের শট রক্ষিত ডাগারের বা হাতের তলা দিয়ে জালে জড়িয়ে গেলে ২-০ গোলে এগিয়ে যান ম‍্যারিনার্সরা। যখন মনে হচ্ছিল বিরতিতে ২-০ এগিয়ে থেকেই ড্রেসিংরুমে ফিরবে মোহনবাগান। ঠিক তখনই মোহন গোলরক্ষক এবং এই ম‍্যাচের অধিনায়ক শিলটন পালের ভুলে ফিরতি বল জনি অ‍্যাকোস্টার মাথায় লেগে জালে জড়িয়ে গেলে ৪৫+১’ মিনিটে ব‍্যবধান কমায় লাল-হলুদ। বিরতিতে স্কোরলাইন ছিল ২-১।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে চাপ বাড়ায় ইস্টবেঙ্গল। ৬১ মিনিটে লালমাওইয়ার গোলে ২-২ করে ম‍্যাচে সমতা ফেরায় লাল হলুদ।এরপর দুদল আক্রমনের ঝাঁঝ বাড়ালেও কেউ গোলের মুখ খুলতে পারেননি ম‍্যাচ শেষ হয় ২-২ স্কোরলাইনেই। ফলে দুদলেরই পয়েন্ট দাঁড়ালো ২০।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...