রেশন নেই, চাইনিজ খাচ্ছেন রাজ্যের আদিবাসীরা!

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 48
    Shares

রাজ্য সরকারের ভাঁড়ারে রেশন নেই৷ উত্তরাখণ্ডের কুমায়ুনের হাল এমনই৷ তাই কুমায়ুন প্রদেশের সীমান্তবর্তী কিছু আদিবাসী গ্রামে ঠিকমতো রেশন দিচ্ছে না সরকার। ফলে নেপাল থেকে চিনা খাবার কিনে খেতে হচ্ছে তাঁদের।
সরকারের পক্ষ থেকে প্রতিমাসে গ্রামের প্রতিটি পরিবারকে ৫ কেজি আটা এবং ২ কেজি করে চাল দেওয়া হয়। কিন্তু সেটা প্রয়োজনের তুলনায় অনেকটাই কম। বহুবার রাজ্য সরকারের কাছে রেশনের পরিমাণ বাড়ানোর দাবি জানানো হয়েছে৷ কারণ গ্রামের মাটিতে ঠিকমতো আটা বা ধানের ফসল হয় না। তাই গ্রামবাসীকে রাজ্য সরকারের দিকে চেয়ে বসে থাকতে হয় বলে অভিযোগ গ্রামবাসীদের৷
তাঁরা জানিয়েছেন, রেশনের পরিমাণ একেই তো অল্প, তার ওপর নির্দিষ্ট সময়েও তা পাওয়া যায় না। গ্রামবাসীরা বর্ষার আগে তাঁদের শেষ রেশন পেয়েছিলেন। জানা গিয়েছে, ৪৯ কিমি মাঙ্গতি থেকে গুঞ্জির রাস্তা গত ছ’‌মাস ধরে মেরামত হওয়ার ফলে এ বছর গ্রামবাসীদের কাছে রেশন ঠিকমতো পৌঁছাতে পারে নি।
ধারচুলার জেলা শাসক জানিয়েছেন, ৭২.‌৫ কুইন্টাল রেশন বৈস্য উপত্যকার গ্রামবাসীদের হেলিকপ্টারে করে দেওয়া হয়েছিল। সেটা বর্ষার আগে। গ্রামবাসারা অক্টোবর, নভেম্বর এবং ডিসেম্বরের রেশন এখনও পায়।’‌
আদিবাসী নেতা কৃষ্ণা গারবিয়াল বলেন, ‘‌আমাদের প্রয়োজন অনুযায়ী রাজ্য সরকার রেশন দিতে ব্যর্থ হয়েছে। তাই রেশনের অভাবে কিছু গ্রামবাসী নেপালের মার্কেট থেকে চিনা খাবার কিনে এনে খাচ্ছেন।’ বৈস্য উপত্যকার আদিবাসী নেতা জানান, শুক্রবার তিনি গ্রামবাসীদের নিয়ে ধারচুলা জেলা শাসকের সঙ্গে দেখা করেন এবং পিডিএসের অন্তর্গত রেশন কম আসছে বলেও অভিযোগ করেন। ভারত–নেপাল সংযোগস্থলে গারবিয়াং সংলগ্ন কালি নদীর ওপর ব্রিজ পার করে গ্রামবাসী নেপালের টিঙ্কার ও ছাংরু মার্কেটে গিয়ে চাইনিজ খাবার কিনে আনছেন।

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 48
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~