চোখের যত্ন নিন – জানুন তার নানান উপায়ঃ-

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

জেনে নিন চোখের যত্ন কিভাবে নেবেনঃ-

প্রাত্যহিক  জীবনে আমরা নিজেকে  সুস্থ্য  রাখার জন্য ব্যায়াম করি , Diet করি । কিন্তু আমরা  চোখের  যত্ন করি কি ? বেশির ভাগ মানুষ সারাদিন ল্যাপটপ , কম্পিউটার  ও মোবাইল নিয়ে  কাটিয়ে  দেয় । নিজেরই অজান্তে  যে চোখের কত ক্ষতি  হচ্ছে  তা বলার অপেক্ষা রাখেনা । যার জন্য বাজারে বেড়ে চলেছে  চশমার বিক্রি । যেভাবে  আমরা শরীরের যত্ন করি একই ভাবে আমাদের চোখের যত্ন  করা উচিত । আসুন জেনে নি চোখকে সুস্থ্য  রাখার কিছু উপায় ।

 

ঠাণ্ডা জল

প্রত্যেক  দিন সকালে  মুখ ধুবার সময় মুখে জল নিয়ে  চোখ খুলে যতক্ষণ পারেন ঠাণ্ডা জলের  ঝাপটা দিন। চোখ ভালো থাকবে । সাধারণত  আমরা যখন ল্যাপটপ / কম্পিউটারে কাজ করি এক দৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকি। যা আমদের চোখের জন্য খুব ক্ষতিকারক । ১/২ ঘণ্টা পর উঠে চোখে জলের ঝাপটা দিলে চোখ ভালো থাকবে ।     

 

গোলাপ জল

গোলাপ জল শুধু আমাদের মুখের উজ্জলতা বৃদ্ধি করে না চোখের জন্য ও খুব উপকারি । প্রত্যেকদিন অফিস থেকে ফিরে /   রোদে  বেরোলে ঘরে ফিরে গোলাপ জল দিয়ে  চোখ ধুয়ে নিন । চোখ ভালো থাকবে ।

 

কাঁকড়ি

কাঁকড়ি প্রকৃতির দেওয়া একটি মুল্যবান   উপহার । এই ফল চোখের জন্য খুব উপকারি । রোজ ১টি করে কাঁকড়ি খান । খুব উপকার পাবেন । যাদের রোদে বেরোলে চোখ চুলকায় এই ফল খেলে সমস্যার সমাধান পাবেই । একটি কাঁকড়ি কেটে  ফ্রিজে রেখে দিন । ১০ /১৫ মিনিট পর কাঁকড়ি ফ্রিজ থেকে বের করে চোখের উপর লাগিয়ে ৫ মিনিট রাখে দিন উপকার পাবেন ।

 

ঠাণ্ডা দুধ

সারাদিন ল্যাপটপ ও মোবাইলের রঙিন রশ্মি আমাদের চোখের খুব ক্ষতি করে । দিনের শেষে বাড়ি ফিরে ঠাণ্ডা দুধে তুলো  ভিজিয়ে ৫ মিনিটের জন্য চোখে লাগিয়ে শুয়ে থাকুন । চোখ ভালো থাকবে ।

 

কাঁচা আলু

কাঁকড়ির মতো কাচা আলু  চোখের জন্য খুব উপকারী । আজকাল অনেকেরই  চোখের নিচে কালো দাগ হয়ে যায় । অনিদ্রা আথবা  সারাদিন চশমা পরে থাকলে এমন হয়ে  যায় । আলুর গোল গোল ছোট  টুকরো করে ফ্রিজে রেখে দিন । রাতে  ঘুমানোর আগে দুই চোখে লাগিয়ে ১০ মিনিট রেখে দিন । চোখের কালো দাগ চলে যাবে । কিন্তু আলু  চোখ  থেকে  সরানোর পর   চোখ ধোবেন না । 

 

অ্যালোভেরা 

 

অ্যালোভেরা শুধু আমাদের ত্বকের জন্য উপকারী নয় । চোখের জন্যও খুব উপকারী । যাদের  চোখর অ্যালার্জি হয় তাদের চোখ অনেক সময়  ফুলে যায় । চোখ দিয়ে জল  পড়ে । অ্যালোভেরা ব্যাবহার করে অ্যালার্জি থেকে মুক্তি পেতে পারেন । কাচা অ্যালোভেরায় মধু মিশিয়ে চোখে লাগালে চোখ ফোলা কমে যায় । 

 

সবুজ শাক-সব্জি

  

সবুজ শাক-সব্জি   যেমন স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী তেমনি চোখের জন্যও উপকারী । বৈজ্ঞানিক গবেসনায় সবুজ শাক সব্জিতে  ক্যারোটিন নামক প্রাকৃতিক পদার্থ পাওয়া গেছে যা চোখের জন্য খুব উপকারী । তাছাড়া গাজর ও  পালকে  প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন  A  আছে। ভিটামিন  A চোখের দৃষ্টি শক্তি বারিয়ে দেয় । ব্রকোলিও খুব উপকারী চোখের জন্য ।

 

আলমণ্ড  

আলমণ্ড   চোখের জন্য খুব উপকারী । ছোট বাচ্চাদের রোজ ২ টি করে ও প্রাপ্ত বয়স্কদের ৫ টি করে আলমণ্ড  খাওয়া  উচিত । রাতে আলমণ্ড  ভিজিয়ে রাখুন  সকালে  খালি  পেটে খান ।

 

লিখিত উপায় গুলি করবেন তার পাশা পাশি বিভিন্ন ধরণের ছোট মাছ , ডিম , ফল  ও   মাংস  প্রত্যেক দিনের আহরে রাখবেন ।  ফলের  মধ্যে আঙ্গুর  , কমলা , পেয়ারা , strawberry  বেশি খাবেন ।  চোখের জন্য খুব উপকারী । আপনারা অফিসে /  বাড়িতে চেয়ারে বসে চোখের ব্যায়াম করতে পারেন ।কয়েকটি চোখের ব্যায়াম  নিচে উল্লেখ করা  হল ঃ-

  • মাথা ও ঘার  না  নাড়িয়ে   সোজা  হয়ে  বসুন ৩/৪ সেকেন্ডের জন্য উপরে তাকান এবং ৩/৪ সেকেন্ডের জন্য নিচে তাকান । এবার ৩/৪ বার  চোখ clock wise  আবার   anty clock wise ঘোরান । ২/৩ মিনিটের জন্য চোখ বন্ধ করে রাখুন ।
  • চোখ বন্ধ করে ২/৩ সেকেন্ড রাখুন । হঠাৎ করে চোখ খুলে নিন । এতে  চোখের নার্ভ সক্রিয় থাকে ।
  • দুটো হাতের তালু ঘষে গরম  করুন ।  এবার গরম হাত দুটি চোখের উপর হালকা করে  ৩/৪ সেকেন্ডের জন্য রাখুন ।  এতে  চোখের  রক্ত  চলাচল সক্রিয় থাকে ।   

      

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.