স্টিভ স্মিথের ক্রিকেট কেরিয়ার কি শেষের মুখে ?

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 47
    Shares

অস্ট্রেলিয়া দলের অনেকেই বল বিকৃতির সঙ্গে যুক্ত। একথা স্বীকারও করে নিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ। ছেড়েছেন অধিনায়কত্বও। একই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সহ-অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারও। আইসিসিও তাদের বিরুদ্ধে ম্যাচ সাসপেনশান, আর্থিক জরিমানা,ডিমেরিট পয়েন্ট সহ একাধিক শাস্তিমূলক পদক্ষেপ নিয়েছে। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া  মোটেই আইসিসির পথে হাঁটবে না তা স্পষ্ট করে দিয়েছে রবিবারই। তারা দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির পথেই এগোচ্ছে। যাতে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটে এমনটা  করার সাহস আর কেউ না পায়।
David Warner and Steven Smith were stood down from leadership duties on the final day of the Third Test.
তদন্তের পর আজীবন নির্বাসনও হতে পারে স্টিভ স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নারে। দ:আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে উঠে আসে বল বিকৃতির অভিযোগ, যা ধরা পড়ে ক্যামেরায়। যার কারিগর ক্যামেরুন ব্যানক্রফট।  জেরার মুখে পরিকল্পনার কথাও মেনেও নিয়েছেন  অধিনায়ক। কিন্তু আইসিসি স্মিথকে এক ম্যাচ নির্বাসন ও ম্যাচ ফি-র ১০০ শতাংশ কেটে নিয়েই থেমে গেছে। যা নিয়েও সমালোচনার ঝড় উঠেছে। সমালোচনা শুরু হয়েছে ব্যানক্রফটের শাস্তি নিয়েও। প্রশ্ন উঠছে তাঁকে কেন নির্বাসিত করা হল না? কেন শুধু ম্যাচ ফি-র ৭৫ শতাংশ কাটা হল?

তদন্ত শুরু করেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। ইতিমধ্যেই দু’জনকে পাঠানো হয়েছে দ: আফ্রিকায়। তাঁরাই আপাতত তদন্ত করবেন। স্টিভ স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নারের হতে পারে আজীবন নির্বাসন। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার উপর চাপ রয়েছে, সরকারের। এই বিষয়ে ধিক্কার জানিয়েছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী ম্যালকম টার্নবুল। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার চিফ এক্সিকিউটিভ জেমস সাদারল্যান্ড সমর্থকদের কাছে ক্ষমাও চেয়ে নিয়েছেন।

তদন্তের পরে সিদ্ধান্ত হবে আর কে কে জরিয়ে সেই বিষয়ে। সন্দেহের  তালিকায় রয়েছেন মিচেল স্টার্ক, জস হ্যাজেলউড, নাথান লিয়ঁও। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার তদন্তে জেরা করা হবে স্মিথ, ওয়ার্নার, ব্যানক্রফট ও কোচ লেম্যানকে। দেখা হবে এই তালিকায় অন্য কেউ আছেন কি না?

 

Facebook Comments

শেয়ার করুন সকলের সাথে...
  • 47
    Shares

খবর এক নজরে…

No comments found

Sponsored~

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.