খবর ২৪ ঘন্টা

 বিনোদনে শুক্রবার ~ এক নজরে ” হলি – বলি – টলি “…

শেয়ার করুন সকলের সাথে...

আজ শুক্রবার, আর শুক্রবার মানেই সিনেমাপাড়ায় ভিড়। শুনলে হাসি পেলেও, এটাই সত্যি। আর হবে নাই বা কেন? হলি, বলি, টলি মিলে আইনক্স এখন তুঙ্গে। আসুন তবে, ১৬ ই ফেব্রুয়ারি জুড়ে একবার বক্স রেটিং – এ ঘুরে আসা যাক।

” আইয়ারি “…

প্রথমেই আসি সিদ্ধার্থ মালহোত্রার “আইয়ারি”।এককথায় একটি ক্রাইম ড্রামা থ্রিলার বই আইয়ারি। এখানে একজন আর্মি অফিসার হিসাবে চরিত্রে আছেন সিদ্ধার্থ মালহোত্রা। ছবিটি ১৬০ মিনিটের মাথায় বিশ্ব জুড়ে অস্ত্রের কারবারের বহুল তথ্য দান করেছে। যেখানে এটা বলতে দ্বিধা নেই যে, মুখোশেও মুখোশ থাকে, তা যে কতটা প্রাঞ্জল, তা ছবির প্রতি ক্ষেত্রে সরব হয়েছে সিদ্ধার্থ চরিত্রে। যেখানে সমাজের অন্তরালে থাকা মানুষের মুখোশ খুলতে সে প্রাসঙ্গিক ভাবে উঠে এসেছে। আর এমন টানটান ভাবনায় একজন প্রেমিকা থাকবেন না তা তো হয় না, তাই সেখানে রাখা হয়েছে হ্যাকার সোনিয়াকে। ইয়ারিয়ার পর এটা তার দ্বিতীয় ছবি।তাই একটু সাবলীল এই মিষ্টি নায়িকা। এবার সিনেমায় তাই মোড় ঘোড়াবে কে? তাই যখনই সেই হ্যাকার সোনিয়ার কথা জানতে পারেন কর্নেল মনোজ বাজপায়ী ওরফে কর্ণেল অভয় সিং,ঠিক তখনই এই অভয় সিং এর হস্তক্ষেপ থেকেই সিনেমা মোড় পাল্টে ফেলেছেন পরিচালক।। তবে সিদ্ধার্থ অ্যাক্সান, দুষ্টু মিষ্টি নায়িকা বকুল প্রীত বেশ এক নতুন স্বাদে সিনেমাহলে দর্শকের মন ছুঁয়েছে। সত্যি কথা বলতে সিনেমার মোর ঘাড়ে নিয়ে এগিয়ে চলেছেন মনোজ বাজপায়ী। এটা দ্বিরুক্তি নেই।

 

পরিচালনায় আছেন নীরজ পাণ্ডের,যেখানে এই গল্পের প্ল্যানিং বিশেষ দাগ না কাটলেও, বেশ ফাঁক ফোঁকর থেকেই গেছে। গানের দিক থেকে দুষ্টু মিষ্টি প্রেমের এক আকাশ মুহুর্তে ফ্রেমবন্দি আছে যে গান তা হলো ‘ম্যায়নু ইশক তেরা লে ডুবা’। আর বাংলা করলে? আমি তোমার প্রেমে ডুব দিয়েছি। একে তো বসন্ত চলছে, তার উপর রয়েছে ভ্যালেন্টাইন প্রীতি আবেশ তাই সব মিলিয়ে বেশ ক্রাইম ড্রামা থ্রিলার “আইয়ারি “

” কুছ ভিগে  আলফাজ “…

ওনারের পরিচালিত রোমান্টিক নাটক। এখানে দেখানো হয়েছে বাহিজ ও আলফাজ এক রোমান্টিক বাতাবরণে দুই মেয়ে দুজন মানুষের সাথে দেখা করে। তারপর যাদু হয়। একপ্রকার বিষন্নতা, প্রেম, হালকা ভালোলাগা থেকেই এই গল্প। আলফাজ খুব ভালো আবৃত্তি করে, আর তার অন্ধ ভক্তদের মধ্যে আছে অর্চনা। এখানে একজনের অভ্যন্তরীণ জখম আর একজনের বহিঃ জখম।।কিন্তু সবটাই পরিবর্তন করতে হবে। অপু এবং সেফালি চৌহানের মতো কয়েকটি চরিত্র আর শান্ত পরিবেশ যা মোড় ঘুরিয়ে দেয়। এখানে কলকাতার সাথে জড়িয়ে আছে আলফেজ এবং এখানে একটি অবসরপ্রাপ্ত পিংস, বিপস, ফরোয়ার্ড এবং রাইম এর একটি জগতে প্রতিষ্ঠিত হয়।এককথায় রোমান্স, আলস্য, শব্দের জগৎ নিয়ে এক বিশিষ্ট তা পেয়েছে এই ছবি।

সিদ্ধার্থ আনন্দ কুমার ( স্ক্রিনপ্লে),
 অভিষেক চ্যাটার্জী ( গল্প)
এডিটিং এ, ইরেন ধর মালিক
অফিস ট্রেলার ২২ জানুয়ারি, ২০১৮.
গানে – শাস্বতী শিবাস্তব।
মুক্তির তারিখ- 16 ফেব্রুয়ারি 2018

শব্দে : অরুণ নাম্বিয়ার
প্রোডাকশন ডিসাইনার – মৃদুল বৈদ্য।

” ব্ল্যাক প্যান্থার “…

এবার আসি ” ব্ল্যাক প্যান্থার “ আমেরিকার সুপার হিরো ফ্লিম। যেখানে রয়েছেন মাইকেল।বি জর্ডান,ড্যানি গুরুরা,লুপিতা নইং, ম্যার্টিন ফ্রি ম্যান, লেটিটিয়া রাইট,অ্যান্ডি সারকিস, এ্যাঞ্জেলা ব্যাস্টেট, অ্যাণ্ডি সারকিস, বন হুইটেট প্রমুখ।যেখানে টি ওয়াকাণ্ডা রাজা হিসাবে দেশে ফেরেন, আর তারপরই তার সার্বভৌমত্ব নিয়ে দ্বন্দ্ব আর প্রতিদ্বন্দ্বিতা প্রবল হয়ে ওঠে, পরে বৈশ্বিক হয়। ওয়াল্টার মোশন পিকচার এটিতে বিতরণ করা।হয়েছে।

এটি মার্ভেল সিনাইম্যাট্রিক ইউনির্ভাসের, ১৮ তম ফ্লিম। 

” নূরজাহান “…

এবার আসি বাংলার, ভারত বাংলার যৌথ পরিচালনায় অভিমন্যু পরিচালিত প্রথম নূরজাহান। এর আগে এই পরিচালক রাজ চক্রবর্তীর সাথে কাজ করেছেন বলে জানিয়েছেন। তবে আজকাল উইকিপিডিয়া অনেক কথাই সামনে আনে। তাই সেখানে দাবি করা হয়েছে যে সাইরাতের রিমেক।হলো নূরজাহান। কিন্তু সত্যিই কি তাই? প্রশ্ন এলে।অভিমন্যু চট্টোপাধ্যায় অভিযোগ “না ” বলে উড়িয়ে দিয়েছেন।

এখানে নতুন বাংলাদেশী মুখ পূজা চেরির সাথে কলকাতার আদৃত। তবে পূজার ঝুলিতে আগে থেকে শিশুশিল্পী হিসাবে অনেক কাজ আছে। এই ছবির প্রযোজনায় রয়েছে বাংলাদেশের জাজ মাল্টিমিডিয়া আর ভারতের রাজ চক্রবর্তী প্রোডাকশন। আর গ্রীন সিগন্যাল যখন পাওয়াই গেছে তখন আর সমস্যা কোথায়? তাই আজ মুক্তির সাথে প্রেমের আদলে বাংলার পূজা চেরির মিষ্টতা কিভাবে দর্শক সাড়া মেলে তাই দেখার। কেউ কম, কেউ বেশী, তবু দর্শক দেখবে, তাই রায় তাদের হাতে। মুক্তির সাথে সাথে কিভাবে ছবিগুলি মন কাড়ছে দর্শকের সেই দিকেই চেয়ে রেটিং বক্স। সাফল্যই সার্থকতা আনুক, এটাই প্রাপ্তি।

“পরী “

আজকের দিনে ট্রেলার “পরী “ এক অতিপ্রাকৃত ভয়ঙ্কর চলচিত্র। ভারতর্ষের বুকে অলৌকিকতা এক বিশেষ ছাপ ফেলে যায়। যদিও দারিদ্রতা আর যৌনতা বেশী বেচে তবুও হার হিমকরা অলৌকিকতা কম গুরুত্ব পায় না। এটি ২ রা মার্চ ২০১৮ তে প্রকাশ পাবে। ক্লিন সেটস ফ্লিমস এর তৃতীয় প্রযোজনা এই ফ্লিম। এখানে।

অনুষ্কা শর্মাকে নতুন ভাবে পাওয়া যাবে। তবে এখানে আরো মুখ যেমন পরমব্রত, রীতাভরী এবং রজত কাপুরের মতো ব্যক্তিত্ব । কন্ঠে থাকছেন অনুপম রায়। রক্তাক্ত চূর্ণ মুখ, নখ আর পারলৌকিক স্পৃহার আত্মা বহন করে এই পরী এক নতুন শিহরণ আনতে চলেছে।এখন কেবলই অপেক্ষা, দর্শক মন কতটা কাড়বে এই অপেক্ষায় সকলে।

 

 

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...