খবর ২৪ ঘন্টা

জানেন কি বিশ্বের সবথেকে দামি কুকুর (Dog Breeds ) কোন গুলি!! দেখুন ~

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

আপনি কি এটা জানেন যে মানুষ ছাড়া কুকুরই এমন একটি প্রাণী যারা আপনার চোখ দেখেই আপনার মনের আবেগ আভাস করে নেয়। প্রায় ত্রিশ হাজার বছর পূর্ব থেকেই মানুষ কুকুরকে নিজেদের পালিত জানোয়ার রূপে রাখা শুরু করে।
ইদানীং অনেকের জন্য কুকুর পোষাটা একটা স্ট্যাটাস প্রদর্শনও হয়ে গেছে। ভারতে এখন পাওয়া যাচ্ছে বিভিন্ন মূল্যবান প্রজাতির কুকুর। বর্তমানে দেশ বিদেশ থেকে বিভিন্ন প্রজাতির কুকুরের আমদানি রপ্তানি করা ব্যবসার একটি অন্যরূপ হয়ে উঠেছে । পাওয়া যাচ্ছে এমন প্রজাতির কুকুর যাদের মূল্য কোটি টাকাও হতে পারে। এই তালিকায় এমনই কিছু মূল্যবান প্রজাতির কুকুরের উল্লেখ্য করা হয়েছে…

১০. কেনেডিয়ান এস্কিমো (Canadian Eskimo) :


কেনেডিয়ান এস্কিমো উত্তর আমেরিকার সবচাইতে প্রাচীনতম এবং বিরল বিশুদ্ধ প্রজাতির কুকুর। এরা খুবই শক্তিশালী ও হৃষ্টপুষ্ট হয়। নীল রঙের চোখের এই কুকুরা দেখতে কিছুটা নেকড়ের মত হয়ে থাকে। বর্তমানে মোট তিনশ প্রজাতির কেনেডিয়ান এস্কিমো রয়ে গেছে। এদের মূল্য ৮০,০০০/- টাকা থেকে শুরু হয়ে আরও অধিক হয়ে থাকে। কানাডীয় আর্কটিক এ এরা একসময়ে বরফে যাতায়তের যানবাহন হিসেবে ব্যবহার করা হত। নিম্ন তাপমাত্রার ঠাণ্ডা আবহাওয়া এদের বিকাশের জন্য অনুকূল।

৯. শালুকি ( Saluki ) :

শালুকি নামটি আসে প্রাচীন শ্রিয়ান দেশ ‘শেলিউকিয়া’ থেকে। আরব বাসিন্দাদের মতে শালুকি প্রজাতিটা আল্লাহ্‌ থেকে দেওয়া উপহার। এদের মূল্য প্রায় ১,৩০,০০০ টাকা। প্রায় বায়ুর মত দ্রুত গতিতে দৌড়াতে পারে এরা। দেহের গঠন সরু, হালকা ও কিছুটা লম্বাটে হয়ে থাকে। বার থেকে চোদ্দ বছর হয়ে থাকে এদের জীবনকাল। প্রভুদের  প্রতি অনুগত হয় এবং এদেরকে খুব সহজেই পালন করা যায়।

৮. অকিতা (Akita) :

অকিতা প্রজাতির কুকুররা খুবই জনপ্রিয় ও ব্যয়বহুল। যার মূল্য ২,৯০,০০০ টাকা । এরা খুবই শক্তিশালী ও প্রভাবশালী হয়ে থাকে এমনকি সঠিক ভাবে যদি প্রশিক্ষণ দেওয়া না হয় তবে এরা অন্য কুকুরদের প্রতিও আক্রমণাত্মক হতে পারে। অকিতার মধ্যে খুবই একটা মজাদার ব্যপার হল এরা কখনো কখনো বিড়ালের মত আচরণ করে, ও খাবারের পর নিজেকে পরিষ্কার করতেও পছন্দ করে। অকিতা প্রজাতির মূল উৎসস্থল হল জাপানের তুষারময় পর্বতশৃঙ্গ অঞ্চল। যেখানে এরা বন্য শূকর, ছোট হরিণ শিকারের জন্য ব্যবহৃত হত। বরফ বা ঠাণ্ডা শীতল আবহাওয়া এই প্রাজাতির কুকুরের বিকাশের জন্য সর্বোত্তম। বরফের মধ্যে খেলা করা, খরগোশের শিকার, বরফ খাওয়া এরা খুবই পছন্দ করে থাকে।

৭. ফরাও হাউনড (Pharaoh Hound) :

ফরাও হাউনড প্রজাতির কুকুরের বাজার দর প্রায় ৪,২০,০০০ টাকা হয়ে থাকে। এদের দেহ কিছুটা সরু প্রকৃতির হয়ে থাকে। এরা খুব দ্রুত, চতুর, বুদ্ধিমান এবং ভাল ক্রীড়নশীল আবার কিছুটা রাগী প্রকৃতির হয়ে থাকে। Malta দেশের রাষ্ট্রীয় কুকুর হচ্ছে ফরাও হাউনড, যেখানে একে ‘রেবিট ডগও’ বলা হয়ে থাকে। কারন মালটা দ্বীপে এরা ঐতিহ্যগতভাবে খরগোশ শিকারের জন্য ব্যবহৃত হয়ে থাকে।

 

৬. টিবেটিয়ান মস্থিফ (Tibetan Mastiff) :


তিব্বতন মস্থিফ মূলরূপে তিব্বত, চীন, নেপাল, লাদাখ ও মধ্য এশিয়াতে পাওয়া যায়। তিব্বত ও লাদাখে এরা স্থানীয় বাসিন্দাদের দ্বারা মেষপালকে নেকড়ে, চিতা, ভালুক এদের হাত থেকে রক্ষা করার জন্য ব্যবহার করা হত। এখনও কিছু কিছু তিব্বতি এলাকায় এদেরকে এইকাজে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এদের জীবনকাল ১০ থেকে ১৪ বছর হয়। এই প্রজাতির কুকুর খুব ব্যয়বহুল হয়ে থাকে। এদের মূল্য ৪,৫০,০০০ টাকা, আবার কখনো কখনো  এরও অধিক হয়ে থাকে। সম্প্রীতি চীন দেশে এই প্রজাতির কুকুর ১২ কোটির অধিক মুল্যে বিক্রি হয়েছে।

৫. রটউইলার (Rottweiler) :


আমাদের তালিকায় রটউলিয়ার পৃথিবীর পঞ্চম মূল্যবান কুকুর। যাদের মূল্য ৫লাখ এর বেশিও হয়ে থাকে। এই বড় আকৃতির কুকুরা নির্ভীক, আজ্ঞাকারী এবং তাদের মালিকদের প্রতি প্রতিরক্ষামূলক হয়ে থাকে। এদেরকে অল্প বয়সেই সামাজিকীকরণে প্রশিক্ষণ দেওয়া শুরু করা গুরুত্বপূর্ণ। পুলিশ ও সেনাবাহিনীতে সর্বপ্রথম রটউলিয়ার কুকুরদের ব্যবহার করা শুরু হয়ে থাকে। এদের জীবনকাল সাধারণত আট থেকে দশ বছর হয়।

৪. লাউচেন(Lowchen) :


লাউচেন পৃথিবীর অন্যতম অধিক মূল্যবান প্রজাতির কুকুর। প্রায় ৫,২০,০০০ টাকা থেকে শুরু হয়ে থাকে এদের মূল্য। এই প্রজাতির কুকুরদের ‘লিটল লায়ন ডগ’ ও বলা হয়ে থাকে। ছোট্ট আকৃতির এই কুকুর গুলো এতটাই আদুরে হয় যে কোন কোন দেশে এরা ‘টয় ডগ’ মানে খেলনার কুকুর হিসেবেও পরিচিত। প্রতিবছর এই প্রজাতির মোট একশটি কুকুর বিক্রি হয়ে থাকে।

৩. চাউ চাউ(chaw chaw) :

এই চাউ চাউ প্রজাতির কুকুর দেখতে গভীর রোমশ যুক্ত কিছুটা ভিন্ন প্রকৃতির হয়। আপনি যদি কোন নরম তুলতুলে আদুরে আদুরে পোষা চান তবে এই প্রজাতির কুকুর খুবই উত্তম। আবার একই সঙ্গে এরা যেকোনো অপরিচিত ব্যক্তি থেকে খুবই সচেতন থাকে। এদের মূল্য সাধারণত ৫,৫০,০০০ টাকা হয়ে থাকে। এদের জীবনকাল ১২ থেকে ১৫ বছর অবধি হয়ে থাকে। এই প্রজাতির কুকুরা মূলত রূপে চাইনাতে পাওয়া যায়। যেখানে এই প্রজাতির কুকুরদের শিকারি কুকুর হিসেবে কাজে লাগানো হয়ে থাকে, বিশেষ করে শস্য ক্ষেত থেকে পাখি তাড়ানো বা নেকড়ে তাড়ানো। এককথায় চমৎকার গার্ড কুকুর হিসেবে এরা পরিচিত। পরিবারের সদস্যদের সাথে খুবই নিবিড় সম্পর্ক বানিয়ে ফেলে এরা।

২.ইংলিশ বুলডগ (English Bulldog) :

বুলডগ একটি মাঝারি আকারের কুকুরের বংশ যা অধিকাংশ ইংলিশ বুলডগ বা ব্রিটিশ বুলডগ নামে পরিচিত। বর্তমান এদের মূল্য প্রায় ৬ লক্ষ টাকা। অনান্য  বুলডগ প্রাজাতিরা হল আমেরিকান বুলডগ, ফ্রেন্স বুলডগ ইত্যাদি। এই বুলডগ প্রজাতিরা বেশ পেশীবহুল, ভারী ওজনের, অনেকটা বলিরেখা সমৃদ্ধ চেহারার হয়ে থাকে। আমেরিকায় বুলডগ প্রজাতিটি সবচাইতে অধিক জনপ্রিয়। এরা বেশ আরাম প্রিয় স্বভাবের হয়ে থাকে, তবে খেলাধুলা বিশেষ করে শিশুদের সঙ্গ এরা খুবই পছন্দ করে। এদের জীবনকাল দশ বছর অবধি হয়ে থাকে।

১. সমোয়ড (Samoyed) :

সমোয়ড প্রজাতির কুকুরদের মূল্য  ৭ লক্ষ টাকা। এরা খুবই চঞ্চল স্বভাবের হয়ে থাকে। উত্তর পশ্চিম রাশিয়া এবং পশ্চিম সাইবেরিয়া এদের মূল উৎস। ঘন সাদা, ডবল স্তরের লোম যুক্ত এই কুকুররা খুবই আদুরে হয়ে থাকে। পরিবারের বাচ্চা বুড়ো সবার জন্য এরা খুবই উৎকৃষ্ট সহচর।

 

 

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...